• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    অপরাধ হলে থানার কর্মকর্তাকে জবাব দিতে হবে

    অনলাইন ডেস্ক | ১১ জুন ২০১৭ | ১০:২৩ পূর্বাহ্ণ

    অপরাধ হলে থানার কর্মকর্তাকে জবাব দিতে হবে

    আসন্ন ঈদে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে রাজধানীজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলার নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।


    ডিএমপিতে পর্যাপ্তসংখ্যক পুলিশ রয়েছে উল্লেখ করে তিনি রাজধানীর নিরাপত্তায় জনবল বাড়ানোর নির্দেশ দেন।

    ajkerograbani.com

    পুলিশ কমিশনার বলেন, ‘যে থানা এলাকায় অপরাধ ঘটবে সে থানার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে জবাবদিহি করতে হবে।’

    শনিবার ডিএমপি সদর দফতরে অপরাধবিষয়ক বৈঠকে এ কথা বলেন আছাদুজ্জামান মিয়া। বৈঠকে মূল আলোচনা ছিল ঈদে রাজধানীর নিরাপত্তা।

    পুলিশ কমিশনার বলেন, ঈদের ছুটিতে রাজধানীবাসীর বড় অংশ গ্রামে যান। এ সময় ফাঁকা রাজধানীতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে এক মহল চেষ্টা চালাতে পারে। এজন্য রাজধানীর নিরাপত্তায় বিট পুলিশিংকে জোরদার ও উঠান বৈঠকের মাধ্যমে প্রতিটি এলাকায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, বিপণিবিতান ও বাসা-বাড়ির দিকে নজরদারি বাড়াতে হবে। দায়িত্ব পালনে শৈথিল্যসহ কোনো পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। পুলিশ কমিশনার জঙ্গি ও সন্ত্রাসী তৎপরতার বিষয়ে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোর নির্দেশ দেন।

    শনিবার সকালে ডিএমপি কার্যালয়ে আছাদুজ্জামান মিয়ার সভাপতিত্বে এ বৈঠকে ডিএমপির বিভিন্ন ক্রাইম জোনের কর্মকর্তা ছাড়াও মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও ডিএমপির ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পুলিশ কমিশনার ঈদকেন্দ্রিক ছিনতাইকারী, চাঁদাবাজ ও মলমপার্টির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে মাঠ পর্যায়ে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। বৈঠকে থাকা একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে আলাপে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

    বৈঠক সূত্র জানায়, সম্প্রতি ঘুষ আদায়সহ মিডিয়ায় প্রকাশিত কিছু ঘটনার প্রসঙ্গ তুলে ধরে পুলিশ কমিশনার এ ব্যাপারে ডিএমপিতে কর্মরত প্রতিটি সদস্যের বিরুদ্ধে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। তিনি বলেন, ডিএমপি সদর দফতর মাঠ পর্যায়ে কর্মরত সদস্যদের কার্যক্রম তীক্ষèভাবে নজরদারি করছে। বৈঠকে থাকা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মাঠ পর্যায়ের সদস্যদের কাছে এ বার্তা পৌঁছে দেয়ার জন্য বলেন আছাদুজ্জামান মিয়া।

    বৈঠক সূত্র আরও জানায়, ঈদকে সামনে রেখে নগরবাসী যাতে গভীর রাত পর্যন্ত নিশ্চিন্তে কেনাকাটা করতে পারে সেজন্য মার্কেট ও শপিংমলে পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েনের নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার। প্রতিটি থানা এলাকায় পুলিশি পেট্রোল ব্যবস্থা জোরদারের নির্দেশও দেন তিনি।

    আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ঈদের ছুটিতে মার্কেট, শপিংমল, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছাড়াও যেসব বাসাবাড়িতে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা রয়েছে সেগুলো যেন চালু থাকে সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে থানা পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে হবে। পুলিশ কমিশনার বাস ও লঞ্চ টার্মিনাল এবং রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশের পাশাপাশি কমিউনিটি ট্রাফিক পুলিশিং ব্যবস্থা জোরদার করার নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে টিকিট কালোবাজারি প্রতিরোধে বিভিন্ন টার্মিনালের পুলিশ ফাঁড়িগুলোতে অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন করার নির্দেশ দেন। সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে নৌপুলিশ ও ডিএমপির পক্ষ থেকে যৌথ টহল ব্যবস্থার পাশাপাশি পুলিশ কন্ট্রোলরুম স্থাপনের নির্দেশ দেন। ঈদের কেনাকাটার সময় মার্কেটে জাল নোট পরীক্ষা করার যন্ত্র বসানো ছাড়াও ভ্রাম্যমাণ আদালতের তৎপরতা জোরদারের নির্দেশনা দেন।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757