• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    চীনের পথে পথে বাংলাদেশের জেসিয়া!

    অনলাইন ডেস্ক | ০৪ নভেম্বর ২০১৭ | ৮:৩৮ অপরাহ্ণ

    চীনের পথে পথে বাংলাদেশের জেসিয়া!

    পাহাড়ি পোশাকে হাঁটছেন ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ জেসিয়া ইসলাম। সড়কের দু’পাশে সাধারণ মানুষ অপলক চেয়ে আছে তার দিকে! তিন কিলোমিটার পথজুড়ে এমন ভালোবাসায় সিক্ত হলেন তিনি। স্বপ্ন নয়, ঘটনাটি সত্যি।


    চীনের শিমেলং ওশানে গত ২ নভেম্বর মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার ৬৭তম আসরের প্রতিযোগীরা দলবেঁধে তিন কিলোমিটার পথ হেঁটেছেন। তাদের প্যারেড দেখতে জড়ো হয় হাজার হাজার দর্শক। বেশিরভাগই ছিল তরুণ ও স্কুল শিক্ষার্থী।


    প্যারেডের জন্য আয়োজকরা ১২০ প্রতিযোগীকে ভাগ করে দেন মহাদেশ অনুযায়ী। স্বাভাবিকভাবে এশিয়া দলে ছিলেন জেসিয়া। তারা প্রত্যেকে পরেছিলেন নিজ নিজ দেশের ঐতিহ্যবাহী পোশাক।
    হাঁটতে গিয়ে প্রতিযোগীদের মধ্যে ক্লান্তি যেন ভর না করে সেজন্য ছিল শিমেলং সার্কাসের পরিবেশনা। এদিনের তারকা ছিলেন প্রতিযোগীরাই। প্যারেডে সাধারণ মানুষদের অভিবাদনে সিক্ত হওয়ার সময় গানের তালে মনের আনন্দে নেচেছেন তারা। প্যারেড শেষে ছবি তোলার জন্য একে একে দাঁড়ান সবাই।

    শেষ বিকালে নয়নাভিরাম শিমেলং অ্যাকুয়ারিয়াম ঘুরে দেখেন প্রতিযোগীরা। এখানে ছয়টি হাঙর এবং বিভিন্ন প্রজাতির শত শত মাছ রয়েছে। দর্শনীয় এই অ্যাকুয়ারিয়াম দেখে আনন্দিত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সুন্দরীরা।
    এর আগে ওইদিন সকাল থেকে অন্য সবার মতো আরেকটি ব্যস্ত দিন শুরু হয় জেসিয়ার। শুরুতে মাল্টিমিডিয়া সেগমেন্টের অংশ হিসেবে বিভিন্ন অ্যাঙ্গেলে সৃজনশীল দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে তোলা ছবি আপলোড করতে প্রতিযোগীদের উৎসাহ দেওয়া হয়। দুপুরের খাবারের পর নিজ নিজ দেশের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরেন প্রতিযোগীরা। জেসিয়া তখন গায়ে জড়ান পাহাড়ি পোশাক।

    সাজগোজ শেষে সুন্দরীরা হোটেলের করিডোরে পা রাখতেই ছড়িয়ে পড়ে রঙিন উৎসবের আমেজ। লবিতে তারা পায়চারির সময় অন্য অতিথিরা মুগ্ধ দৃষ্টিতে দেখেছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দর্শনীয় পোশাকগুলো।
    সারাদিনের ব্যস্ততার পর সন্ধ্যায় হোটেলে ফিরে কিন্তু বিশ্রামে চলে যেতে পারেননি কোনও প্রতিযোগী। ফাইনালের জন্য সবাইকে অংশ নিতে হয়েছে মহড়ায়।

    আগামী ১৮ নভেম্বর চীনের সানাইয়া সিটি এরেনায় হবে প্রতিযোগিতার ফাইনাল। ওইদিন নতুন মিস ওয়ার্ল্ডের মাথায় মুকুট পরিয়ে দেবেন বর্তমান বিশ্বসুন্দরী স্টেফানি দেল ভালে।

    ‘মিস ওয়ার্ল্ড’-এর ৬৭তম আসরে অংশ নিতে গত ২০ অক্টোবর চীনের গুয়াংজু বিমানবন্দরে পৌঁছান জেসিয়া। এরপর বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতার অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে এসেছে তার পরিচিতি ভিডিও। মিস ওয়ার্ল্ড-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটেও যুক্ত হয় ১৮ বছর বয়সী এই তরুণীর ছবি। তার মাধ্যমে ১৬ বছর পর বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায় দেখা যাচ্ছে লাল-সবুজ পতাকা।

    বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায় ৬ নভেম্বর হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ সেগমেন্টে অংশ নেবেন জেসিয়া। তিনি আছেন গ্রুপ-সিক্সে। এখানে তার প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা, কানাডা, ইথিওপিয়া ও বটসওয়ানার সুন্দরীরা।
    কে কোন গ্রুপে থাকবেন তা নির্ধারিত হয়েছে ৩১ অক্টোবর চীনের ওভারসিস চাইনিজ টাউন ইস্ট শেনজেনে ড্রয়ের মাধ্যমে। এবারই প্রথম বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায় যুক্ত হয়েছে এই বিভাগ। এই বিভাগের ফল থেকেই চূড়ান্ত হবে শীর্ষ ৪০ প্রতিযোগী। তাদের বলা হবে ‘ফাইনাল ফোর্টি’।

    গত ২৯ অক্টোবর হুয়াংশানের পাহাড়ি এলাকা ইয়েলো মাউন্টেনে এবারের প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করেন মিস ওয়ার্ল্ডের চেয়ারম্যান জুলিয়া মোরলে। এ সময় আরও ছিলেন হুয়াংশানের মেয়র ডেভিড লি ও বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। নিজের দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে প্রত্যেক প্রতিযোগী উচ্ছ্বাস ও গর্ব প্রকাশ করেন এখানে।

    গত ২৬ অক্টোবর চীনের শেনজেন শহরে মিস ওয়ার্ল্ড দাতব্য নিলাম অনুষ্ঠানে জেসিয়াসহ সব প্রতিযোগীকে মঞ্চে স্বাগত জানান বর্তমান বিশ্বসুন্দরী পুয়ের্তোরিকোর স্টেফানি দেল ভালে। তারা সম্মিলিত কণ্ঠে গেয়েছেন মিস ওয়ার্ল্ডের থিম সং ‘লাইট দ্য প্যাশন, শেয়ার দ্য ড্রিম’। এরপর প্রতিযোগীদের দেশের নাম বলা হয় ইংরেজি ও চীনা ভাষায়। নিলামের জন্য নিজ নিজ দেশের একটি করে উপহার নিয়ে যান প্রত্যেক প্রতিযোগী।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673