• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    উপকূলীয় অঞ্চল অতিক্রম করছে নিম্নচাপ

    | ২৩ অক্টোবর ২০২০ | ৯:২৭ অপরাহ্ণ

    উপকূলীয় অঞ্চল অতিক্রম করছে নিম্নচাপ

    বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি গভীর নিম্নচাপ বর্তমানে খুলনা অতিক্রম করে ফরিদপুর অঞ্চলে অবস্থান করছে। এটি কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং সিলেট হয়ে ভারতের দিকে অগ্রসর হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।


    আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান খান বলেন, উপকূলীয় অঞ্চলে ২ নম্বর এবং ৪টি সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। গভীর নিম্নচাপের কারণে উপকূলীয় অঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এতে উপকূলীয় নদী বন্দরে স্বভাবিকের চেয়ে তিন থেকে পাঁচ ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা রয়েছে।


    আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, রংপুর ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হচ্ছে।

    সতর্কবার্তায় বলা হয়, নিম্নচাপের কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের গতিবেগ একটানা ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার যা দমকা বা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। নিম্নচাপের কেন্দ্রের কাছে সাগর উত্তাল রয়েছে। এ কারণে দেশের চার সমুদ্রবন্দর চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রাকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার ট্রলার ও নৌকাগুলোকে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা হয়েছে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে। সেইসঙ্গে গভীর সাগরে বিচরণ করতে নিষেধ করা হয়েছে।

    গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলা, বরিশাল, লক্ষীপুর, চাঁদপুর, ফেনী, নোয়াখালী ও চট্টগ্রাম অঞ্চলসহ তাদের আশেপাশের দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চলে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে তিন থেকে পাঁচ ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস হতে পারে।

    রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারিপুর, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, ককক্সবাজার ও সিলেট অঞ্চলের ওউপর দিয়ে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব দিকে থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে ২ নম্বর নৌহুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

    গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে বরিশাল বিভাগের খেপুপাড়ায় ২৫৪ মিলিমিটার। এছাড়া ঢাকা বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে মাদারিপুরে ৫৪, ময়মনসিংহ বিভাগের মধ্যে নেত্রকোনায় ২২, চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যে হাতিয়ায় ১৮৯, সিলেটে শ্রীমঙ্গলে ২৪, রাজশাহী বিভাগের মধ্যে ঈশ্বরদিতে ৩৬, রংপুর বিভাগে সামান্য এবং খুলনা বিভাগের মধ্যে মোংলায় ৯৯ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673