• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ডাস্টবিনে কুড়িয়ে পাওয়া মেয়েটি অভিনয়ে

    অনলাইন ডেস্ক | ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | ৫:০৬ অপরাহ্ণ

    ডাস্টবিনে কুড়িয়ে পাওয়া মেয়েটি অভিনয়ে

    জন্মের সময়ই ভাগ্য তার সঙ্গে প্রবঞ্চনা করেছিল। হয়ত নিজেদের জন্য বোঝা মনে করে সদ্যোজাতকে ডাস্টবিনে ফেলে চলে যান জন্মদাত্রী বা জন্মদাতা। কে জানতো সেই ভাগ্যবিড়ম্বিত কন্যা শিশুটি আজ এত আলো ছড়াবেন! নানা হাত ঘুরে শিশুটির জায়গা হয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর ঘরে।


    সে অনেক বছর আগের কথা। কলকাতার একটি ডাস্টবিন থেকে ভেসে আসছিল এক সদ্যেজাতের কান্না। অনেকে কান্না শুনে এগিয়ে গেলেও অহেতুক ঝামেলা মনে করে কেউ এগোয়নি। ডাস্টবিনের ময়লার মধ্যে তখন মৃত্যুর প্রহর গুনছে সবেমাত্র পৃথিবীর আলো দেখা শিশুকন্যাটি। কেউ একজন খবর দেয় পুলিশে। উদ্ধার করা হয় শিশুটিকে। রাখা হয় স্বেচ্ছাসেবী একটি সংগঠনের দায়িত্বে।

    ajkerograbani.com

    খবরটি কোনওভাবে এসে পৌঁছায় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর কানে। সে দিনই ওই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির সঙ্গে যোগাযোগ করেন প্রগতিশীল চলচ্চিত্রের অন্যতম কাণ্ডারি মিঠুন। ওই শিশুকে দত্তক নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মিঠুন ও তার স্ত্রী যোগিতা।

    শীর্ণকায়, রুগ্ন ওই শিশুটিকে সারা রাত কোলে নিয়ে বসে বিভিন্ন আইনি সমস্যা মিটিয়েছিলেন দু’জন। বাড়িতে নিয়ে আসা হয় ওই কন্যা সন্তানকে। নাম রাখেন দিশানী চক্রবর্তী। মিঠুনের পরিবারে আসার পর থেকেই সকলের প্রিয় হয়ে উঠেছিল ছোট্ট দিশানী। তার বাবার সঙ্গেও দিশানীর দারুণ সম্পর্ক। তিন ভাই মহাক্ষয়, উষ্মে এবং নমশীর তাকে সব সময় আগলে বড় করেছেন। মায়েরও স্নেহ পেয়েছেন সব সময়।

    সম্প্রতি খবর প্রকাশিত হয়েছে, সদ্য যৌবনে পা দেওয়া দিশানী এবার সিনেমাকেই নিজের ধ্যানজ্ঞান করতে চান। রক্তে হয়ত অভিনয় নেই, তবে বেড়ে উঠেছেন তো সেই পরিবেশেই। তাই বলিউডে তিনি আগামী দিনের লম্বা দৌড়ের ঘোড়া হতে পারেন বলে মনে করছে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি।

    দিশানী পড়াশুনাও করছেন নিউইয়র্ক ফিল্ম অ্যাকাডেমিতে। ইদানিং সোশ্যাল মিডিয়ায়ও বেশ অ্যাক্টিভ হয়েছেন তিনি। ভারতীয় মিডিয়া বলছে, শিগগিরই পর্দায় দেখা যাবে এই মিঠুন কন্যাকে।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755