বৃহস্পতিবার ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

করোনা মোকাবেলায় রোল মডেল হবে বাংলাদেশ?

ডেস্ক   |   রবিবার, ১৫ মার্চ ২০২০ | প্রিন্ট  

করোনা মোকাবেলায় রোল মডেল হবে বাংলাদেশ?

বাংলাদেশে তিনজন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে ঘরে ফেরার পর আরেকটি দুঃসংবাদ এসেছে গতরাতে। আরও দুজন বিদেশফেরত ব্যক্তির দেহে করোনা শনাক্ত হওয়ার খবর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে জানিয়েছেন। জনমনে করোনা নিয়ে নানারকম উৎকণ্ঠা, আতঙ্ক আছে। তবে জনগণ করোনা নিয়ে সচেতন হয়েছেন। রাজধানীর রাস্তায় বের হলেই দেখা যাচ্ছে, মাস্ক পড়ার অভ্যাস করছেন প্রায় সব বয়সের মানুষ। আজ বিকেলে সাড়ে পাচটায় সার্ক দেশগুলোর নেতারা করোনা মোকাবেলায় এক ভিডিও কনফারেন্সে মিলিত হচ্ছেন।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে, করোনা মোকাবেলায় রোল মডেল হতে পারে বাংলাদেশ। এর প্রধান কারণ হলো বাংলাদেশের তৃনোমূল পর্যন্ত যে স্বাস্থ্যব্যবস্থা বিস্তৃত রয়েছে, সেটি পৃথিবীর খুব কম দেশেই আছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ রোল মডেল। যে কারণগুলোতে করোনা মোকাবেলাতেও বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেল হতে পারে, তার মধ্যে রয়েছে-
১. কমিউনিটি ক্লিনিক
বাংলাদেশে স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সবচেয়ে বড় অর্জন হলো কমিউনিটি ক্লিনিক। দেশে প্রতি ৬ হাজার লোকের জন্য একটি করে কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। এি কমিউনিটি ক্লিনিকের বিস্তৃতি তৃণমূল পর্যন্ত। সারাদেশে এখন পর্যন্ত ১৪ হাজারের মতো কমিউনটি ক্লিনিক রয়েছে।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে যে, করোনা মোকাবেলার সবচেয়ে বড় উপায় হলো, দিনে অন্তত ২০ বার ২০ সেকেন্ড হাত ধোয়াসহ নানারকম স্বাস্থ্য সচেতনতা। এই স্বাস্থ্য সচেতনতা বার্তাগুলো তৃণমূল পর্যন্ত পৌঁছানো যাচ্ছে না বলেই করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ এক উজ্জ্বল ব্যতিক্রম। কমিউনিটি ক্লিনিক ইতিমধ্যেই তাদের স্বাস্থ্যকর্মীদের করোনা সম্পর্কে এই সতর্ক বার্তা দিয়েছে। বাংলাদশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও এই করোনা সম্পর্কে সচেতনতা বার্তা ইতিমধ্যেই পৌঁছে গেছে। এদিক থেকে বাংলাদেশ এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হতে পারে।
২. দুর্যোগ মোকাবেলায় বাংলাদেশের সক্ষমতা
যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় বাংলাদেশ ইতিমধ্যেই সক্ষমতা দেখিয়েছে। বিশেষ করে, বন্যা, প্রাকৃতিক দুর্যোগগুলো মানুষ যেভাবে মোকাবেলা করেছে তাতে বাংলাদেশের মানুষের স্বাভাবিক একটা সক্ষমতা রয়েছে। বাংলাদেশের মানুষ ত্যাগ স্বীকার করে দুর্যোগ মোকাবেলা করে। করোনার ক্ষেত্রেও এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ করোনা মোকাবেলায় একটি অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।
৩. প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবায় সাফল্য
বাংলাদেশ টিকাদানসহ প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিষেবায় বিশ্বের রোল মডেল। বাংলাদেশে একদম তৃণমূল পর্যন্ত রয়েছে স্বাস্থ্য কর্মী বা পরিবারকল্যাণ কর্মী। কাজেই বাংলাদেশে যেকোনো স্বাস্থ্য সতর্কতা মুহুর্তের মধ্যে তৃণমূল পর্যন্ত ছড়িয়ে দেয়া যেতে পারে- যেটা বিশ্বে বিরল। বিশ্বের উন্নত দেশে এটা জটিল। বিশেষ করে ইউরোপের দেশগুলোতে হেলথ কেয়ার এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থা অনেকটা ব্যয়বহুল এবং ইনস্যুরেন্স নির্ভর। এ কারণে করোনা মোকাবেলার ক্ষেত্রে তারা প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবার দিকে এগোতে পারেনি।
৪. বাংলাদেশের শক্তিশালী এনজিও নেটওয়ার্ক
বিশ্বের বৃহত্তম এনজিও হচ্ছে ব্রাক। ব্রাকের স্বাস্থ্য পরিষেবা নেটওয়ার্ক পুরো বাংলাদেশ জুড়ে বিস্তৃত এবং বিশ্বে এটি এক বিরল দৃষ্টান্ত। শুধু ব্রাক নয়, বাংলাদেশে অন্যান্য বেশকিছু এনজিও রয়েছে যারা স্বাস্থ্য পরিষেবায় বিশ্বে অনুকরণীয় রোল মডেল। এই বেসরকারি সংস্থাগুলো ইতিমধ্যেই সারাদেশের মানুষকে করোনা নিয়ে সচেতন করার কাজ করছে।
এই বিষয়গুলো বিচার-বিশ্লেষণ করে বলা হচ্ছে যে, বাংলাদেশ করোনা মোকাবেলায় বিশ্বে রোল মডেল হতে পারে।

Facebook Comments Box


Posted ৪:২০ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৫ মার্চ ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১