• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    এসি ছাড়াই ঘর ঠান্ডা রাখার উপায়

    অনলাইন ডেস্ক | ২৮ মার্চ ২০১৭ | ৫:০৩ অপরাহ্ণ

    এসি ছাড়াই ঘর ঠান্ডা রাখার উপায়

    গরম থেকে বাঁচতে এখন এসি-র চল। কিন্তু, নানা কারণে অনেকে এসি-র দ্বারস্থ হতে পারেন না। তাই এমন কিছু পদ্ধতি আছে, যা বাড়ির অন্দরমহলকে করে দেবে ঠান্ডা-ঠান্ডা কুল কুল।


    ১. টেবিল ফ্যানের সামনে বাটিভর্তি বরফ রাখুন। এটা অত্যন্ত সহজ পদ্ধতি। এতে বরফে লেগে ফ্যানের হাওয়া আরও ঠান্ডা হবে এবং সেই ঠান্ডা বাতাস ঘরে ছড়িয়ে যাবে।


    ২. ঘরে ক্রস ভেন্টিলেশন রাখুন। মানে যে দিকের দরজা বা জানলা খুলবেন, তার বিপরীতের দরজা এবং জানলা খুলে রাখুন। এতে ঠান্ডা বাতাস ঘরে প্রবেশ করবে এবং বিপরীত দিক দিয়ে গরম বাতাসকে বের করে দেবে।

    ৩. ঘর থেকে অপ্রয়োজনীয় জিনিস সরিয়ে ফেলুন। নজর রাখুন, ঘরে যেন খবরের কাগজ স্তূপাকৃত ভাবে না থাকে। সিল্কের জিনিসপত্র সরিয়ে ফেলুন। মেঝেতে উলের কার্পেট পাতা থাকলে তুলে ফেলুন। কাচের পাত্রে বা পাথরের থালা অথবা বাটিতে জল ঢালুন। জল ভর্তি পাত্রে কিছু পাথর রাখুন। কিছু ফুল দিয়ে দিন। এবার যে দরজা বা জানলা দিয়ে সবচেয়ে বেশি হাওয়া আসে, তার সামনে রেখে দিন।

    ৪. ঘরে অযথা লাইট জ্বালিয়ে রাখবেন না। যত অত্যাধুনিক বৈদ্যুতিক ল্যাম্পই জ্বালান না কেন, অপ্রয়োজনে জ্বালিয়ে রাখবেন না। ল্যাম্পের আলো ঘরের বাতাসকে গরম করে তোলে। পারলে ঘরে কম পাওয়ারের আলো লাগান।

    ৫. চাল ভর্তি বালিশ তৈরি করুন। চাল খুব ঠান্ডা থাকে। তাই গরমকালে চালের তৈরি বালিশ মাথায় দিতে পারেন। এতে চোখে-মুখে ঠান্ডার সতেজতা পাবেন। বালিশে চাল ভরার আগে এর মধ্যে কিছু নিমপাতা মিশিয়ে দিন। এতে চালে পোকা হবে না।

    ৬. ঘরে পারলে অর্কিড জাতীয় গাছ রাখুন। গাছ ঘরের মধ্যে থাকা গরম বাতাস থেকে কার্বনডাই-অক্সাইড সংগ্রহ করে সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া চালু রাখে। এতে ঘরের গরম বাতাস হাল্কা হয় এবং তাতে প্রচুর পরিমাণে জলকণা সঞ্চিত হয়। ফলে, ঘরে ঠান্ডা থাকে।

    ৭. ইলেক্ট্রিক প্লাগ অন রাখবেন না। প্লাগে কোনও গ্যাজেট গুঁজে রাখলে তার কাজ শেষ হতেই সুইচ বন্ধ করে দিন এবং ইলেক্ট্রনিক গ্যাজেটকে প্লাগ থেকে খুলে নিন।

    ৮. বারান্দায় বা জানলায় খসখস অথবা বাঁশের পর্দা ব্যবহার করুন। এতে জল দিয়ে দিন। এমন ঠান্ডা অনুভব করবেন যে, এসি-র কথা ভুলে যাবেন।

    ৯. ইকো কুলারের সাহায্য নিতে পারে। একটি প্লাইউডে ছোট ছোট গর্ত করে তাঁর মধ্যে প্লাস্টিক বোতল গুঁজে দিন। এর আগে প্লাস্টিকের বোতলগুলিকে মাঝখান থেকে কেটে নিতে হবে। বোতলের উপরের দিকের অংশ কাজ লাগবে। বোতলের ছিপিতে ছিদ্র করে দিন। এরপর অর্ধেক কাটা বোতলগুলিকে প্লাইউডে করা গর্তগুলিতে জুড়ে দিন। জানলার সঙ্গে প্লাইউডকে সাঁটিয়ে দিন। বোতলের মধ্যে থাকা গরম হাওয়া ছিপির ছোট ছিদ্র দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করবে। কিন্তু, ঠান্ডা হাওয়া হালকা হওয়ায় আগে ঘরে প্রবেশ করবে।

    ১০. একটা ব্র্যাকেটে বা ঝুড়িতে টবে লাগানো গাছ দিয়ে ভর্তি করুন এবং দরজা বা জানলার সামনে রেখে দিন।

    ১১. ছাদের রঙ সাদা করে ফেলুন। দেখবেন, গরম অনেকটা কমে গিয়েছে।

    ১২. শোয়ার সময়ে গায়ের ঢাকা হিসাবে হালকা ভেজা কাপড় ব্যবহার করুন। এই কাপড় তাড়াতাড়ি শুকোবে এবং শরীরকেও ঠান্ডা রাখবে।

    ১৩. বাড়িতে একটু ঠান্ডা বডিলোশন বানিয়ে নিন। বডি স্প্রে-কে ফ্রিজে রেখে দিন। শুতে যাওয়ার সময় একটু মেখে নিন। অথবা ওডিকোলনের সঙ্গে ময়শ্চারাইজার মিশিয়ে নিন। এবার শুতে যাওয়ার আগে মেখে নিন। ঠান্ডা অনুভূতিতে চোখ বুজে যাবে।

    ১৪. গরকমকালে যতটা পারবেন, ততই চেষ্টা করুন ঠান্ডা ফল খেতে। প্রচুর পরিমাণ জল খান। ঠান্ডা লিকার চা-এর মধ্যে একটু বরফ, লেবু এবং কারি পাতা মিশিয়ে নিন। এরপর তা মাঝে মাঝে পান করুন। পারলে রোজ তরমুজ খান। কোল্ড কফিও ট্রাই করতে পারেন।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিয়ে করাই তার নেশা!

    ২১ জুলাই ২০১৭

    কে এই নারী, তার বাবা কে?

    ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669