সোমবার, মার্চ ১৬, ২০২০

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

করোনা মোকাবেলায় সর্বোচ্চ সক্ষমতা কাজে লাগাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক   |   সোমবার, ১৬ মার্চ ২০২০ | প্রিন্ট  

করোনা মোকাবেলায় সর্বোচ্চ সক্ষমতা কাজে লাগাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

বিশ্বজুড়ে মহামারীর আকার নেওয়া করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সার্কভুক্ত দেশগুলোকে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমি মনে করি, এখন আমাদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আমাদের একে অন্যের সহযোগিতা করতে হবে। আমাদের সর্বোচ্চ সক্ষমতা কাজে লাগাতে হবে। এমনকি যদি টেকনিক্যাল লেভেলেও যদি ভিডিও কনফারেন্সের প্রয়োজন হয় সেটা করা যেতে পারে। তিনি বলেন, আমি আশা করছি, এই সম্মেলন করোনা মোকাবেলায় আমাদের সবাইকে নতুন পথের দিশা দেবে।
গতকাল রবিবার (১৫ মার্চ) বিকালে কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সমন্বিত কর্মসূচি ঠিক করতে ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন সার্কভুক্ত আট শীর্ষ নেতা। এতে ঢাকা থেকে যুক্ত হয়ে নিজের প্রস্তাবনায় এ আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সার্ক দেশগুলোর স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সচিবদের নিয়ে এমন একটি ভিডিও কনফারেন্সের প্রস্তাব দেন, যাতে সবাই অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে পারেন। জনস্বাস্থ্য ঝুঁকি প্রতিরোধে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো যেন একসঙ্গে কাজ করতে পারে, সে জন্য একটি ইনস্টিটিউট গড়ে তোলার প্রস্তাব দেন শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, যেন ভবিষ্যতে কোনো সমস্যা দেখা দিলে আমরা একসঙ্গে কাজ করতে পারি। নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারি। বাংলাদেশ এমন একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারে, যদি আপনারা একমত হন। একটি ফোরাম গঠন করা যেতে পারে। আমরা আমাদের বিশেষজ্ঞদের শেয়ার করতে প্রস্তুত আছি। লজিস্টিক সাপোর্ট দেব, যদি প্রয়োজন হয়।
শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশে যত করোনাভাইরাসের রোগী রয়েছেন তাদের সবাই দেশের বাইরে থেকে এসেছেন। অন্য অনেক দেশের মতো স্থানীয়ভাবে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া ঠেকিয়া রাখতে পেরেছে সরকার। তিনি বলেন, সব দেশের সক্ষমতা ব্যবহারে সমন্বিত পদক্ষেপ নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বিশেষজ্ঞ ও প্রয়োজনীয় রসদ দিয়ে সহায়তা দিতে প্রস্তুত বলেও জানান শেখ হাসিনা। পরবর্তীতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও সার্কের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের নিয়েও নিয়মিত ভিডিও কনফারেন্স আয়োজন করা যেতে পারে বলে প্রস্তাব দেন শেখ হাসিনা। এই ধরনের সঙ্কট মোকাবেলায় ভবিষ্যতে বাংলাদেশে একটি সার্ক ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার ব্যাপারেও আগ্রহ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজনের জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে প্রথমে ধন্যবাদ জানান। চীনের উহান থেকে ভারতীয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ২৩ বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে ভারতে নিয়ে কোয়ারেন্টাইনে রাখার জন্যও ধন্যবাদ জানান তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, জনস্বাস্থ্য ঝুঁকি মোকাবেলায় ও নাগরিকদের রক্ষা করতে সার্কভুক্ত দেশগুলোর বিশেষ পদক্ষেপ নিতে হবে।
শেখ হাসিনা বলেন, আশা করি আমাদের আলোচনা এখানেই শেষ হবে না। এটি চলতে থাকবে। কীভাবে এ আলোচনা সামনের দিকে নেওয়া যায় তা আমাদের বিশেষজ্ঞরা এগিয়ে নেবেন। আমরা একে অন্যের সঙ্গে ইন্টারকানেক্টেড। আমরা ভারতের প্রধানমন্ত্রীর এ ধারণাকে স্বাগত জানিয়েছি। আশা করছি, আমাদের প্রস্তাবগুলোকে বিশেষজ্ঞরা সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। আমি মনে করি সবাই মিলে আমরা এ অঞ্চলের মানুষের নিরাপত্তা বিধান করতে পারব। বাংলাদেশ খুশি এই উদ্যোগের সঙ্গে আছি।
ঢাকা থেকে এ ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার শেষের বক্তব্যে বলেন, এ মহামারী মোকাবেলায় সার্কভুক্ত দেশগুলোকে সহযোগিতা ও সমন্বিত হয়ে কাজ করতে হবে। সমন্বয় করতে হবে আমাদের সম্মিলিত সামর্থ্য, অভিজ্ঞতা ও সম্পদের। লজিস্টিক সাপোর্টসহ সক্ষমতা, অভিজ্ঞতা এবং কার্যক্রম সার্কভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে শেয়ার করতে আমরা প্রস্তুত বলে জানান শেখ হাসিনা।


Posted ৮:৫৬ এএম | সোমবার, ১৬ মার্চ ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement