• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    গোপালগঞ্জ-১ মাতিয়ে তুলেছেন কানতারা খান

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২০ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

    গোপালগঞ্জ-১ মাতিয়ে তুলেছেন কানতারা খান

    গোপালগঞ্জ-১ (কাশিয়ানী-মুকসুদপুর) নির্বাচনী এলাকা মাতিয়ে তুলেছেন আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপকমিটির সদস্য, সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের যুগ্ম আহ্বায়ক, আওয়ামী লীগের নির্বাচন পর্যবেক্ষক সমন্বয় উপ-কমিটির সদস্য কানতারা খান।


    যিনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গোপালগঞ্জ-১ আসনে বাবা কর্নেল (অব.) ফারুক খানের পক্ষে নেমে চমক সৃষ্টি করেছেন। সবাই বলছেন কানতারা খান হচ্ছেন তারুণ্যদীপ্ত-গতিময় মেধাবী, শিক্ষিত আধুনিক মানসের রাজনীতিক।
    শতভাগ নৌকার ভোটের এলাকা গোপালগঞ্জ-১ আসনের মুকসুদপুরের ঐতিহ্যবাহী খান পরিবারের সন্তান কানতারা খান। পুরো দেশ জুড়ে বৃটিশ যুগ থেকে সমাজ সেবক ও রাজনীতি সচেতণ হিসেবে তাদের বংশের পরিচয় রয়েছে। সে কারনেই তার অস্থি-মজ্জায় সমাজ সেবার স্বভাব।
    বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারন করে বেড়ে ওঠা কানতারা খান বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের লক্ষে বাবার পক্ষে বিভিন্ন গ্রামে উঠান বৈঠকে বক্তব্য দিচ্ছেন। যেখানেই বক্তব্য দিচ্ছেন সেখানের মানুষ তার ভক্ত বনে যাচ্ছে। বুদ্ধিদীপ্ত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক কানতারা খান লিখতে পারেন, টিভি টক শোতে বলতে পারেন একই ভাবে মাঠে ময়দানে জনতার সাথে মিশে যেতে পারেন তাদের আপনজন হয়ে।


    কানতারা খান গোপালগঞ্জ-১ (কাশিয়ানী-মুকসুদপুর) নির্বাচনী এলাকায় তৈরি হোক আলোকিত মানুষ। মাদক ও জঙ্গিবাদের হিংস্র ছোবল যাতে পরিবারগুলোকে ক্ষতবিক্ষত করতে না পারে সে জন্য নিয়মিত এলাকায় মাদক ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সমাবেশ করছেন তিনি। এক কথায় বলতে গেলে স্বল্প সময়ে কানতারা খান কাশিয়ানী-মুকসুদপুরের সর্বস্তরের মানুষের অন্তরে জায়গা পেয়েছেন। ফারুক খানের মেয়ে হিসেবে তাকে ঘিরেই স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে গোপালগঞ্জ-১ আসনের মানুষ।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669