• শিরোনাম

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    বালিশ কাণ্ডের পর এবার রংপুরে এসি কাণ্ড

    ডেস্ক | ২৩ জুন ২০১৯ | ১০:৫৮ অপরাহ্ণ

    বালিশ কাণ্ডের পর এবার রংপুরে এসি কাণ্ড

    রংপুর মেডিকেল কলেজে চিকিৎসার যন্ত্রপতি ক্রয়ে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। যেসব যন্ত্রপাতি ক্রয় করেছে কর্তৃপক্ষ তার কয়েকগুন বাড়িয়ে দেখিয়ে বিপুল পরিমান সরকারি টাকা আত্মসাত করেছে।

    এ আত্মসাতের অভিযোগের টেন্ডার কমিটির বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে যে পরিমাণ দুর্নীতির নথিপত্র হাতে পাওয়া গেছে তাতে বিস্মিত হয়ে পড়েছেন তদন্ত কমিটি।


    কমিটি অনুসন্ধানে দেখেছে প্রতিটি যন্ত্রপাতি ও অন্যান্য মালামাল ক্রয়ে বাজার দরের থেকে দ্বিগুন দেখানো হয়েছে। ইমমিনুসারি অ্যানালাইজার টেন্ডারে ক্রয়মূল্য দেখানো হয়েছে ১ কোটি টাকা, প্রকৃত বাজার মূল্য মাত্র ২০ লাখ টাকা একইভাবে ভিডিও অ্যান্ডোসকোপ টেন্ডারে ক্রয়মূল্য দেখানো হয়েছে ১ কোটি ৩৭ লাখ টাকা অথচ প্রকৃত বাজার মূল্য মাত্র ৩৫ লাখ টাকা। মালামাল ক্রয়ের ক্ষেত্রে এভাবে বিপুল পরিমাণ আর্থিক দুর্নীতি করা হয়েছে।

    টেন্ডারে জেনারেল কোম্পানির ২ টন ক্ষমতা সম্পন্ন ৩২টি এসি কেনা হয়েছে। প্রতিটির মূল্য পরিশোধ করা হয়েছে ২ লাখ ৬৪ হাজার টাকা। অথচ বাজার মূল্য ৯০ হাজার টাকা।

    তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. কান্তা রায় রিমিকে কন্ডাক্টিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি তাকে দ্রুত স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন বরাবর তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

    সিভিল সার্জন জাকিরুল ইসলাম লেলিন বলেছেন, টেন্ডার প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতার অভাবের কারণে তিনি সেখানে যাননি। টেন্ডার কমিটির অপর একজন সদস্য জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি সহকারী কমিশনার অতীশ দশী চাকমাকে টেন্ডার সম্পর্কে কোনো কিছু না জানানোর কারণে তিনি কোনো কাগজপত্রে স্বাক্ষর করেননি।

    Comments

    comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী