• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    তাঁতী লীগের কমিটি পুনর্গঠনের দাবি

    নিজস্ব প্রতিবেদক: | ৩১ জুলাই ২০১৭ | ১০:৫৯ অপরাহ্ণ

    তাঁতী লীগের কমিটি পুনর্গঠনের দাবি

    বাংলাদেশ তাঁতী লীগের কমিটি পুনর্গঠনের দাবি জানিয়েছেন সংগঠনের সাবেক আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা এনাজুর রহমান চৌধুরী। গতকাল বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ দাবি জানান।


    সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য তিনি অভিযোগ করে বলেন, বাংলাদেশ তাঁতী লীগে নির্বাহী কমিটিতে যুদ্ধাপরাধী জামায়াত, বিএনপি, পিডিপি ও ফ্রিডম পার্টির লোকজনদেরকে অন্তর্ভুক্তি করা হয়েছে। এসব লোকজনকে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে পদ পদবী দেয়া হয়। এতে করে তাঁতী লীগের ত্যাগী ও যোগ্য নেতাকর্মীদের পদ না দিয়ে হতাশা সৃষ্টি করেন।

    ajkerograbani.com

    তিনি বলেন, এ সাংবাদিক সম্মেলন কোনো কমিটি ও শীর্ষ নেতৃবৃন্দের বিপক্ষে নয় বরং অনুপ্রবেশকারী ও যুুদ্ধাপরাধী জামায়াত বিএনপি’র চক্রের গভীর ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যিনি নিজেই তাঁতী সমিতি প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৬৫ সালে তিনি অবহেলিত তাঁতীদের দুঃখ-দুর্দশা উপলব্ধি করেছিলেন। ১৯৭৫ সালে স্বপরিবারে শহীদ হলেন ঠিক তখনই তাঁতী সমাজ আবারও অভিভাবক শূন্য হয়ে পড়ে। পরবর্তীতে জাতির পিতার কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশে আসার পর আশার আলো দেখছে তাঁতী সমাজ। তিনি বলেন, ২০০২ সালে তাঁতী সমিতি তথা তৎকালীন তাঁতী লীগকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সহযোগী সংগঠন হিসেবে মর্যাদা দেন ও অন্তর্ভূক্ত করেন। ২০০৩ সালে একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করেন। কিন্তু দুঃখের বিষয় সেই স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল অযোগ্য নেতৃবৃন্দের কারণে। ২০১৭ সালে এসে জননেত্রী শেখ হাসিনা পিতৃদায় মুক্ত হতে চাইলেন, তিনি উপলব্ধি করলেন প্রকৃত সময় এসেছে তাঁতী লীগকে ন্যায় সংগঠিত করার। গত ১৯ সে মার্চ ২০১৭ইং প্রায় ১০ হাজার নেতাকর্মী নিয়ে উৎসবমুখর সম্মেলন হলো। উক্ত সম্মেলনে সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সেই দিন ৬ জন সভাপতি ও ৭ জন সাধারণ সম্পাদক প্রার্থিতার জন্য ৭ জনের নাম লেখা হয়। প্রায় ৪ মাস অতিবাহিত হলো নতুন কমিটি আসতে।

    তিনি বলেন, গত ২১ জুলাই শনিবার সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের স্বাক্ষরিত জাতীয় কমিটি অনুমোদন হয়। ২টি পদ শূন্য রেখে ৯৭টি পদ ঘোষণা করা হয়। ৬ মাস আগেও অনুমোদিত মহানগর কমিটি ভেঙে দিয়ে ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে উত্তর, দক্ষিণ কমিটি গঠন করা হয়। আগের কমিটির ত্যাগী ও পরিশ্রমী নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে কোনো প্রকার আলাপ আলোচনা ছাড়াই ১ সপ্তাহের মধ্যে নতুন কমিটি দেয়া হয়। যাতে জামায়াত, বিএনপি, পিডিপি ফ্রিডম পার্টির একাধিক সদস্যদেরকে জাতীয় কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদে পুরসৃ্কত করা হয়।

    তিনি আরো বলেন, এই কমিটি ঘোষণার পরপরই শীর্ষ নেতৃবৃন্দের কাছে গিয়ে কারণ জানতে চাইলে তারা সময়ক্ষেপণ করছেন। আমরা সচেতন তাঁতী সমাজ আর আশ্বাস নয় এসব বসন্তের কোকিল চেতনার শত্রুদের কোনো ভাবে মেনে নেবো না। পদ পদবী নেই, শুধু চিহ্নিতদের বহিষ্কার। যোগ্য ত্যাগী নেতাদের নিয়ে তাঁতী লীগের পুনর্গঠন চাই।

    সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এনাজুর রহমান চৌধুরী, মীর্জা মাহবুব বেগ (বাচ্চু), মো. মনির হোসেন, এম এ রাশেদ, আসাদুর রহমান মিথুন, জালাল উদ্দিন রানাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755