• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    উন্নয়ন ও পরিবেশের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখা জরুরি : স্পিকার

    অনলাইন ডেস্ক | ০৯ মে ২০১৭ | ৮:৩৩ অপরাহ্ণ

    উন্নয়ন ও পরিবেশের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখা জরুরি : স্পিকার

    জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, জনগণকে নিরাপদ সেবা প্রদানের লক্ষ্যে উন্নয়ন ও পরিবেশের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখা অতীব জরুরি। আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) আয়োজিত ‘পানির অধিকার : পরিবেশ আইনের জন্য একটি নয়া প্রেক্ষিত’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।


    স্পিকার বলেন, রাষ্ট্রের তিনটি স্তম্ভ- আইন সভা, নির্বাহী বিভাগ ও বিচার বিভাগ সংবিধান অনুসারে সমন্বিত কার্যক্রম পরিচালনা করে জনগণের কল্যাণ সাধনের জন্য রাষ্ট্রকে সুসংহত রাখে। সে কারণে জনগণকে নিরাপদ সেবা প্রদানের লক্ষ্যে উন্নয়ন ও পরিবেশের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখা অতীব জরুরি। তাহলেই কেবল দেশের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত হবে।

    ajkerograbani.com

    তিনি বলেন, জনগণের জন্যই রাষ্ট্র্র। রাষ্ট্রের সংবিধান, আইন, রীতিনীতি সকল কিছুই জনগণের মঙ্গলের জন্য। বাংলাদেশের সংবিধানে জনগণের মৌলিক অধিকার-অন্ন, বস্ত্র, চিকিৎসা, শিক্ষা ও বাসস্থান এ সকল অধিকার সুরক্ষার বিষয়ে সুষ্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে। এ সকল অধিকার জনগণের বেঁচে থাকার জন্য। বেঁচে থাকার অধিকারের মাঝে নিহিত আছে পানির অধিকার। রাষ্ট্র অবশ্যই জনগণের জন্য নিরাপদ পানি নিশ্চিত করতে বিদ্যমান আইন অনুসরণ করবে এবং প্রয়োজনে নতুন নীতি ও আইন প্রণয়ন করে জনগণের পানির অধিকার সুরক্ষিত করবে।

    শিরীন শারমিন বলেন, পানি মানুষের বেঁচে থাকার জন্য অপরিহার্য উপাদান। সুপেয় পানি জনগণের মাঝে সরবরাহ করা সরকারের অন্যতম প্রধান দায়িত্ব। একই সাথে পানি দূষণরোধ করে সুপেয় পানি নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সরকার জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে বাধ্য। এক্ষেত্রে বিদ্যমান আইন সঠিকভাবে অনুসরণ হচ্ছে কিনা এবং উন্নয়নের ক্ষেত্রে পরিবেশ ভারসাম্য হারাচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

    স্পিকার বলেন, জনগণের পানির অধিকার সুরক্ষা করতে সরকারের বাজেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কেননা বাজেটে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ নিশ্চিত করলে বৃহৎ আকারে পানি সেবা তৃণমূল পর্যায়ে জনগণের কাছে পৌঁছে দেওয়া সম্ভব।

    এ সময় তিনি বলেন, বিভিন্ন আকারে শিল্প স্থাপন এবং দেশের অবকাঠামোগত উন্নয়নের ক্ষেত্রেও পানির বিষয়টি প্রাধান্য দিতে হবে। কেননা উন্নয়ন যেমন জরুরি তেমনি শিল্প স্থাপনের কারণে নদীর পানি বা কোন অবকাঠামোগত উন্নয়নের ক্ষেত্রে যেন নদী ভরাট না হয় সে বিষয়ে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

    ভারতের পাহাড়ী এলাকার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, সেখানে রাস্তার অধিকার জনগণের বেঁচে থাকার অধিকারের অন্যতম অংশ, যাতে করে জনগণ পাহাড়ী এলাকায় নির্বিঘ্নে যাতায়াত করতে পারে। সৃজনশীল কাজে আত্মনিয়োগ করে জনগণের কল্যাণের জন্য কাজ করে গেলে যে কোনো সমস্যা সহজেই সমাধান সম্ভব।

    জনকল্যাণমূলক রাষ্ট্র গড়তে তিনি সকলকে আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

    লে. কর্ণেল (অব) রবিউল আলমের সঞ্চালনায় সেমিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ এনভারন্মেন্টাল ল’ইয়ারস এসোসিয়েশন (বেলা) এর প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান। সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বিইউপির ভাইস চ্যান্সেলর মে. জে. মোঃ সালাহউদ্দীন মিয়াজী, আরসিডিএস, পিএসসি।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757