• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    আলফাডাঙ্গায় সাংবাদিক নাঈমের ওপর সন্ত্রাসী হামলা

    হাফিজ শরীফ | ১৭ মে ২০১৭ | ৬:০০ অপরাহ্ণ

    আলফাডাঙ্গায় সাংবাদিক নাঈমের ওপর সন্ত্রাসী হামলা

    ঢাকাটাইমস২৪ ডটকমের আলফাডাঙ্গা উপজেলা প্রতিনিধি মুজাহিদুল ইসলামের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে।


    বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে স্থানীয় সন্ত্রাসী তন্ময়-উদ-দৌলা ধারালো অস্ত্রসহ এই হামলা করে। আহত সাংবাদিক মুজাহিদুল ইসলাম নাঈমকে আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন আছেন। তন্ময়ের বাড়ি আলফাডাঙ্গা সদরে। তার বাবার নাম অদর-উদ-দৌলা।

    ajkerograbani.com

    আলফাডাঙ্গা অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম জানান, দুপুর দুইটার দিকে তিনি আলফাডাঙ্গা বাজারের কলেজ রোড দিয়ে যাচ্ছিলেন। তার হাতে সাপ্তাহিক এই সময় পত্রিকার বেশকিছু কপি ছিল। তিনি একটি পত্রিকা দেয়া জন্য স্থানীয় ঐশী স্টুডিওতে যান। এর কিছু সময় পর সন্ত্রাসী তন্ময় একটি মোটরসাইকেলে করে এসে স্টুডিওতে ঢোকে। এসময় তার হাতে ধারালো চাকু, হকিস্টিক ছিল। স্টুডিওতে ঢুকে সে মুজাহিদকে লাথি মেরে ফেলে দেয়। হঠাৎ তার এই চড়াও হওয়ার কোনো কারণ না দেখে মুজাহিদ জানতে চান, তার অপরাধ কী?

    তন্ময় তখন হকিস্টিকের বাঁকানো অংশ দিয়ে ঘাঁড়ে আঘাত করে বলে, তুই আমাকে টাকা দিস না কেন? জবাবে মুজাহিদ বলেন, ‘কীসের টাকা?’

    জবাবে তন্ময় বলে, ‘কীসের টাকা জানোস না? এই এলাকায় চলাফেরা করস আর কীসের টাকা জানোস না? এই এলাকায় চলতে হইলে আমাকে বখরা দিতে হয় এটা তুই জানোস না?’

    জবাবে মুজাহিদ বলে, ‘আমি টাকা কোথায় পাবো?’ তন্ময় তখন আরও চড়াও হয়। বলে, ‘মুখে মুখে কথা বলস। আজ তোকে খুন করে ফেলবো।’ এসময় সে হাতের ধারালো চাকু দিয়ে মুজাহিদকে আঘাত করে। আঘাতটি মুজাহিদের জিনসের প্যান্টে লেগে ফসকে যায়।

    এ পর্যায়ে সন্ত্রাসী তন্ময় মুজাহিদের গলা থেকে আইডি কার্ড, পকেট থেকে আনুমানিক ১৩ হাজার টাকা এবং সাপ্তাহিক এই সময় পত্রিকার বেশকিছু কপি কেড়ে নিয়ে মুজাহিদের শার্টের কলারে ধরে টেনেহিঁচড়ে স্টুডিও থেকে রাস্তায় নিয়ে আসে। এসময় তন্ময় হকিস্টিক দিয়ে মুজাহিদের মাথায়, বুকে, পিঠে, পেটে, হাতে-পায়ে এবং ঘাড়ে এলোপাথাড়ি পেটাতে থাকে। এক পর্যায়ে হাত থেকে হকিস্টিক পরে গেলে হাত দিয়েই এলোপাথাড়ি কিলঘুষি মারতে থাকে। মুজাহিদের চিৎকারে বাজারে স্থানীয়রা জড়ো হয়ে তন্ময়কে ঠেকানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। কেউ সন্ত্রাসী তন্ময়কে ফেরাতে গেলে তন্ময় তার দিকে চাকু তাক করে ভয় দেখায়।

    পেটানোর এক পর্যায়ে হাতের চাকু দেখিয়ে তন্ময় বলে, ‘তুই আমার মুখে মুখে তর্ক করিস? জানস তোর মতো সাংবাদিককে কেটে টুকরা টুকরা করে নদীতে ফেলে দিলে কেউ কিছু বলতে পারবে না? দেখতে চাস দেখ। আজকে তোকে এইখানে খুন করে নদীতে ফেলে দেবো। দেখি তোর কোন বাপ এসে বাঁচায়। তোদের মতো সাংবাদিক না মারলে দেশে শান্তি আসবো না।’ এই কথা বলে হকিস্টিক ও চাকুর বাট দিয়ে মুজাহিদের মাথা, বুকে বেধরক পেটাতে থাকে তন্ময়। পেটানোর এক পর্যায়ে মুজাহিদ জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

    স্থানীয়রা জানান, সন্ত্রাসী তন্ময় অহেতুক সাংবাদিক মুজাহিদের ওপর হামলা করেছে। সে বারবার বলতে ছিল তোর মতো সাংবাদিককে আজ মেরে নদী ফেলে দেবো। দেখি তোর কোন বাপ এসে বাঁচায়। তোগো মতো সাংবাদিক না মারলে এই দেশে শান্তি আসবো না। কেউ ফেরাতে গেলে তাকেও চাকু দিয়ে ভয় দেখিয়ে দূরে সরিয়ে দিয়েছে। এক পর্যায়ে মুজাহিদকে পিটিয়ে অজ্ঞান করে রাস্তায় ফেলে রেখে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা ধরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

    এ ব্যাপারে ফরিদপুর জেলার পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র সাহা বলেন, ‘সাংবাদিকদের ওপর এমন সন্ত্রাসী হামলা নেক্কারজনক। এ ঘটনায় মামলা হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

    জানতে চাইলে আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজমুল করিম বলেন, ‘আমি ঘটনা শুনেছি। আহত সাংবাদিক মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে শুনেছি। মামলার অভিযোগের ভিত্তিতে আসামির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

    ঢাকাটাইমস২৪ ডটকম প্রতিনিধির ওপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে স্থানীয় সাংবাদিকরা। তারা অবিলম্বে সন্ত্রাসী তন্ময়কে গ্রেপ্তার করে শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757