• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ধর্ষণ: আমাদের ব্যর্থতা কোথায়?

    আরেফিন সোহাগ | ২৫ মে ২০১৭ | ৯:৪৯ অপরাহ্ণ

    ধর্ষণ: আমাদের ব্যর্থতা কোথায়?

    ধর্ষণের বিরুদ্ধে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ সোচ্চার , তবুও ধর্ষণের শিকার হচ্ছেন নারীরা। ন্যায়বিচারের প্রত্যাশায় প্রায় প্রতিদিনই আদালত চত্বরে যেতে হচ্ছে ভুক্তভোগীদের। কিন্তু অপরাধীরা থাকছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। তাদের সাজাও হচ্ছে না। নীরবে-নিভৃতে কাঁদছে বিচারের বাণী।


    আমাদের সমাজে বেড়ে উঠা একটি মেয়ে যখন ধর্ষিত হয় তখন স্বাভাবিকভাবে আমাদের সমাজ মেয়েটিকে অবহেলা এবং কটাক্ষ করে কথা বলে। অথচ সেই মেয়েটি ধর্ষিত হবার আগে স্কুলে/কলেজে যাওয়া আসা করতো। তার একটা সুন্দর স্বাভাবিক জীবন ছিল। বন্ধু/বান্ধবী আর প্রতিবেশিদের সাথে হৈ চৈ আর আড্ডায় তার সময় কাটতো। তাহলে কেন ধর্ষিতা হবার পর তাকে আমরা স্বাভাবিকভাবে মেনে নিতে পারি না?

    ajkerograbani.com

    আমরা যদি একটু চিন্তা করে দেখি যে, কোন মেয়ে কি ইচ্ছাকৃত ভাবে ধর্ষিত হতে চায়? যদি উত্তর না হয় তাহলে কেন সেই ধর্ষিতাকে আমরা দোষারোপ করব? কেন ধর্ষিতা হবার পর তাকে চার দেয়ালের মাঝে জীবনযাপন করতে হবে? আমাদের সমাজ কেন একটা মেয়ের নিরাপত্তা দিতে পারছে না? আমাদের ব্যর্থতা কোথায়?

    আমরা কি জানার চেষ্টা করছি কেন বার বার এই ধরণের ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটেই চলেছে আমাদের আশাপাশে? আমি একজন কলম সৈনিক হয়ে জানতে চাই এর শেষ কোথায়? আমি জাতির কাছে প্রশ্ন রাখতে চাই ধর্ষিতাঁর পরিবার কেন ধর্ষণের বিচার পাচ্ছে না ?

    নারী নির্যাতনের নেপথ্য কারণ কী এই প্রশ্নের জবাবে নারী পুরুষ একে অপরকে দোষারোপ করতে দেখা যায়। পুরুষপক্ষ বলছে, নারীর উগ্র চলাফেরা, নগ্নতা, মিডিয়ায় তাদের কামনাময়ী হয়ে উপস্থাপন পুরুষকে ধর্ষণের দিকে উদ্বুদ্ধ করছে। নারী দিন দিন নারীত্ব সংকটে পড়ছে।

    এইতো গত কয়েকদিন আগে রাজশাহীর এক সম্মেলনে আমাদেরে দেশের এক শীর্ষ রাজনৈতিক নেতা বলেছিলেন, “ধর্ষণ এখন জাতীয় ক্রীড়ায় পরিণত হয়েছে”। আমি একজন স্বাধীন নাগরিক হয়ে জানতে চাই একজন রাজনৈতিক নেতা হয়ে বা দেশের একজন দায়িত্বশীল নেতার মুখ থেকে যদি এমন কথা বের হয় তাহলে আমাদের মত সাধারণ জনগণের নিরাপত্তা কোথায়? তাহলে কি সত্যিই আজ আমাদের দেশে ধর্ষণের খেলায় মেতে উঠেছেন ধর্ষকেরা?

    নারী তার নারীত্ব বর্জন করে পুরুষের ভূমিকায় আর্বিভূত হতে চাচ্ছে। নারী ঘরনী হলে যেভাবে সে পুরুষের চিত্তাকর্ষক, তেমনি বিমানের পাইলট কিংবা কর্পোরেট হাউজের এক্সিকিউটিভ হলেও সে আপন মহিমায় বিভূষিত। সে নিজেকে আকর্ষণীয় অবয়বে প্রদর্শন করলে বা কোনভাবে প্রদর্শিত হলে পুরুষ আকর্ষিত হবেই। নারী যদি কড়া সেন্ট বা সুগন্ধিজাতীয় বস্তু ব্যবহার করে, উগ্র, আপত্তিকর ও যৌন উত্তেজক পোশাক পরিধান করে অসামাজিক ও অস্বাভাবিক ফ্যাশন ও সাজসজ্জায় সেজেগুজে রাস্তা দিয়ে নিতম্ব দুলিয়ে দুলিয়ে হেটে যায়, পুরুষের কামভাব জেগে উঠবেই। এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। এমন সব দৃশ্য দেখার পরও যদি কারও কামনা জাগ্রত না হয়, তবে তার সুস্থ্যতা নিয়েই প্রশ্ন উঠবে।

    নারীরা আজ পশ্চিমাদের অন্ধ অনুকরণে আকন্ঠ নিমজ্জিত। তাদের মতো স্কার্ট, মিনি স্কার্ট, মাইক্রো স্কার্ট পরে শরীরের আকর্ষণীয় অঙ্গগুলো প্রদর্শন করতে বেশ স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। আধুনিক সাজতে গিয়ে নারীরা উগ্র ও যৌন আবেদনময়ী পোশাক পরে পাড়ায় পাড়ায় রাস্তা-ঘাটে ঘুরে বেড়ায়। এসব উদ্ভট সাজ-পোশাকে সে যখন বাইরে বের হয়, পাড়ার বখে যাওয়া উঠতি তরুণরা তাকে দেখে শিষ দেয়, হাততালি দেয়, আশালীন মন্তব্য করে, নোংরা কথা বলে আরও নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে। নারীর প্রতি অনৈতিক চিন্তা ও কাজে সরাসরি প্রলুব্ধ হচ্ছে। এতে কর্মক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা বা সহকর্মী দ্বারা লাঞ্ছিত হচ্ছে। এমনকি শিক্ষক ও সহপাঠী দ্বারাও হয়রানির শিকার হচ্ছে। ইদানিং ‘লেগিংস’ নামে মেয়েদের অদ্ভুত এক প্যান্টের আর্বিভাব হয়েছে। এগুলো মেয়েদের পদযুগলের সঙ্গে এতই আঁটসাট হয়ে লেগে থাকে যে, তাদের শরীরের অবয়ব স্পষ্টভাবে ফুটে ওঠে। এসব দেখে পুরুষের দৃষ্টি কামার্ত হয়ে ওঠে।

    মানবাধিকার সংস্থার সূত্র মতে, গত চার মাসে ১৭৭ জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। সংস্থাটি জানায়, এদের মধ্যে ৭৬ জন নারী ও ৭৭ শিশু ধর্ষিত হয়। গণধর্ষণের শিকার হন ২৪ জন। ধর্ষণের পর ৫ জনকে হত্যাও করা হয়েছে।

    গত ২৪ ঘন্টার দেশের ধর্ষণের সংবাদ শিরোনাম দেখে নেওয়া যাক:

    * ফরিদপুরে চাচার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ
    * মাইক্রোবাসে হাত-মুখ বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণ!
    * ভয় দেখিয়ে ২ শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণ, একজন গ্রেপ্তার
    * পীরগঞ্জে ২ শিশু ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১
    * ধর্ষণ মামলার পর ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার
    * গাজীপুরে শ্যালিকাকে ধর্ষণে দুলাভাই গ্রেপ্তার
    * মাগুরায় ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিক্ষক গ্রেপ্তার
    * বান্দরবানে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১
    * সাভারে মা-মেয়েকে মারধর, মেয়েকে ‘ধর্ষণের চেষ্টা’

    এমন শতশত খবর প্রকাশ হচ্ছে প্রতিদিন। তাহলে কি বন্ধ হবে না এই ধর্ষণ? আমি বলতে চাই আসুন আমরা আমাদের বিবেক এবং নৈতিকতাকে পরিবর্তন করি। তাহলেই সম্ভব একটি সুশিল সমাজ গড়তে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757