• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    কখনো কি ফিরবেন তাঁরা?

    আজকের অগ্রবাণী ডেস্ক | ০৬ অক্টোবর ২০১৮ | ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ

    কখনো কি ফিরবেন তাঁরা?

    বাংলাদেশ ক্রিকেট এখন বিশ্ব ক্রিকেটে এক প্রতিষ্ঠিত শক্তির নাম। এশিয়ার মধ্যে অন্যতম পরাশক্তি এখন বাংলাদেশ। এই উন্নতির শিখরে ওঠার পেছনে অনেক ক্রিকেটারের পরিশ্রম জড়িত। এদের কেউ এখনও খেলে যাচ্ছেন জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়িয়ে, আবার কেউ হারিয়ে গেছেন কালের গহ্বরে। অথচ এদের কারও অভিষেক হয়েছিল স্বপ্নের মত। কিন্তু কোনো এক ঝড়ে কোথায় যেন হারালেন তাঁরা। হারিয়ে গেলেও তাঁদের এখনো মনে রেখেছে টাইগার সমর্থকরা। তাঁদের মনে প্রশ্ন কখনও কি জাতীয় দলে ফিরবেন এই বাংলাদেশ ক্রিকেটের হারিয়ে যাওয়া নক্ষত্ররা? আজ শোনাবো এমনই পাঁচ হারিয়ে যাওয়া ক্রিকেটারের গল্প।


    ইলিয়াস সানি


    স্বপ্নের মত এসেছিলেন ক্রিকেটে। মনে পরে সেই ১১ অক্টোবর এর কথা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং লাইন আপ একাই গুড়িয়ে দিয়েছিলেন ১ম ইনিংসে। টি-টুয়েন্টিতে ৫ উইকেট নিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন অজন্থা মেন্ডিসের মতোই। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে ভুলে যেতে শুরু করেছে সবাই। বাজে পারফর্ম্যান্সের কারণে দল থেকে ছিটকে যান তিনি। ঘরোয়া লিগে দারুণ পারফর্ম করলেও বিপিএলের মতো আসরে তাঁকে কেউ দলে নেয় না।

    জুবায়ের হোসেন লিখন

    বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য লেগস্পিন এক হতাশার নাম। এতবছরেও আমরা একজন লেগস্পিনার তৈরি করতে পারনি। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তান দলেও রয়েছে বিশ্বমানের লেগস্পিনার। সেখানে আমাদের কেউ নেই। হাথুরুসিংহের সময় লিখনকে দিয়ে পুরো জাতি স্বপ্ন দেখেছিল লেগস্পিনে বাংলাদেশের আক্ষেপ ঘোচানোর। অনেকেই ভাবতে শুরু করে বাংলাদেশের লেগ স্পিনের সমস্যা তাহলে দূর হচ্ছে। কিন্তু না। শুরুটা ভাল হলেও হারিয়ে ফেলেছেন নিজেকে। শুরুতে নিজের খামখেয়ালীর কারণে দল থেকে ছিটকে পড়েন। এবারের ঘরোয়া লিগে যদিও দারুণ শুরু করেছেন তিনি। ঘরোয়া লিগে ৬১ রানে ৫ উইকেট নিয়ে নিজের পুরনো রুপে ফেরার ইঙ্গিত দিচ্ছেন। তবে ফেরার পথটা যে বেশ লম্বা!

    সোহাগ গাজী

    নিউজিল্যান্ড এর বিপক্ষে প্রথম সেঞ্চুরির সঙ্গে হ্যাটট্রিক করে সারা বিশ্বে জানান দিয়েছিলেন নিজের আগমনের কথা। ওই ম্যাচে করেছিলেন সেঞ্চুরি ও হ্যাট্রিক করার মতো বিশ্বরেকর্ড। কিন্তু বাংলাদেশের সুখের সময় কালো মেঘের আগমন ঘটলো। বোলিং অ্যাকশনের ত্রুটি ধরা পড়ল। সেই যে গেলেন আর ফিরলেন না। জাতীয় দলে ঢোকার মতো আহামরি পারফরম্যান্সও করছেন না তিনি। তিনি অচিরেই হয়তো হারিয়ে যাবেন।

    রবিউল ইসলাম

    শিপলু নামে পরিচিত বাংলাদেশি পেসার এক সময় বেশ আলোচনায় এসেছিলেন। ২০১৩ সালের এপ্রিলে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে টেস্ট সিরিজে নিজের প্রতিভার ঝলক দেখান। ২ টেস্টে ১৫ উইকেটের পাশাপাশি ব্যাট হাতেও উজ্জ্বল ছিলেন। তবে নিজের প্রতিভার বিকাশ না ঘটাতে পেরে হারিয়ে গেছেন অচিরেই।

    জুনায়েদ সিদ্দিকী

    টি-টুয়েন্টিতে অভিষেকে ম্যাচেই খেলেছিলেন ৭১ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। টেস্ট অভিষেকের ২য় ইনিংস এ তামিমের সঙ্গে করেছেন ১৬১ রানের ওপেনিং জুটি। ডেবুট্যান্ট পার্টনারশিপে যা ছিল ক্রিকেটের ২য় সর্বোচ্চ জুটি। কিন্তু ধীরে ধীরে হারিয়ে গেছেন তিনিও। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড তাঁকে বেশ কয়েকবার সুযোগও দিয়েছে তাঁকে। কিন্তু সুযোগকে কাজে লাগাতে না পেরে ধীরে ধীরে হারিয়ে গেছেন তিনিও।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669