বৃহস্পতিবার ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

করোনার জন্য মানুষের সহায়তায় আমাল ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন উদ্যোগ

সিনিয়র রিপোর্টার   |   শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০ | প্রিন্ট  

করোনার জন্য মানুষের সহায়তায় আমাল ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন উদ্যোগ

মহামারী করোনাকে প্রতিহত করতে বিশেষজ্ঞদের একটাই পরামর্শ, “গনসমাগম থেকে দূরে থাকুন আর সঠিক পদ্ধতিতে হাত ধৌত করুন।” আমাল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে তাই কর্ম ব্যস্ত শহরের বিভিন্ন স্থানে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে, যেন পথচারীরা চলার পথে তাদের নিজেদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করতে পারেন। আমালের সেচ্ছাসেবী কর্মীদের থেকে তারা হাত ধোয়ার সঠিক পদ্ধতি এবং দিক নির্দেশনা হাতে কলমে জানতে পারছেন। এই উদ্যোগের সুফল সমাজের নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ ও গৃহহীন মানুষরাও পাবে। প্রথম ধাপে ধানমন্ডি ১৫ নম্বর বাস স্ট্যান্ড এবং মোহাম্মাদপুর এর রিকশা স্ট্যান্ড এ বেসিন এবং হ্যান্ড ওয়াশ এর ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিটি হাত ধোয়ার পয়েন্টে একজন করে সেচ্ছাসেবী কর্মী রয়েছেন সাহায্য করার জন্য। এই কার্যক্রম পরবর্তিতে নারায়নগঞ্জ সহ আরো বিভিন্ন স্থানে সম্প্রসারণের পরিকল্পনা রয়েছে আমাল ফাউন্ডেশনের।
মানুষ সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব কথাটা শুধু বইয়ের পাতায় নয় বরং তার কর্মের বাস্তবিক প্রয়োগ এর মাধ্যমে প্রকাশ পায়। একটি মহামারীর হাত থেকে আমরা যখন নিজেদের বাঁচাতে ঘরের দুয়ার বন্ধ করে লড়ে চলেছি, ঠিক তখনি আমাদের চারপাশের অগণিত অবলা প্রাণী যারা আমাদের উচ্ছিষ্ট খেয়ে বেঁচে থাকতো তাদের নিরীহ কান্নায় বাতাস ভারী হচ্ছে। এইসব অবলা প্রাণীর (কুকুর,বিড়াল সহ কাঁক) জন্য আমল ফাউন্ডেশনের একটি ক্ষুদ্র প্রয়াস। আমাল ফাউন্ডেশনের দশ জন স্বেচ্ছাসেবী ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে এই সেবায় নিয়জিত রয়েছেন।
করোনা মহামারীতে যেখানে একদল মানুষ তাদের প্রয়োজন এর বেশি খাদ্য কিনে মজুদ রাখতে সক্ষম হয়েছে, সেখানে সমাজের আর এক দল সামর্থহীন, দিন এনে দিন খাওয়া মানুষ রয়েছে , যারা তাদের নিজের ও নিজের পরিবারের খাদ্যের যোগান দিতে অক্ষম এবং খালি পেটে রাত্রি যাপন করছে। এই সকল অবহেলিত, দুস্থ মানুষদের মাঝে সাহায্যের হাত বারিয়ে দিয়েছে আমাল ফাউন্ডেশন। প্রায় এক হাজার পরিবারের খাদ্যের যোগান দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে আমাল। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, বগুড়া সহ কক্সবাজার শহরগুলোতে সুবিধাবঞ্ছিত পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, তেল, লবন থেকে নিয়ে হাত ধোওয়ার সামগ্রী এবং মাস্ক বিতরণ করা হবে। প্রতি পরিবারের রেশন ব্যয় বরাদ্দ করা হয়েছে ৫০০ টাকা করে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন জায়গায় কার্যক্রম শুরু হয়ে গেছে।
আমাল ফাউন্ডেশন সাধারণত সারাদেশে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন কর্মকান্ডে জড়িত। করোনাকালীন তাদের এই স্বেচ্ছাসেবী কর্মকান্ড অব্যাহত থাকবে বলে জানান ডিরেক্টর ইসরাত করিম ইভ।

Facebook Comments Box


Posted ১:৫২ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১