• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ঢাকা দক্ষিণে মেয়র পদে আ.লীগের প্রার্থী হিসেবে গোপালগঞ্জের কৃতি সন্তান শেখ তাপস চূড়ান্ত

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৯:২৭ অপরাহ্ণ

    ঢাকা দক্ষিণে মেয়র পদে আ.লীগের প্রার্থী হিসেবে গোপালগঞ্জের কৃতি সন্তান শেখ তাপস চূড়ান্ত

    ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী করা হয়েছে ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপসকে। শেখ ফজলে নূর তাপস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মণির ছোট ছেলে।


    শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় গণভবনে স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।


    গোপালগঞ্জের কৃতি সন্তান শেখ ফজলে নূর তাপস বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য সচিব। ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এমপি বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে আইন প্রণেতা হিসেবেও ভূমিকা রাখছেন। দ্বিতীয় বারের মতো তিনি ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

    শেখ ফজলে নূর তাপসের বাবা শেখ ফজলুল হক মণি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে এবং বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অন্যতম প্রধান গেরিলা বাহিনী মুজিব বাহিনী তার নির্দেশে ও প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে গঠিত এবং পরিচালিত হয়। তার সম্পাদনায় সাপ্তাহিক বাংলার বাণী পত্রিকা দৈনিকে রূপান্তরিত হয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কালরাতে ঘাতকের গুলিতে বাবা শেখ ফজলুল হক মণিসহ অন্তঃসত্ত্বা মা আরজু মণিকে হারান অবুঝ দুই শিশু শেখ ফজলে শামস পরশ (৬) ও শেখ ফজলে নূর তাপস (৪)।

    এক সাক্ষাৎকারে গণমাধ্যমের কাছে ব্যারিস্টার তাপস বলেন, ‘চাচা আমাকে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন আইন বিষয়ে পড়ার জন্য। আমার ইচ্ছা ছিল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার, সাইন্স খুব ভালো লাগত কিন্তু চাচা আমাকে আইন বিষয়ে লেখাপড়া করতে অনুপ্রাণিত করেছেন। পরবর্তীতে আমি সেটা উপলব্ধি করতে পেরেছি। আইন বিষয়ে পড়ালেখা করলে এবং আইন পেশায় আসলে হয়তো আমার সুযোগ আসতে পারে বাবার হত্যার বিচারের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার। সেই সুযোগ আমি পেয়েছি।’

    বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার আইনজীবী হিসেবে কাজ করতে গিয়ে নিজের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যেও ফেলেছেন আওয়ামী লীগ আইনজীবী পরিষদের সদস্য সচিব শেখ ফজলে নূর তাপস। দু’বার তিনি হামলার শিকার হয়েছেন। পুরানা পল্টনের বাংলার বাণী অফিসে তার ওপর সবচেয়ে বড় হামলার ঘটনা ঘটে। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার রায় ঘোষণার আগেই ওই হামলার পরিকল্পনা করা হয়। অল্পের জন্য তিনি প্রাণে বেঁচে যান। এরপর হাজারীবাগের পার্কের মধ্যে দ্বিতীয় হামলার শিকার হন তিনি। এ বিষয়ে তাপস বলেন, ‘আমি মনে করি প্রতিটি ঘটনাই একই সূত্রে গাথা। বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছে তাদেরই প্রচেষ্টা এটা। তাদের প্রচেষ্টা এখনও আছে, ষড়যন্ত্র এখনও চলছে।’

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673