রবিবার, জুন ১৪, ২০২০

আগামীতে ঘন ঘন হবে তীব্র ঝড়: গবেষণা

ডেস্ক   |   রবিবার, ১৪ জুন ২০২০ | প্রিন্ট  

আগামীতে ঘন ঘন হবে তীব্র ঝড়: গবেষণা

বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন যদি এখনকার হারে বজায় থাকে তাহলে সমুদ্রের উচ্চতা বৃদ্ধি পাবে এবং ফলস্বরুপ উপকূলীয় অঞ্চলে বৃহত্তর ও ঘন ঘন ব্যাপক ঢেউ আছড়ে পড়বে বলে সম্প্রতি এক গবেষণায় জানিয়েছেন একদল গবেষক।
গবেষণায় জানানো হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলেই শক্তিশালী ঝড় ও বাতাস বাড়ছে। এছাড়া এমনটি চলতে থাকলে আগামী ৮০ বছরে আরও বৃহত্তর ও ঘন ঘন তীব্র ঝড় ও ঢেউ উপকূলে আঘাত হানবে।
গবেষণা অনুসারে, দক্ষিণ মহাসাগরের বৃহত্তর ঢেউ পর্যালোচনা করে দুটি দৃশ্যই দেখা গেছে। সেটি হলো- এটি চরম আকার ধারণ করতে পারে এবং ভবিষ্যতে তা আবার কমে যেতে পারে।
গবেষণা দেখিয়েছে, পৃথিবীর পরিবর্তিত জলবায়ু এবং পৃথক বাতাসের পরিস্থিতি কীভাবে উপকূলীয় জনসংখ্যার ওপর প্রভাব ফেলবে।
মেলবোর্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকগণ দ্বারা পরিচালিত এই গবেষণা সায়েন্স অ্যাডভ্যান্সে প্রকাশিত হয়েছে। ওই গবেষণায়, মহাসাগরীয় অঞ্চলে ঢেউয়ের চরম ফ্রিকোয়েন্সি ও প্রস্থের পরিমাণ দশ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধির পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে।
তবে সেখানে আশার কথাও জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তারা বলেছেন, যদি আমরা বিশ্বজুড়ে জীবাশ্ম জ্বালানীর ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করতে পারি তাহলে এই চরম ঢেউ উল্লেখযোগ্যহারে কমে যেতে পারে।
মেলবোর্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো প্রকৌশল গবেষক প্রফেসর ইয়ান ইয়ং সতর্ক করেছেন যে, ঝড় ও চরম ঢেউ সমুদ্রের স্তর যথেষ্ট বৃদ্ধি এবং অবকাঠামোগত একইরকম ক্ষতি সাধন করে।
তিনি বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী প্রায় ২৯০ মিলিয়ন (২৯ কোটি) মানুষ এমন অঞ্চলে বাস করেন যেখানে প্রতিবছর বন্যার এক শতাংশ সম্ভাবনা রয়েছে। চরম ঢেউয়ের বৃদ্ধি বিপর্যয়কর হতে পারে। এছাড়া বৃহত্তর এবং ঘন ঘন ঝড়গুলো বন্যা ও উপকূলরেখা ক্ষয়ের কারণ হতে পারে।’


Posted ৮:৩৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৪ জুন ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি) মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১২১৭০৭৭১

E-mail: [email protected] | [email protected]