বুধবার, এপ্রিল ২৯, ২০২০

কাশিয়ানীতে জমি দখলে বাঁধা দেয়ায় প্রভাবশালীর বর্বরতা, ভিডিও ভাইরাল

কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি   |   বুধবার, ২৯ এপ্রিল ২০২০ | প্রিন্ট  

কাশিয়ানীতে জমি দখলে বাঁধা দেয়ায় প্রভাবশালীর বর্বরতা, ভিডিও ভাইরাল

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে জোরপূর্বক জমি দখল করে রাস্তা করতে বাঁধা দেয়ায় অসহায় একটি হিন্দু পরিবারের ওপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়েছে স্থানীয় এক প্রভাবশালী ও তার লোকেরা।
বর্বরোচিত হামলার এ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।
গত রবিবার (২৬ এপ্রিল) উপজেলার হাতিয়াড়া ইউনিয়নের পাথরগ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে।
জানা গেছে, কাশিয়ানী উপজেলার পাথরগ্রামের দিনমজুর তরুণী রায় পৈত্রিকসূত্রে পাওয়া ওই গ্রামের একটি জমি পূর্বপুরুষ থেকে ভোগদখল করে আসছেন। গত রোববার খুব ভোরে হঠাৎ করে প্রতিবেশী আশুতোষ বিশ্বাস জমির মালিকানা দাবি করে বেশ কিছু মাটি কাটার শ্রমিক নিয়ে মাটি ফেলে রাস্তা তৈরীর কাজ শুরু করেন। রাস্তার মুখে থাকা তরুণী রায়ের একটি ল্যাট্রিনও ভেঙে ফেলেন প্রভাবশালী আশুতোষ বিশ্বাসের লোকেরা। এ সময় জমি দখল করে রাস্তা নির্মাণে বাঁধা দিতে গেলে আশুতোষ ও তার লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে নিরীহ তরুণী রায়ের পরিবারের সদস্যদের বেধড়ক পেটাতে থাকে। এতে তরুণী রায় ও তার স্ত্রী সুষমা রায়, ছেলে তপন রায়, রপন রায় এবং মেয়ে চন্দনা রায়সহ সাতজন আহত হয়।

আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয় চিকিৎসা কেন্দ্রে ভর্তি করে স্থানীয়রা। পরে খবর পেয়ে কাশিয়ানী থানার রামদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটি কেটে রাস্তা নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়।
এরই মধ্যে হামলার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। নিরীহ পরিবারের সদস্যদের ওপর বর্বরোচিত নির্যাতনের ভিডিওটি ভাইরাল হলে এলাকার মানুষের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। ঘটনার সাথে জড়িত প্রভাবশালী আশুতোষকে গ্রেফতারের দাবি জানায় অনেকে।
‘রবিন বিশ্বাস’ নামে একটি ফেসবুক আইডিতে আপলোড হওয়া ভিডিওচিত্রে দেখা যাচ্ছে, প্রভাবশালী আশুতোষ বিশ্বাস লোকজন নিয়ে তরুণী রায়ের স্ত্রী, ছেলে-মেয়ে ও ভাতিজা সবাইকে গাছের ডাল দিয়ে বেধড়ক পেটাচ্ছে।
এ ঘটনার পর ওই গ্রামের একমাত্র সংখ্যালঘু, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারটি জমি বেদখল ও প্রাণভয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।
তরুণী রায় অভিযোগ করে বলেন, ‘পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া জমি পূর্বপুরুষ থেকে ভোগদখল করে আসছি। হঠাৎ প্রতিবেশী আশুতোষ বিশ্বাস জমির মালিকানা দাবি করে লোকজন নিয়ে জমির ওপর দিয়ে মাটি কেটে রাস্তা তৈরীর কাজ শুরু করে। আমরা বাঁধা দিতে গেলে আমাদের সবাইকে আশুতোষ বিশ্বাস লোকজন নিয়ে লাঠি দিয়ে পিটিয়েছে। আমরা এ গ্রামে মাত্র দু’টি পরিবার বসবাস করি। আমাদের লোকজন নেই। ওরা অনেক প্রভাবশালী এবং ওদের বংশে অনেক লোকজন আছে। তাই আমরা এখন চরম আতঙ্কের মধ্যে আছি।’
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই গ্রামের একাধিক ব্যক্তি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘তরুণী রায়কে গ্রামের সংখ্যালঘু ও নিরীহ পেয়ে আশুতোষ বিশ্বাস ও তার লোকেরা যে অমানবিক নির্যাতন করেছে, তা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং অমার্জনীয় অপরাধ।’ তারা ঘটনার সাথে জড়িত আশুতোষ ও তার সহযোগিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।
এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য আশুতোষ বিশ্বাসের বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। তবে তার স্ত্রী লিপা বিশ্বাস ভাইরাল ভিডিও’র কথা অস্বীকার করে বলেন, ‘আমার স্বামীর গায়ে ওরা হাত দিলে আমার স্বামী রাগ হয়ে ওদের দুই-একটা চড়-থাপ্পড় দিয়েছে। তবে আমরা আমাদের কেনা জমিতে রাস্তা করতেছি। আমরা পশ্চিমপাশ দিয়ে কিনেছিলাম, কিন্তু দলিল করার পর দেখি আমাদের পূর্বপাশ দিয়ে লিখে দিয়েছে।’
কাশিয়ানী থানার রামদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ খন্দকার মোঃ আমিনুর রহমান অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে রাস্তা নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’


আজ সকালে মহামারি করোনা ভাইরাস এর ভিতর দিয়ে জমি দখল নিয়ে, পাথর গ্রাম পূর্ব পাড়া মারা মারি, জারা মার খাচ্ছে, তারা খুব নিরিহ ও ছোটো বংশ, এরা মার ও খাচ্ছে জমি ও হারাচ্ছে। যে ঠেকাতে যাচ্ছে তাদেরকে ও মারচ্ছে। এদের কে আইনের আওতায় আনা হোক।


Posted by Rabin Biswas on Saturday, April 25, 2020

Posted ১২:৪০ অপরাহ্ণ | বুধবার, ২৯ এপ্রিল ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি) মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১২১৭০৭৭১

E-mail: [email protected] | [email protected]