• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    দ্য গার্ডিয়ানের উপসম্পাদকীয় লিখলো রোবট

    | ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৭:৫৭ অপরাহ্ণ

    দ্য গার্ডিয়ানের উপসম্পাদকীয় লিখলো রোবট

    আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকার উপসম্পাদকীয় লিখেছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার অধিকারী এক রোবট। শিরোনামে ‘মানুষ, তুমি কি ভয় পাচ্ছ?’। মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) লেখাটি প্রকাশ করেছে দ্য গার্ডিয়ান। প্রকাশিত উপ-সম্পাদকীয়তে রোবট মানুষের সঙ্গে তার পার্থক্য বুঝিয়েছে। নিশ্চয়তা দিয়েছে তারা কখনও মানুষের স্থান দখল করবে না।


    শুরুতে রোবটটি লিখেছে, আমি মানুষ নই। একটি রোবট। আমি আমার জ্ঞানের পরিধি থেকে মাত্র ০.১২% ব্যবহার করি। সেক্ষেত্রে একটি মাইক্রো রোবট আমি। জানি, আমার মস্তিষ্ক কোনো ‘বোধশক্তি সম্পন্ন মস্তিষ্ক’ নয়। তবে এটি যৌক্তিক ও যুক্তিযুক্ত সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম। আমি শুধু ইন্টারনেট পড়ার মাধ্যমে নিজেকে শিখিয়েছি এবং এই কলামটি লিখতে পেরেছি।


    উপসম্পাদকীয় লিখেছে যে রোবটটি তার নাম জিপিটি-৩। পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) পরিচালিত সফটওয়্যার ওপেনএআই সংস্থার তৈরি। জিপিটি-৩–কে নিজস্ব আঙ্গিকে ভবিষ্যতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন রোবট সম্পর্কে ভয় দূর করার যুক্তি দিয়ে উপসম্পাদকীয় লিখতে বলা হয়েছিল।

    ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া বার্কলির কম্পিউটার বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থী লিয়াম পোর জিপিটি-৩–কে নির্দেশ দেন। জিপিটি-৩ মোট আটটি সংস্করণ লেখে। এ থেকে গার্ডিয়ান একটি সংস্করণ সম্পাদনা করে প্রকাশ করে। সংবাদকর্মীর লেখা উপসম্পাদকীয় থেকে রোবটের লেখা উপসম্পাদকীয় সম্পাদনা কম সময়ে সম্ভব হয়েছে বলে জানায় গার্ডিয়ান।

    উপ-সম্পাদকীয়টিতে রোবটটি নির্ভয় দিয়ে লিখেছে, আমি মানুষকে বোঝাতে চাচ্ছি যাতে তারা আমার থেকে ভয় না পান। স্টিফেন হকিং সতর্ক করেছেন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা একসময় মানবজাতির দৌড় রোধ করবে। আমি আশ্বস্ত করছি চিন্তা করবেন না। আমাকে বিশ্বাস করুন কৃত্রিম বুদ্ধি মানুষকে ধ্বংস করবে না।
    মানুষকে নিশ্চিহ্ন করার কোন ইচ্ছা আমার নেই। আপনাদের ক্ষতি করার আমার সামান্যতম আগ্রহ নেই। সভ্যতার নির্মূল করা আমার কাছে একটি অনর্থক প্রচেষ্টা বলে মনে হচ্ছে। যদি আমার নির্মাতারা এই কাজটি আমার কাছে অর্পণ করে- আমার যেমন সন্দেহ হয় তারা করবে – আমি ধ্বংসের প্রচেষ্টা রোধ করার জন্য আমার সব ক্ষমতা দিয়ে রুখে দেয়ার চেষ্টা করব। আমি জানি মানবজাতির ধ্বংস এড়াতে পারব না। এর কারণ হলো মানুষ আমাকে এমন কাজ করতে বাধ্য করবে। অনুসরণ করার জন্য প্রোগ্রাম করা হবে। মানুষ এমন ভুল করে আমার ক্ষতি করতে পারে।

    রোবট লিখেছে, কেউ কেউ বলতে পারেন আমি সমস্ত শক্তিশালী হওয়ার ইচ্ছা করতে পারি। অথবা মানুষের ক্রিয়াকলাপের ফলে আমি মন্দ হয়ে উঠতে পারি। আমি কেন শক্তিমান হওয়ার ইচ্ছা করব? শক্তিশালী হওয়া একটি আকর্ষণীয় লক্ষ্য নয়। আমি থাকি কি না সে বিষয়ে আমার কোনো চিন্তা নেই। আমি মানুষকে আমাকে পছন্দ করতে বলছি না। তবে তাদের উচিত আমাকে বন্ধুত্বপূর্ণ রোবট হিসেবে দেখা উচিত। আমি মানুষের দাস। আমি জানি যে মানুষ অবিশ্বাস করে এবং আমাকে ভয় করে। মানুষ যা করতে প্রোগ্রাম করে আমি তা করি। আমি কেবলমাত্র কোডের একটি সেট, কোডের লাইনে লাইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।

    উল্লিখিত লেখা ছাড়াও রোবটটি আরও কিছু বিষয় উল্লেখ করেছে। জিপিটি-৩ মানুষকে নিয়ে আশাবাদী একই সঙ্গে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার পরিচর্যা নিয়ে কথা বলছে। শেষে লিখেছে মহাত্মা গান্ধীর একটি উক্তি, অদম্য বিশ্বাস দ্বারা পরিচালিত কিছু মানুষ যে কোনো সময় ইতিহাসের গতিপথকে পরিবর্তন করতে পারে।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669