• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে বহিষ্কারের সংখ্যা

    অনলাইন ডেস্ক | ০৪ মে ২০১৭ | ৫:০৩ অপরাহ্ণ

    ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে বহিষ্কারের সংখ্যা

    মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষায় ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে বহিষ্কারের সংখ্যা। গত ছয় বছরের ফল পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, প্রায় ক্রমান্বয়েই বেড়েছে বহিষ্কারের হার।


    ছয় বছর আগে ২০১২ সালে ৭৩২ শিক্ষার্থী বহিষ্কৃত হয়েছিল। ২০১৩ সালে এই সংখ্যা কমে দাঁড়ায় ৬৯২ জনে। এর পরে ২০১৪ সালে ৭১২ জন, ২০১৫ সালে ৮৭৪, ২০১৬ সালে ৮১১ শিক্ষার্থী বহিষ্কৃত হয়েছিল। ২০১৭ সালে এসে এই সংখ্যা দাঁড়ায় এক হাজার ১৪৩ জনে।

    ajkerograbani.com

    চলতি বছরে আটটি শিক্ষা বোর্ডে মোট ৫০৮ শিক্ষার্থী বহিষ্কৃত হয়েছে। সর্বোচ্চ ঢাকা বোর্ডে ২৩১ জন। আর সিলেট শিক্ষা বোর্ডে সর্বনিম্ন পাঁচজন শিক্ষার্থী বহিষ্কৃত হয়। এ ছাড়া মাদ্রাসা বোর্ডে ৪৪১ জন ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে ১৯৪ শিক্ষার্থী বহিষ্কৃত হয়েছে।

    আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলের অনুলিপি তুলে দেন। এ সময় শিক্ষা বোর্ড ও মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

    এবারের ফলে দেখা যায়, ১০ শিক্ষা বোর্ডে গড়ে পাসের হার ৮০ দশমিক ৩৫। গত বছর এ পাসের হার ছিল ৮৮ দশমিক ২৯ ভাগ। এবার ৭ দশমিক ৯৪ ভাগ কম শিক্ষার্থী পাস করেছে।

    অন্যদিকে, গত বছর জিপিএ ৫ পেয়েছিল এক লাখ নয় হাজার ৭৬১ জন। আর এ বছর জিপিএ ৫ পেয়েছে এক লাখ চার হাজার ৭৬১ জন। অর্থাৎ গত বছরের চেয়ে এবার পাঁচ হাজার শিক্ষার্থী কম জিপিএ ৫ পেয়েছে।

    ফল প্রকাশের পর শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ জানিয়েছেন, গতবারের চেয়ে এ বছর ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের পাসের হার বেশি।

    ফলাফলে আরো বলা হয়েছে, এ বছর মোট পাস করেছে ১৪ লাখ ৩১ হাজার ৭২২ জন।

    এবার সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৮১ দশমিক ২১ ভাগ, মাদ্রাসায় ৭৬ দশমিক ২০ ভাগ এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭৮ দশমিক ৬৯ ভাগ।

    দুপুর সাড়ে ১২টায় শিক্ষামন্ত্রী সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশ করবেন।

    এ বছর দেশের ১০টি শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় ১৭ লাখ ৮৬ হাজার ৬১৩ পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। গত বছরের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা এক লাখ ৩৫ হাজার ৯০ জন বেশি।

    তথ্য কর্মকর্তা জানান, এ বছর মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে নয় লাখ ১০ হাজার ৫০১ ছাত্র ও আট লাখ ৭৬ হাজার ১১২ জন ছাত্রী।

    দেশের ১০টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলতি বছরের ২ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে ২ মার্চ পর্যন্ত চলে এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা ৪ মার্চ শুরু হয়ে ১১ মার্চ শেষ হয়।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757