• শিরোনাম

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এক নজরে শেখ হাসিনার ৭১ বছর

    ডেস্ক | ০৮ জানুয়ারি ২০১৯ | ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ

    এক নজরে শেখ হাসিনার ৭১ বছর

    চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। বিশ্বে দীর্ঘ মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা নারীদের মধ্যে তিনি ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দ্রিরা গান্ধী ও জার্মানির অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের সমপর্যায়ে রয়েছেন।

    শেখ হাসিনা ছাত্র জীবন থেকেই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে পরিবারের অন্যান্য সদস্যের সঙ্গে হত্যার ৬ বছর পর দলের দায়িত্ব নেন তিনি।

    শেখ হাসিনা ১৯৪৭ সালে গোপালগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। পারিবারিক ঐতিহ্যের কারণে সবসময় রাজনীতির কাছাকাছিই ছিলেন তিনি। পরে সরাসরি রাজনীতিতে তৈরি হয় তার বর্ণাঢ্য কেরিয়ার।

    এক নজরে শেখ হাসিনা:

    ১৯৪৭: শেখ হাসিনা ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বেগম ফজিলাতুন্নেছার পাঁচ সন্তানের মধ্যে সবার বড়।

    ১৯৫৪: ১৯৫৪ সাল থেকে শেখ হাসিনা পরিবারের সঙ্গে ঢাকায় মোগলটুলির রজনীবোস লেনের বাড়িতে বসবাস শুরু করেন। পরে মিন্টো রোডের সরকারি বাসভবনে বসবাস করতেন।

    ১৯৫৬: এ বছর শেখ হাসিনা টিকাটুলির নারীশিক্ষা মন্দির বালিকা বিদ্যালয়ে ভর্তি হন।

    ১৯৬১: শেখ হাসিনা পরিবারসহ ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরের বাড়িতে বসবাস শুরু করেন ১৯৬১ সালের ১ অক্টোবর থেকে।

    ১৯৬৫: আজিমপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ম্যাট্রিক পাস করেন।

    ১৯৬৮: বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকা অবস্থায় এ বছর পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এমএ ওয়াজেদ মিয়ার সঙ্গে শেখ হাসিনার বিয়ে হয়। ওয়াজেদ মিয়া ২০০৯ সালের ৯ মে মৃত্যুবরণ করেন।

    ১৯৭৩: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ পাস করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সদস্য ও রোকেয়া হল শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

    ১৯৭৫: পৃথিবীর অন্যতম ভয়াবহ ঘটনা ঘটে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট। এই রাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। তখন বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা দেশে না থাকায় তারা প্রাণে বেঁচে যান।

    ১৯৮১: বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ১৯৮১ সাল পর্যন্ত আওয়ামী লীগের জন্য ছিল দুর্দিন। এ বছরের ১৭ মে শেখ দেশে ফিরে আসেন। দেশে এসে আওয়ামী লীগের হাল ধরেন তিনি।

    ১৯৮৬: ১৯৮১ সালে দেশে ফেরার ৫ বছর পর ১৯৮৬ সাল থেকে ৫ বছর তৃতীয় সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে ভূমিকা রাখেন।

    ১৯৯১: শেখ হাসিনা ১৯৯১ সালে পঞ্চম সংসদ নির্বাচনে ৮৮ আসন পেয়ে আবারও বিরোধী দল হিসেবে সংসদে ভূমিকা রাখেন।

    ১৯৯৬: ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা প্রথমবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন। ২০০১ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

    ২০০১: এ বছর তিনি জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে সংসদে ভূমিকা রাখেন। ২০০৬ সাল পর্যন্ত তিনি এ পদে আসীন ছিলেন।

    ২০০৭: ২০০৬ সালে পট পরিবর্তনের পর ২০৭ সালের ১৬ জুলাই শেখ হাসিনাকে গ্রেফতার করা হয়। ১১ মাস পর ২০০৮ সালের ১১ জুনে তিনি কারাগার থেকে মুক্তি পান।

    ২০০৯: ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করলে শেখ হাসিনা ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

    ২০১৪: দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার বিজয়ী হলে ১২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয়বার শপথগ্রহণ করেন তিনি।

    ২০১৯: গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পর সোমবার (৭ জানুয়ারি) চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

    শেখ হাসিনা ব্যক্তিগত জীবনে দুই সন্তানের জননী। তার দুই সন্তান হলেন, সজীব ওয়াজেদ জয় (পুত্র) ও সায়মা ওয়াজেদ পুতুল (কন্যা)।

    Comments

    comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী