শনিবার, এপ্রিল ২৪, ২০২১

করোনায় ভারত যেন মৃত্যুপুরী, গণকবর ও সৎকারে হিমশিম

  |   শনিবার, ২৪ এপ্রিল ২০২১ | প্রিন্ট  

করোনায় ভারত যেন মৃত্যুপুরী, গণকবর ও সৎকারে হিমশিম

ভারতে আবারও একদিনে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর নতুন রেকর্ড হয়েছে। সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে শনাক্ত হয়েছে রেকর্ড প্রায় সাড়ে ৩ লাখ এবং মারা গেছেন ২৬শ’র বেশি।
এনডিটিভির সূত্রে জানা যায়, এ অবস্থায় ভারতজুড়ে অক্সিজেন স্বল্পতার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের অসহযোগিতাকে দায়ী করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। জবাবে, টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি না করার অনুরোধ জানান দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
দিল্লিজুড়ে করোনায় মৃতের হারের ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন গোরস্থানে গণকবর খুঁড়তে দেখা যায়। একইসঙ্গে, গণহারে সৎকার চলে শহরের প্রধান শ্মশানগুলোতেও। মরদেহ সমাহিত করার জায়গা পেতে হিমশিম খেতে হচ্ছে করোনায় মৃতদের পরিবারকে।
ভারতজুড়ে করোনার সর্বোচ্চ সংক্রমণের মধ্যেই অক্সিজেনের তীব্র সংকট এবং চলমান পরিস্থিতি মোকাবিলায় কোভিড প্রবণ ১১টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে শুক্রবার ভার্চুয়াল বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এসময়, সংক্রমণ রুখতে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনার পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন মোদি।
এছাড়াও, বৈঠকে অক্সিজেন সংকটের জন্য কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ আনেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। জবাবে, জাতির সংকটময় মুহূর্তে বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি না করার অনুরোধ জানান প্রধানমন্ত্রী মোদি।
এরমধ্যেই, প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধে ভারতজুড়ে অক্সিজেন সংকট দূর করতে উৎপাদন বাড়ানোর উদ্যোগ শুরু করেছে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো।
দেশজুড়ে অক্সিজেনের তীব্র সংকট। আমাদের হাতে পর্যাপ্ত লিকুইড নেই। আর এ কারণেই আমরা হাসপাতাল ছাড়া আপাতত কারও কাছে সিলিন্ডার বিক্রি করছি না। কেননা ব্যক্তিগত পর্যায়ে সিলিন্ডার সরবরাহ না করতেও কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।
এদিকে, বিভিন্ন রাজ্যের হাসপাতালগুলোতে শয্যা সংকট দূরত করতে এরইমধ্যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।


Posted ৯:৪৩ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ২৪ এপ্রিল ২০২১

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar