• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    এক মুরগি বারবার জবাই করার পদ্ধতি বাদ দিন : ফারুকী

    অনলাইন ডেস্ক | ১০ জুলাই ২০১৭ | ২:১৪ অপরাহ্ণ

    এক মুরগি বারবার জবাই করার পদ্ধতি বাদ দিন : ফারুকী

    যৌথ প্রযোজনার নতুন নীতিমালা না হওয়া পর্যন্ত সিনেমা নির্মাণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত দিয়েছে সরকার। চলচ্চিত্র ঐক্যজোটের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের পর রোববার (৯ জুলাই) এ সিদ্ধান্ত নেয় তথ্য মন্ত্রণালয়। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেছেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।
    তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো:


    ‘তথ্য মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ, ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র নীতিমালা মূল্যায়ন ও সংশোধন সুপারিশে নতুন কমিটি তৈরি করার জন্য। আরো ধন্যবাদ জানাই এই কাজের জন্য যোগ্য ব্যক্তিটিকে কমিটির প্রধান করায়। হারুন ভাইয়ের জ্ঞান এবং প্রজ্ঞা আমাদেরকে একটা সময়োপযোগী নীতিমালা দেবে, এই বিষয়ে আমার পূর্ণ বিশ্বাস আছে। পরে কখনো হারুন ভাইয়ের সঙ্গে কথা হলে বিস্তারিত বলবো।

    ajkerograbani.com

    তবে এই ফাঁকে কয়টা কথা বলে রাখি- কয় সপ্তাহ আগে যখন কলকাতায় গেলাম তখন বেশ কিছু পত্রিকায় দীর্ঘ সাক্ষাৎকার দিতে হয়েছিল। সেখানে এই কথাগুলো বলেছি। বাংলাদেশ আর ভারতের মধ্যে সত্যিকার যৌথ প্রযোজনা দুই দেশের জন্যই লাভজনক হবে যদি দুই দেশের অংশগ্রহণে ভারসাম্য থাকে।

    এখন সেই ভারসাম্য মানে কিন্তু এক ছবিতে দুই দেশের দুই পরিচালক থাকা না। দয়া করে এই অদ্ভুত বাধ্যতামূলক ব্যাপার পরিহার করেন। এর কারণেই এই দেশের প্রযোজকের নাম পরিচালক হিসেবে দেখা যায়। বরং নীতিমালায় এমন ফিল্টার তৈরি করেন যাতে এটা নিশ্চিত করা যায় যে, বছরে দশটা যৌথ প্রযোজনার ছবি হলে ন্যূনতম পাঁচটার গল্প, পরিচালক, এবং লোকেশন যেন এই দেশের হয়। শিল্পীদের ক্ষেত্রেও ভারসাম্য আনেন।

    এতে যেটা হবে, ঢাকা বা কলকাতা কোথাও অসন্তোষ তৈরি হবে না। কেউ ভাববে না, আমাদেরকে কেবল ভোক্তা বানানো হচ্ছে। তখনই কেবল এটা কাজে আসবে। না হলে এটা দীর্ঘ মেয়াদে ফলপ্রসূ হবে না। এমনকি এটার জন্য অনাকাঙ্খিত রাজনৈতিক মূল্য দিতে হবে।

    আর এই সাফটা চুক্তির আওতায় ছবি বিনিময় জিনিসটা পুরোপুরি নিরুৎসাহিত করা উচিত। এটা অনিয়ম এবং ফাঁকিবাজির সুযোগ তৈরি করে এবং আখেরে যা দুই দেশের সম্পর্কে বাজে চাপ ফেলবে। এটাকে নিরুৎসাহিত করে যৌথ প্রযোজনাকে উৎসাহিত করেন।

    আরেকটা কথা, এখন যৌথ প্রযোজনার ছবিকে দুইবার নিরীক্ষণের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। একটা কমিটি স্ক্রিপ্ট পড়ে অনুমোদন দেয়। তারপর ছবি তৈরি হলে সেই কমিটি ছবি দেখে অনুমোদন দেয়। তারপর সেটা আবার সেন্সর বোর্ড দেখে।
    এক মুরগি বারবার জবাই করার এই ক্লান্তিকর পদ্ধতি বাদ দিয়ে সহজ এবং যথাযথ পরীক্ষণের পদ্ধতি বের করুন, দয়া করে।
    আপনাদের স্বাগত। সবাই আশা নিয়ে তাকিয়ে আছে যাতে নিয়ম-নীতির মধ্যে সুন্দরভাবে ছবিগুলো তৈরি হয়।’

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755