বুধবার ২০শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এক গাছে ১২১ প্রজাতির আম, আম গাছের বিশ্বরেকর্ড

  |   শুক্রবার, ০২ জুলাই ২০২১ | প্রিন্ট  

এক গাছে ১২১ প্রজাতির আম, আম গাছের বিশ্বরেকর্ড

এক গাছে হাজার হাজার আম হতেই পারে। তবে সেগুলো এক প্রজাতির হওয়াই স্বাভাবিক। না এক প্রজাতির নয়, এক গাছেই ঝুলছে ১২১ প্রজাতির আম। এই সংবাদ খানিকটা অবাক করলেও শতভাগ সত্যি। এই জদুর গাছ দেখতে প্রতিদিনই ভিড় করছেন আমপ্রেমীরা।
বিজ্ঞানের আশীর্বাদ ছুঁয়েছে সব জায়গাতেই। এবার সেই সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রয়েছে কৃষিতেও। আগেকার মতো এখন শুধু প্রকৃতির উপর নির্ভর করে নয়, প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষি ও কৃষকের ভাগ্য বদল হচ্ছে। এক বার ভেবে দেখুন তো যে একই গাছের একটি ডালে ল্যাংরা ঝুলছে, সেই গাছেরই আবার অন্য ডালে ঝুলে রয়েছে আম্রপালি। আম্রপালি থেকে চোখ সরতেই হয়তো দেখতে পাবেন পাতার ফাঁকে উঁকি মারছে ফজলি!
এই বিরল দৃশ্য দেখতে হলে যেতে হবে উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুরে। সাহারানপুর জেলার কোম্পানি বাগ অঞ্চলে রয়েছে হর্টিকালচার অ্যান্ড স্টাডিং হার্ট। এখানে গাছপালা নিয়ে নানা ধরনের গবেষণা চলে। এই গবেষণা কেন্দ্রই সম্প্রতি একটি গাছে ১২১ প্রজাতির আম ফলেছে। এই বিশেষ আম গাছের পরিচর্যার জন্য প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত লোক রাখা হয়েছে।
পুরোটাই সম্ভব হয়েছে গ্রাফ্টিংয়ের দ্বারা। বিভিন্ন প্রজাতির আমগাছের ডাল ওই গাছটির ডালের সঙ্গে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে জুড়ে দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীকালে সেগুলো থেকেই আলাদা প্রজাতির আম ফলেছে। উদ্ভিদের ক্ষেত্রে গ্রাফ্টিং খুবই সাধারণ প্রক্রিয়া। এর জন্য বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। সামান্য কিছু শিক্ষা থাকলেই নিজের বাড়িতে যে কোনো দু’টি আলাদা গাছের ডালের মধ্যে গ্রাফ্টিং করা যায়।
 
সাহারানপুর জেলার কোম্পানি বাগ অঞ্চলে রয়েছে হর্টিকালচার অ্যান্ড স্টাডিং হার্ট
তবে শুনতে যতটা সহজ মনে হচ্ছে পুরো পদ্ধতিটি ততটাও সহজ ছিল না গবেষকদের কাছে। গ্রাফ্টিং এর সাফল্য মেলে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে। তবে সেটা একটি কিংবা দুটি পর্যন্ত গ্রাফ্টিং করা হয়। কিন্তু সেই জায়গায় ১২১ টি আলাদা প্রজাতির গাছের ডাল একটি গাছের সঙ্গে জোড়া লাগানো মোটেই সহজ ছিল না। গবেষণার ফল পেতে ১৫ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে গবেষকদের। গবেষণা এখনও চলছে। আরও উন্নত প্রজাতির আম কী ভাবে পাওয়া যায় তার চেষ্টা করছেন গবেষকরা।
কী কী আম ফলেছে এই গাছে?
দশেরি, ল্যাংরা, চৌসা, রামকেলা, আম্রপলি, সাহারানপুর সৌরভ, সাহারানপুর গৌরব, সাহারানপুর অরুণ, সাহারানপুর বরুণ, সাহারানপুর রাজীবের মতো আম তো রয়েছে। এ ছাড়া লখনউ সফেদা, টমি অ্যাট কিংস, পুসা সৌর, সেনসেশন, রাতাউল, কলমি মালদা ম্যাঙ্গো, বোম্বে, স্মিথ, ম্যাগনিফেরা জালোনি, গোলা বুলন্দশহর, লারাঙ্কু, এলআর স্পেশাল, আলামপুর বেনিশা, আসোজিয়া দেওব্যান্ডের মতো আমও ফলে রয়েছে ওই গাছেই।

Facebook Comments Box


Posted ৪:৪৯ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ০২ জুলাই ২০২১

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১