• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    জার্মানিতে চুটিয়ে চলছে প্রেম থেকে অবৈধ যৌনতা, বলছে জরিপ

    অনলাইন ডেস্ক | ১৪ অক্টোবর ২০১৭ | ৮:৪২ অপরাহ্ণ

    জার্মানিতে চুটিয়ে চলছে প্রেম থেকে অবৈধ যৌনতা, বলছে জরিপ

    জার্মানরা তাদের সঙ্গী বা সঙ্গিনী এবং তাদের যৌনজীবন নিয়ে মোটামুটি সন্তুষ্ট, বলছে জার্মানিতে প্রেম ও যৌনতা সংক্রান্ত একটি নতুন জরিপ ও প্রকাশনা৷ ইউগভ জরিপ বলছে, জার্মানদের দুই-তৃতীয়াংশ প্রথম দর্শনে প্রেমে বিশ্বাস করেন৷ ওদিকে যাদের বাঁধা সঙ্গী কিংবা সঙ্গিনী আছে, তাদের এক-তৃতীয়াংশ জানিয়েছেন যে, তারা অন্তত একবার অবৈধ সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছেন৷


    বইটির নাম ‘ভিয়ার ডয়চেন উন্ড ডি লিবে’ বা ‘আমরা জার্মানরা এবং প্রেম ও যৌনতা’৷ বইটির ভিত্তি হলো ইউগভ সংস্থার একটি জরিপ৷ ঐ জরিপে ১২,০০০-এর বেশি জার্মানকে তাদের প্রেম, পারস্পরিক সম্পর্ক ও যৌন প্রবণতা সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়৷


    ইউগভ-এর জরিপ অনুযায়ী ৭২ শতাংশ জার্মান বলেছেন যে, তাদের সঙ্গী বা সঙ্গিনী তাদের জীবনের মুখ্য প্রেমকাহিনী এবং তারা যৌন সম্ভোগের দৃষ্টিকোণ থেকেও পুরোপুরি সন্তুষ্ট৷ কিন্তু প্রতি তিনজন জার্মানের মধ্যে একজন বলেছেন যে, তিনি অন্তত একবার অপর কোনো পুরুষ বা মহিলার সঙ্গে ক্ষণিকের সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছেন – যারা এ ধরণের সম্পর্ক বহির্ভূত ‘অ্যাফেয়ারে’ জড়িয়ে পড়েছেন, তাদের প্রতি পাঁচজনের মধ্যে মাত্র দু’জন নিজের সঙ্গী বা সঙ্গিনীকে সে-কথা জানানোর সাহস পেয়েছেন৷

    কাঁচা কলা হোক বা উটের শুকনো গোবর- প্রাচীন কালে গ্রিস ও মিশরের মানুষ এগুলোর ওপর পিচ্ছিল পর্দার্থের প্রলেপ দিয়ে যৌন খেলনা বানিয়ে নিত৷ এছাড়া আরও বিকল্প ছিল বাঁকানো পাথর, চামড়া বা কাঠের বস্তু৷ বিশ্বের প্রথম ‘ডিলডো’ কিন্তু জার্মানিতেই আবিষ্কার হয়েছিল, তাও আবার ২৮,০০০ বছর আগে৷ ২০ সেন্টিমিটার লম্বা এই পাথরটি কেবল যে ‘সেক্স টয়’ হিসেবে ব্যবহৃত হতো তা-ই নয়, আগুন জ্বালানোর কাজেও ব্যবহৃত হতো৷

    সিঙ্গলস বা যাদের কোনো বাঁধা সঙ্গী বা সঙ্গিনী নেই, তাদের যৌনজীবন দৃশ্যত ঠিক অতটা সন্তোষজনক নয়৷ সিঙ্গলদের মাত্র ৪৪ শতাংশ বলেছেন যে, তাদের যৌনজীবন সন্তোষজনক৷

    নারী-পুরুষের সম্পর্কে বিবাহ আজও একটি জনপ্রিয় ধারা৷ ৬০ শতাংশ জার্মান বিয়ের ব্যাপারে খুশি৷ কিন্তু এক-তৃতীয়াংশের তথাকথিত ‘পরীক্ষামূলক বিবাহ’তেও আপত্তি নেই, উভয় পক্ষ স্বেচ্ছায় মেয়াদ না বাড়ালে যে বিবাহ নিজে থেকেই ভেঙে যায়৷ জার্মানিতে সঙ্গী ও সঙ্গিনী, অথবা সঙ্গিনী ও সঙ্গীর মধ্যে বয়সের ব্যবধান গড়ে ৫ দশমিক ৮ বছর৷

    কিন্তু জরিপে দেখা গেছে যে, জার্মানরা অতিমাত্রায় রোম্যান্টিক৷ প্রায় তিন-চতুর্থাংশ জার্মান বলেছেন যে, তারা প্রেমে পড়লে হাতে স্বর্গ পান; তাদের মধ্যে ১৩ শতাংশ আবার প্রেমে পড়লে বাকি সব কিছু ভুলে যান৷

    জরিপ থেকে দেখা গেছে যে, জার্মানরা গড়ে পাঁচজন সঙ্গী বা সঙ্গিনীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হন৷ এক্ষেত্রে যাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে, দেখা যায়, তাদের গড় যৌন সহযোগীর সংখ্যা আট; অপরদিকে বিবাহিতদের ক্ষেত্রে যৌনসঙ্গী বা সঙ্গিনীদের সংখ্যা পাঁচ ছাড়ায়নি৷

    জার্মানরা দৃশ্যত আরো কম বয়সে প্রথম যৌন অভিজ্ঞতা করছেন৷ মহিলাদের ক্ষেত্রে গড়ে ১৭ দশমিক ১ ও পুরুষদের ক্ষেত্রে গড়ে ১৭ দশমিক ৪ বছর বয়সে৷

    যৌন সম্ভোগের ক্ষেত্রে জার্মানরা তাড়াহুড়ো করেন না৷ মৈথুন চলে গড়ে ১৫ মিনিট ধরে৷ ৪৫ শতাংশ জার্মান তার আগে মিনিট দশেক ধরে ‘ফোরপ্লে’ বা শৃঙ্গার করেন৷ ১৫ মিনিটের মৈথুনে ৬১ শতাংশ জার্মান সন্তুষ্ট৷

    প্রেম ও যৌনতার ক্ষেত্রে প্রযুক্তিও উঁকিঝুঁকি মারছে৷ পুরুষদের এক-তৃতীয়াংশ বলেছেন, তাদের কোনো রোবট বা যান্ত্রিক পুতুলের সঙ্গে যৌন সম্ভোগে আপত্তি নেই, যদি তা ‘সত্যি’ বলে মনে হয়৷ মহিলাদের মধ্যে মাত্র ২০ শতাংশ কোনো যন্ত্রমানবের সঙ্গে দৈহিক সম্পর্কে আগ্রহী৷

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673