• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    কুমিল্লা ৪ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আবুল হাশেম রানা

    নিজস্ব প্রতিবেদক: | ২৭ জুলাই ২০১৭ | ৩:৪৫ অপরাহ্ণ

    কুমিল্লা ৪ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আবুল হাশেম রানা

    জাতীয়তাবাদী আদর্শের ধারক, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক সংগঠক, জিসাস প্রতিষ্ঠাতা-চেয়ারম্যান আবুল হাশেম রানা কুমিল্লা ৪(দেবিদ্ধার) আসন থেকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী এবং বেশ মনোনয়ন প্রাপ্তিতে বেশ আশাবাদ প্রকাশ করেছেন।
    ১৯৯২ সালে জিয়া সাংস্কৃতিক সংগঠন (জিসাস) প্রতিষ্ঠার পর থেকেই তিনি দেশের সকল গুনী শিল্পীদের সংস্কৃতির বিকাশ এবং পাশাপাশি কোমলমতি শিশু কিশোরদের মধ্যে দেশীয় সংস্কৃতির বীজ বপনে কাজ করে যাচ্ছেন।জিসাস প্রতিষ্ঠাতাকালীন তার স্বপ্ন ছিল:
    ১.স্বদেশ সংস্কৃতির বিকাশে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের অবদান কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ ও অনুসরণ করা।
    ২.অপসংস্কৃতির আগ্রাসন থেকে দেশীয় নিজস্ব সংস্কৃতিকে রক্ষা করে বিশ্ব দরবারে তা পৌছে দেয়া।
    ৩.হারিয়ে যাওয়া বিলুপ্ত প্রায় লোক ঐতিহ্যের অনুসন্ধান, তার পরিচর্যা ও নিরাপদ রক্ষনাবেক্ষন।
    ৪.দুস্থ অসহায় শিল্পীদেরকে যথাযথ সাহায্যের মাধ্যমে বাঁচিয়ে তোলা।
    ৫.গুনী শিল্পীদেরকে জীবদ্দশাতেই তাদের প্রাপ্য যোগ্য মর্যাদা প্রদান করা।
    ৬.প্রয়াত শিল্পীদের জন্ম মৃত্যু দিবসে স্মরণ সভা করে নতুন প্রজন্মের কাছে তাদের সৃষ্টিকর্ম পৌছে দেয়া।
    ৭.শিশু কিশোর কোমলমতি শিল্পীদের মনের সুপ্ত কুড়ি জাগিয়ে তুলে আত্ম পরিচয়ে প্রতিষ্ঠিত করা।


    জিসাস প্রতিষ্ঠাকালীন যে স্বপ্ন দেখেছিলেন সে স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়েছে শতভাগ। আবুল হাশেম রানা আব্দুর রহমান বয়াতি, আব্দুল জাব্বার সহ দুস্থ শিল্পীদেরকে রাষ্ট্রীয় চিকিৎসা সেবার আয়তায় এনেছেন।
    •রুনা লায়লা, শাহনাজ রহমতুল্লাহ, আপেল মাহমুদ, খোরশেদ আলম, দিলরুবা খান, আসিফ, মনির খান, রিজিয়া পারভিন, এসডি রুবেল প্রমুখ অসংখ্য গুনী শিল্পীদেরকে তাদের কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ জিয়া স্বর্ণপদক ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করেছেন।
    •ববিতা, আনোয়ারা, মান্না, সালমান শাহ, দিলদার, রিয়াজ, ফেরদৌস, শাবনুর, পপি সহ সকল গুনী অভিনয় শিল্পীদেরকে জিসাস কর্তৃক জিয়া স্বর্ণপদক প্রদান করে চলচ্চিত্র শিল্পকে গতিশীল করেছেন।
    •লালন, হাছন, আব্দুল আলীম, আব্বাস উদ্দিন, শাহ আব্দুল করিমের মত সাধক শিল্পীদের জীবনী ও কর্মের উপর আলোচনা অনুষ্ঠান করে নতুন প্রজন্মের কাছে তাদের কর্মকে পৌছে দিচ্ছেন।
    •কাজী নজরুল ইসলাম, আল মাহমুদ, ফররুখ আহমদ, কাজী মোতাহের হোসেন প্রমুখ সাহিত্যিকদের জীবন দর্শন ও কর্মের উপর গবেষণা মূলক বই, ক্রোড়পত্র প্রকাশ করছেন।
    •তারকা শিল্পীদের সম্পৃক্ততা করে বৃক্ষরোপন কর্মসূচিকে সারা দেশে ছড়িয়ে দিচ্ছেন।
    •স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির উদ্যোগ গ্রহন করে আর্ত মানবতার সেবায় এগিয়ে আসছেন।
    •বন্যা, ঘূর্নিঝড়ের মত প্রাকৃতিক দূর্যোগে পর্যান্ত সহায়তা নিয়ে অসহায় মানুষদের পাশে দাড়াচ্ছেন।
    •বিজাতীয় সংস্কৃতির হাত থেকে নিজেদের সমৃদ্ধ সংস্কৃতিকে বাচানোর জন্য জনসমর্থন আদায়ে মানব বন্ধন করছেন।
    •সর্বোপরি শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জাতীয়তাবাদী আদর্শকে বাংলার ঘরে ঘরে আনাচে কানাচে পৌছে দেয়ার জন্য তিনি নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন।
    এই কর্মকান্ড চালাতে গিয়ে তিনি কোন অপশক্তির কাছে মাথা নত করেননি কখনো, কারো হুমকি ধমকিতে ভীত হয়ে কাজ বন্ধ করে দেননি।আবুল হাশেম রানা ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন সফলতার সাথে, বিএনপির পঞ্চম ও ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের সাংস্কৃতিক উপকমিটির অন্যতম সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।
    তিনি বিনোদনমূলক ম্যাগাজিন ‘সাপ্তাহিক ধানের ছড়া’ পত্রিকা প্রকাশের মাধ্যমে স্বদেশ সংস্কৃতির বিকাশ ও দলীয় কর্মকান্ডের সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করছেন নিয়মিত।তিনি লাভ করেছেন দেশের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গের ভালোবাসা।বিশেষ করে সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা শিল্পী, লেখক তথা সংস্কৃতী সেবীদের তিনি জাতীয়তাবাদী চেতনার ছাতাতলে একত্রিত করেছেন অত্যন্ত সফলতার সাথে।
    সাংস্কৃতিক ও সামাজিক অবদানের জন্য বিভিন্ন সময় তিনি বিভিন্ন পদকে ভূষিত হয়েছেন। তার মধ্যে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার হাত থেকে ‘শ্রেষ্ঠ সংগঠক পদক’, ‘বাবিসাস এ্যায়ার্ড’, ‘টেলিভেশন দর্শক ফোরাম এ্যাওয়ার্ড’, ‘ভাষাণী স্মৃতি পদক’, ‘ডা. মিলন সংসদ পদক’, ‘চিরন্তন বাংলাদেশ স্বর্ণপদক’, ‘ফ্রেন্ডস একাডেমী পদক’ সহ বিভিন্ন পদকে ভূষিত হোন।
    বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান সহ স্থায়ী কমিটির সকল সদস্য ও কেন্দ্রীয় কমিটির সকল নেতাকর্মীদের আস্থা ও ভালোবাসার পাত্র হিসেবে আবুল হাশেম রানা ইতিমধ্যে একজন সফল সংগঠক ও তরুণ নেতা হিসেবে তার অবস্থান গড়ে তুলেছেন।
    মিষ্টিভাষী এই তরুন নেতা সর্বদা এলাকার মানুষের সুখে দু:খে এগিয়ে যান, এলাকার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে শরীক হোন।এলাকার মানুষের দাবী আবুল হাশেম রানা যেন আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাদের পছন্দের প্রার্থী হয়ে বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।
    দেবিদ্ধারের জনগন আবুল হাশেম রানার আহবানে একত্রিত হয়ে দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার হাতকে আরো শক্তিশালী করার আহবান করা হল।

    ajkerograbani.com

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755