• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    শিবিরকর্মী থেকে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র, কে এই ইমরান?

    আজকের অগ্রবাণী ডেস্ক: | ০৬ জুন ২০১৭ | ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ

    শিবিরকর্মী থেকে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র, কে এই ইমরান?

    প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করে শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চের একাংশের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারের নাম আবার আলোচনায় উঠে এসেছে। কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার অজপাড়াগাঁ বালিয়ামারীর বাজারপাড়া গ্রামের ইমরানের হঠাৎ বিখ্যাত (!) হয়ে উঠার গল্প সবার জানা। কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিতে শাহবাগে ব্লগারদের মাসব্যাপী অবস্থান কর্মসূচি পালনের মাধ্যমে আবির্ভাব ঘটে ইমরানের।


    প্রশ্ন হলো কে এই ইমরান এইচ সরকার? কী তার পরিচয়? ১৬ কোটি মানুষের দেশে হঠাৎ করে তার নেতৃত্বে চলে আসার নেপথ্যের রহস্য কী? ইমরানকে মহান নেতা করতে যেন কিছু টিভির সাংবাদিক কোমর বেঁধে মাঠে নামেন।ইমরান এইচ সরকারের দাদার নাম হাজি খয়ের উদ্দিন সরকার। মুক্তিযুদ্ধের সময় মুসলিম লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে বিরোধিতা এবং নানা অপকর্মের কারণে মুক্তিযুদ্ধ চলার সময় তাকে হত্যা করা হয়। ইমরান ছাত্রশিবিরের সদস্য হিসেবে রংপুর মেডিকেলে পড়ার সুযোগ-হোস্টেলে সিট পান। ওই সময় রংপুরে জাসদ ছাত্রলীগ-শিবির সংঘাত সংঘর্ষের ঘটনা ছিল নিত্যখবর। ধুরন্ধর হিসেবে পরিচিতি ইমরান এইচ সরকার এক সময় ছাত্রশিবির ছেড়ে দিয়ে আওয়ামী সমর্থিত ছাত্রলীগে যোগ দেন এবং কলেজ শাখার সভাপতি হন। এমবিবিএস পাসের পর রংপুর থেকে ঢাকায় এসে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চিকিৎসক সংগঠনের প্রচার উপ-কমিটির সদস্য হন।

    ajkerograbani.com

    অনুসন্ধান করে জানা গেছে ইমরান এইচ সরকারের পিতার নাম মতিউর রহমান সরকার মতিন। কুড়িগ্রাম জেলার রাজীবপুর উপজেলার বালিয়ামারীর বাজারপাড়া গ্রামের মতিন সরকারের চার ছেলে-মেয়ের মধ্যে সবার ছোট ইমরান। ১৯৮৩ সালের ১৪ অক্টোবর জন্মগ্রহণকারী ইমরানের দাদা শান্তি কমিটির সদস্য খায়ের উদ্দিনকে ১৯৭১ সালের ১৪ জুন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা মাখনের চরে হাঁটুপানিতে নামিয়ে গুলি করে মেরে ফেলে। এক সময় উত্তরাঞ্চলে সিপিবির অঙ্গ সংগঠন ক্ষেতমজুর সমিতির ব্যাপাক প্রভাব ছিল। সে সুবাদে ইমরানের বাবা মতিন সরকার স্বাধীনতার পরে বাম-রাজনীতিতে যোগ দেন। বাম রাজনীতি করলেও ১৯৯১ সালে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হন। বর্তমানে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য।

    ইমরান এইচ সরকার ১৯৯৯ সালে এসএসসি ও ২০০১ সালে এইচএসসি পাস করেন। ২০০২ সালে রংপুর মেডিকেল কলেজে ৩১তম ব্যাচে ছাত্র সে। মেডিকেলেরে ছাত্রাবাসে তিনি প্রথমে ছাত্রশিবিরের সভাপতির সাথে একই কক্ষে থাকতেন। ওই সময় শিবিরকর্মী হিসেবে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। পরে ইমরান ছাত্রলীগে যোগ দিয়ে কলেজ শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক, আহ্বায়ক ও ইন্টার্ন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। এমবিবিএস পাস করার পর ২০০৯ সালে ঢাকায় চলে আসেন। এরপর আওয়ামীপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ‘স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ’ (স্বাচিপ) প্রচার উপ-কমিটিতে সক্রিয় হন। তিনি অ্যাডহক ভিত্তিতে কুড়িগ্রামের উলিপুরে চিকিৎসক হিসেবে নিয়োগ পান। পরে স্বাচিপের নেতা হওয়ায় উলিপুরে চাকরি না করে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অ্যানসথেশিয়া বিভাগে যোগ দেন। ২০১৩ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে ব্লগার ও অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট নেটওয়ার্ক (বোয়ান) নামে সমবেত হয়।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757