• শিরোনাম

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    গোপালগঞ্জে ধর্ষণের শিকার প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী

    ডেস্ক | ১০ মে ২০১৯ | ৫:৪১ অপরাহ্ণ

    গোপালগঞ্জে ধর্ষণের শিকার প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী

    গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় মামাবাড়ি বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৬ বছরে এক শিশু শিক্ষার্থী। সে টুঙ্গিপাড়া উপজেলার কুশলী মডার্ন কিন্ডার গার্টেন স্কুলের প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

    শিশুটিকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই শিশুর মা বাদী হয়ে টুঙ্গিপাড়ায় থানায় একটি অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ধর্ষকের মা সাহেদা বেগম, বোন রুমাসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত মিল্টন ফকির পলাতক রয়েছে।

    ধর্ষণের শিকার ওই শিশুর মা জানান, ১০ দিন আগে আমি আমার মেয়েকে নিয়ে ভাইবাড়ি কুশলী মধ্যপাড়া বেড়াতে যাই। বৃহস্পতিবার ইফতারী শেষে পাশের বাড়িতে পানি আনতে যাই। এসময় আমার মেয়ে বাড়ির উঠানে খেলছিল। বাড়িতে আর কেউ না থাকার সুযোগে আমার সম্পর্কে চাচাত ভাই হাসেম ফকিরের ছেলে মিল্টন ফকির মেয়েকে ডেকে তাদের নির্মানাধীন বাড়ির একটি কক্ষে নিয়ে ধর্ষণ করে। যাওয়ার সময় মেয়েকে এ ঘটনা কাউকে না বলার জন্য ভয়ভীতি দেখায়। আমি পানি নিয়ে বাড়িতে ফিরে মেয়েকে দেখতে না পায়ে ডাকাডাকি করে। তখন আমার মেয়ে ওই কক্ষ থেকে কান্নাকাটি করতে করতে বেরিয়ে আসে। এবং ঘটনাটি খুলে বলে।

    গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনালের হাসপাতালে সহকারী পরিচালক ডাঃ অসিত কুমার মল্লিক বলেন, টুঙ্গিপাড়ার ৬ বছরের এক শিশু ধর্ষণের আলামত নিয়ে ভর্তি হয়েছে শুনেছি। তার ডাক্তারী পরীক্ষা করা হবে।

    টুঙ্গিপাড়া থানার এস আই মনির হোসেন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর জিজ্ঞাবাদের জন্য অভিযুক্ত মিল্টন ফকিরের মা ও বোনসহ ৪ জনকে আটক করেছি। মিল্টন পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

    Comments

    comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী