বৃহস্পতিবার, জুন ১৮, ২০২০

‘দেশে দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে করোনা নির্মূল সম্ভব নয়’

ডেস্ক   |   বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০২০ | প্রিন্ট  

‘দেশে দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে করোনা নির্মূল সম্ভব নয়’

নভেল করোনাভাইরাস তথা কোভিড-১৯ বাংলাদেশ থেকে আগামী ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে নির্মূল করা সম্ভব নয়। এমনকি এই ভাইরাসটি নির্মূলে আরও বেশি সময় লাগতে পারে বলেও মনে করছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।বৃহস্পতিবার দুপুরে করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এসে তিনি একথা বলেন।
আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুসারে আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে করোনাভাইরাস নির্মূল করা সম্ভব নয়। বাংলাদেশ থেকে করোনাভাইরাস পুরোপুরি দূর করতে ২ থেকে ৩ বছর কিংবা আরও বেশি সময়ও লাগতে পারে।’ তবে নির্মূলে সময় লাগলেও দেশে কোভিড-১৯ সংক্রমণের হার ক্রমান্বয়ে কমে আসতে পারে মনে করছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।
বুধবার সকালে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে ডিজি হেলথকে পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেসম্পর্কে আলোকপাত করে আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা এখন দীর্ঘ মেয়াদে করোনাভাইরাস মোকাবেলার মতো সক্ষমতা গড়ে তোলার কাজ করছি।’
‘সম্প্রতি ২ হাজার ডাক্তার ও ৫ হাজার নার্সকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আরও মেডিকেল টেকনোলজিস্টের নিয়োগ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। শিগগিরই তাদের নিয়োগ দেওয়া হবে’-যোগ করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রধান।
দেশের প্রতিটি জেলায় করোনাভাইরাস পরীক্ষা নিশ্চিত করার জন্য আরটিপিসিআর ল্যাব স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এছাড়া উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ পরীক্ষার ব্যবস্থা নিশ্চিত করার লক্ষ্যও রয়েছে।
এসব বিষয়ে আলোকপাত করে আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘প্রতিটি জেলার হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যেও কাজ চলছে। জেলা পর্যায় পর্যন্ত সব সরকারি হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন সম্প্রসারণ করা হচ্ছে।’
কোনো রোগীই যেন চিকিৎসা পাওয়া থেকে বঞ্চিত না হয় সেজন্য সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোর সমন্বয় করে কাজ করা হচ্ছে বলেও জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।
তিনি বলেন, ‘যাতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হোক বা না হোক কোনো রোগীই যেন চিকিৎসা ব্যবস্থা থেকে বঞ্চিত না হয়। বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার ক্ষেত্রে খরচের ব্যাপারটিও সমন্বয় করার চেষ্টা চলছে।’
করোনাভাইরাস সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে আসা রোগীদের দ্রুত চিকিৎসা দেওয়ার জন্য চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, ‘করোনাভাইরাস টেস্টের ফলাফলের জন্য আপনারা বসে থাকবেন না। কাউকে করোনাভাইরাস আক্রান্ত মনে হলে সঙ্গে সঙ্গে তার চিকিৎসা শুরু করে দিন।’
এসময় করোনাভাইরাস দেশ থেকে সম্পূর্ণ নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত প্রত্যেককে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার এবং যাদের উচ্চ রক্তচাপ ডায়বেটিস ও শ্বাসকষ্ট আছে তাদের আলাদাভাবে সাবধান থাকার কথা বলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এই প্রধান কর্তা।


Posted ৯:৩৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি) মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১২১৭০৭৭১

E-mail: [email protected] | [email protected]