• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    কদর কমছে কুতিনহোর!

    ডেস্ক | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ

    কদর কমছে কুতিনহোর!

    অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে লিভারপুল থেকে বার্সেলোনায় যোগ দেন ফিলিপে কুতিনহো। শুরুতে জ্বলে উঠলেও তা বেশি সময় স্থায়ী থাকেনি। যতই দিন যাচ্ছে গুরুত্ব হারাচ্ছেন ব্রাজিলিয়ান এই তারকা। শেষ দিকে এল ক্লাসিকো সহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আলো ছড়াতে ব্যর্থ হন তিনি। ফলে দলে ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে তাঁর চাহিদা। অন্যদিকে সুযোগ পেলেই জ্বলে ওঠেন ওসমানে ডাম্বলে। তাই তো মার্কাসহ স্প্যানিশ প্রভাবশালী বেশ কিছু গণমাধ্যমের দাবি, বার্সাতে কুতিনহোর চেয়ে বেশী কদর পাচ্ছেন ডাম্বলে। আবার কেউ কেউ একধাপ এগিয়ে বলছে চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই ব্রাজিলিয়ান তারকাকে ছেড়ে দিতে পারে বার্সেলোনা।


    অথচ তিনবারের প্রচেষ্টায় লিভারপুল থেকে ফিলিপ কুতিনহোকে দলে ভেড়ায় বার্সা। এ জন্য খরচ করতে হয়েছে ক্লাব ইতিহাসের সর্বোচ্চ ট্রান্সফার ফি ১৬০ মিলিয়ন ইউরো। এতে দুই দলে বিভক্ত হয়ে পড়েন ফু্টবল বোদ্ধারা। এক দলের দাবি বার্সেলোনার ফুটবলের সঙ্গে মানানসই নন তিনি। আবার অন্য দল বলে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হতে যাচ্ছেন এই ব্রাজিলিয়ান।


    ইনিয়েস্তা দলের থাকায় গত মৌসুমে ৪-৪-২ ফরমেশন ব্যবহার করেন বার্সেলোনা কোচ আরনেস্তো ভালভার্দে। ডাম্বেলের ইনজুরি ও অফফর্মের কারণে লেফট উইং পজিশনে আলো ছড়ান কুতিনহো। ২২ ম্যাচে ১০ গোল করে জানান দেন নেইমারের অভাব পূরণ করতে যাচ্ছেন তিনি।

    কিন্তু চলতি মৌসুমের শুরুতে পড়েন ইনজুরিতে। সেখান থেকে শুরু হয় এই উঙ্গগারের পতন। ধীরে ধীরে তিনি নিজেকে হারিয়ে ফেরতে শুরু করেন। একাদশে ডাম্বেলেকে সুযোগ দেন বার্সা কোচ। নিরাশ করেনি ফরাসি উইঙ্গার। কিন্তু ইনজুরিতে পড়ে জায়গা হারান তিনি। সেই সুযোগে আবারো বার্সার প্রথম একাদশে সুযোগ পান কুতিনহো। বরাবরই হতাশ করে চলেছেন তিনি। শুধুমাত্র তাঁর কারণে সাম্প্রতিক সময়ের ম্যাচগুলোতে বাঁপাশ ছিল একেবারে নিষ্প্রভ।

    প্রতিপক্ষে কাছে বল হারানো ঘটনা অনেক। ঠিক মতো শট নিতে পারছেন না, ড্রিবলিং যেন ভুলেই গেছেন। তার চেয়ে বড় সমস্যা ভুল পাস দিচ্ছেন অহরহ। তাকে দেখলে মনে হয় ভুল পজিশনে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে।

    একটু ব্যাখ্যা করা যাক, লিভারপুলের কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ, তাঁর রণকৌশল সাঁজাতেন কুতিনহোকে কেন্দ্র করে। ৪-৩-৩ কিংবা ৪-২-৩-১ ফরমেশন যাই হোক ব্রাজিলিয়ান তারকা খেলতেন লেফট ‍উইং এবং লেফট মিডফিল্ডের মাঝামাঝি পজিশনে।

    খেলার শুরু থেকে তিনি থাকতেন প্লে মেকারের ভুমিকায়। মাঝে মাঝে ফলস নাইন স্টাইকার হিসেবেও জ্বলে ওঠেন কুতিনহো। তাঁর নিয়মিত গোল ও অ্যাসিস্টে আগ্রহী হয় বার্সেলোনা। রেকর্ড পরিমান অর্থ দিয়ে তাকে দলে নেয় বার্সা।

    নতুন মৌসুমে বার্সা ছাড়েন ইনিয়েস্তা। তাই ভালভার্দে শুরু করেন ৪-৩-৩ ফরমেশনে। কুতিনহোকে দায়িত্ব দেওয়া হয় লেফট উইং সামলানোর। সেখানেই বাঁধে ঝামেলা। বাঁ পাশ থেকে সরে এসে প্লে-মেকার হওয়ার দায়িত্ব পেলেন না। কারণ বার্সার হয়ে সেই দায়িত্ব অনেকদিন ধরে পালন করছেন লিওনেল মেসি। না পারছেন উঙ্গদার হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে, না পারছেন প্লে-মেকার হতে। এতে করে প্রভাব পড়ছে তাঁর পারফরম্যান্সে।

    তবে স্প্যানিশ গণমাধ্যম গুলো বাস্তবতার নিরিক্ষে বিশ্লেষণ করছে। তাদের দাবি, অনেকটা যুদ্ধ করে নিজের পজিশনেই ফিরে এসেছেন ডেম্বলে। আর মেসি থাকাকালিন প্লে-মেকারের ভুমিকা পাবেন না কুতিনহো। এজন্য বার্সা একাদশে তাঁর কোন জায়গা নেই। এভাবে চলতে থাকলে কুতিনহোর পতন নির্ধারিত মনে করছে অনেক ফুটবল বিশ্লেষক।

    তবে ক্লাবটির নাম বার্সেলোনা। ১৬০ মিলিয়ন ইউরো তারা এভাবে পানিতে ঢালতে পারে না। কুতিনহোর তো প্রতিভাবান একজন ফুটবলের জন্য নিশ্চিত কোন না কোন উপায় বের করবে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। অথবা পুরোপুরি উইঙ্গার হয়ে যাবেন কুতিনহো।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673