• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ওয়ান ইলেভেনে গোপালগঞ্জের মুকুল বোসসহ সংস্কারপন্থী ছিলেন যারা

    ডেস্ক | ১১ জানুয়ারি ২০২০ | ১১:৫৭ অপরাহ্ণ

    ওয়ান ইলেভেনে গোপালগঞ্জের মুকুল বোসসহ সংস্কারপন্থী ছিলেন যারা

    ওয়ান ইলেভেনে যেমন মানুষ গণতন্ত্রের জন্য কাজ করেছে, সংগ্রাম করেছে, ঠিক তেমনিভাবে ওয়ান ইলেভেনে অনেকে ছিলেন সংস্কারপন্থী। যারা সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাথে হাত মিলিয়েছে এবং গণতন্ত্রকে বিপথে পরিচালনা করার জন্য ষড়যন্ত্রে অংশীদার হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এদের কেউ কেউ প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে বাদ দেবার জন্য কাজও করেছেন। এদের মধ্যে অনেকেই রাজনীতি থেকে ছিটকে পড়ে গেছেন, কেউ কেউ গুরুত্বহীন হয়ে রাজনীতিতে রয়েছেন। এদের কয়েকজনকে নিয়ে এই প্রতিবেদন।

    মুকুল বোস


    আওয়ামী লীগের সেসময় যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন মুকুল বোস। মুকুল বোস দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে প্রকাশ্যে শেখ হাসিনার সমালোচনা করেছিলেন এবং তিনি শেখ হাসিনাকে সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেবার কথা প্রকাশ্যেই বলতেন। অবশ্য শেখ হাসিনা গ্রেফতার হবার পর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে এধরণের অনভিপ্রেত মন্তব্যের কারণে তিনি সমালোচিত হন। পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের হাতে তিনি প্রহৃত হন, যেটা ছিল ওয়ান ইলেভেনের সময়ে একটি অন্যতম আলোচিত বিষয়।

    অধ্যাপক আবু সাইয়িদ

    অধ্যাপক আবু সাইয়িদ আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ নেতা ছিলেন। যিনি ওয়ান ইলেভেনে সংস্কারপন্থী ছিলেন এবং তার বাসভবনে ছিল ওয়ান ইলেভেনে সংস্কারপন্থীদের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু। ওয়ান ইলেভেনের পর তিনি রাজনীতি থেকে প্রায় ছিটকে পড়েন। তাকে ২০০৮ এর নির্বাচনে মনোনয়ন দেয়া হয়নি, ২০১৪ নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র নির্বাচন করে হেরে যান এবং গত নির্বাচনে তিনি গণফোরামে যোগ দিয়ে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করে পরাজিত হন।

    সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ

    সাবেক ডাকসু ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদও ছিলেন ওয়ান ইলেভেনের সময় অন্যতম সংস্কারপন্থী। তিনিও শেখ হাসিনাকে রাজনীতি থেকে বিদায় করতে চেয়েছিলেন। ২০০৮ এর নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পাননি। এরপর থেকে রাজনীতিতে প্রায় নিষ্ক্রিয় হয়ে যান। গত নির্বাচনে তিনি গণফোরামের জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করে মৌলভীবাজার থেকে বিজয়ী হন।

    মাহমুদুর রহমান মান্না

    মাহমুদুর রহমান মান্না আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। ওয়ান ইলেভেনের সময় তিনি ছিলেন সংস্কারপন্থী। সংস্কারপন্থী হবার কারণেই তিনি রাজনীতি থেকে ছিটকে পড়েন। ২০০৮ এর নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পাননি। এরপর তিনি নাগরিক ঐক্য নামে নতুন একটি মোচড়া গঠন করেন। যদিও জনসমর্থনহীন এই রাজনীতিবিদ এখন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ঝুলে বেঁচে আছে।

    সাবের হোসেন চৌধুরী

    সাবের হোসেন চৌধুরী ছিলেন শেখ হাসিনার রাজনৈতিক সচিব। ওয়ান ইলেভেনের সময় তিনি আদৌ শেখ হাসিনাকে মাইনাস করতে চেয়েছিলেন কিনা তা নিয়ে রহস্য রয়েছে। তবে যারা সংস্কারবিরোধী ছিলেন তারা মনে করেন যে সাবের হোসেন চৌধুরীর ভূমিকা ছিল রহস্যময়। একারণেই তিনি সংস্কারপন্থী হিসেবে পরিচিত। ওয়ান ইলেভেনের পর রাজনীতিতে তিনি প্রায় কোণঠাসা। সাবের হোসেন চৌধুরী সমালোচিত ওয়ান ইলেভেনে তার ভূমিকার কারণে।

    মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন

    মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন ওয়ান ইলেভেনের সময় অধ্যাপক আবু সাইয়িদের সঙ্গে থেকে সংস্কার প্রস্তাবের সমর্থক ছিলেন বলে জানা যায় এবং এরপর থেকে তিনি কোন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাননি। যদিও এবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে সদস্য হিসেবে মনোনীত হয়েছেন।

    আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসেন

    যদিও তিনি দাবি করেন তিনি সংস্কারপন্থী ছিলেন না কিন্তু তারপরেও ওয়ান ইলেভেনের সময় তার ভূমিকা নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলেছিল এবং তিনি সংস্কারপন্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে চিহ্নিত হন।

    এরা ছাড়াও আওয়ামী লীগে বেশ কিছু নেতা আছেন যারা দলের সংস্কার চেয়েছিলেন, যারা শেখ হাসিনাকে সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দিতে চেয়েছিলেন এবং সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে দীর্ঘমেয়াদী করার পক্ষে সমর্থন জুগিয়েছিলেন। কিন্তু ইতিহাস বড়ই নির্মম। ওয়ান ইলেভেন ব্যর্থ হয় জনআকাঙ্ক্ষার প্রেক্ষাপটে। জনগণের দাবির মুখে শেষ পর্যন্ত ওয়ান ইলেভেন সরকার বাধ্য হয় নির্বাচন দিতে, তখন এই সংস্কারপন্থীরা দলে কোণঠাসা হয়ে পড়েন।

    শেখ হাসিনা এক বক্তৃতায় বলেছিলেন, ওয়ান ইলেভেনে যারা দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিল, তাদেরকে তিনি ক্ষমা করে দিয়েছেন। তবে তিনি ভুলে যাননি এবং তাঁর এই বক্তব্য যে তাঁর রাজনীতিতে সবসময় দৃশ্যমান হয় তা বলাই বাহুল্য।

    Comments

    comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী