• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    নারীদের জন্য ভয়ঙ্কর যে দশ দেশ!

    অনলাইন ডেস্ক | ১৬ আগস্ট ২০১৭ | ২:০৬ অপরাহ্ণ

    নারীদের জন্য ভয়ঙ্কর যে দশ দেশ!

    আধুনিক সময়ে এসেও বিশ্বের এমন কিছু দেশ রয়েছে যেখানে কোন নারীরাই নিরাপদ নয়! বাংলাদেশেও নারীরা পথেঘাটে, বাসে, নিজ বাসায় এখনো পর্যন্ত বিভিন্নভাবে হয়রানি এবং অত্যাচারের শিকার হয়ে থাকেন। তবে সঠিক আইনের হস্তক্ষেপে এই সকল সমস্যা সুন্দর করেই সমাধান করা সম্ভব। আশার কথা এতটুকুই, চূড়ান্ত অনিরাপদ এই ১০ টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ নেই। তবে কতদিনের জন্যে নেই সেটাও একটা প্রশ্ন বটে!
    বিশ্বের যে ১০ টি দেশ নারীদের জন্য ভয়াবহ অনিরাপদ, সেখানে নারীরা আসলেও কতোটা অনিরাপদ এবং কতোটা মানবেতর জীবনযাপন করছেন সেটা জেনে নিন।


    কলম্বিয়া:
    এটিই সম্ভবত চবচেয়ে বেশি ভয়ঙ্কর দেশ, যেখানে মেয়েদের উপর সবচেয়ে বেশি এসিড নিক্ষেপ করা হয় এবং তারা কেউই ন্যায় বিচার পান না। ২০১৫ সাথে নারীদের ঘরোয়া নির্যাতনের প্রায় পয়তাল্লিশ হাজার (৪৫,০০০) কেস নথিবদ্ধ করা হয়েছিল।

    ajkerograbani.com

    আফগানিস্তান:
    এই দেশের প্রায় সাতাশি (৮৭%) শতাংশ মেয়েরাই নিরক্ষন এবং প্রায় ৭০%-৮০% মেয়েদের ১৫-১৭ বছরের মধ্যে জোর করে বিয়ে দিয়ে দেওয়া হয়। মাতৃ মৃত্যুর হার এবং ঘরোয়া অত্যাচারের পরিমান এইদেশে অতিরিক্ত বেশী। যার অনুপাত এক লাখের (১০০,০০০) মধ্যে চারশত ৪০০।

    ইন্ডিয়া
    বিশ্বের অন্যতম ঘনবসতির দেশ ভারত হলেও এই দেশের মেয়েদের নিরাপত্তার অবস্থা খুবই খারাপ। কারণ অনেক বেশি মাত্রায় গনধর্ষণ, ঘরোয়া অত্যাচার, মানব পাচার এবং প্রচুর পরিমাণে মেয়ে শিশু হত্যার ঘটনা। পরিসংখ্যান মতে, মেয়ে শিশু হত্যার কেস ৫০ মিলিয়নের বেশী ছাড়িয়ে গেছে বিগত ৩০ বছরে!
    ৪/ দ্যা ডোমেষ্টিক রিপাবলিক অফ কঙ্গো:
    গবেষণা থেকে জানা যায় যে, লিঙ্গবৈষম্য মূলক উৎপীড়ন এই দেশে সবচেয়ে বেশি। আনুমানিক ১১৫০ জন মেয়ে ধর্ষনের শিকার হয় প্রতিদিন। এক বছরে যা এসে দাঁড়ায় ৪২০,০০০ জনে! স্বাথ্যসেবাও খুম কম পাওয়া যায় এখানে। প্রায় ৫৭% গর্ভবতী নারীরা রক্তস্বল্পতায় ভুগে থাকেন।

    সোমালিয়া:
    এটি এমন একটি দেশে যেখানে আইনের শাসন খুবই শিথিল। এবং এখানে উচ্চ মাতৃমৃত্যুর হার, বাল্যবিবাহ এবং মেয়েদের প্রজনন অঙ্গচ্ছেদ প্রতিদিনের স্বাভাবিক ঘটনা।

    পাকিস্তান
    অল্প বয়সে বিয়ে, জোরপূর্বক বিয়ে দেওয়া এবং পাথর নিক্ষেপ করে শাস্তি প্রদান করা এই দেশের নারীদের জন্য অন্যতম উদ্বেগ এর ব্যপার। এই দেশ তার নারীদের জন্যে অনিরাপদ কারণ, প্রতি বছর এই দেশে ১০০০ এর বেশী নারী অনার কিলিং এর শিকার হয়ে থাকেন। এবং প্রায় ৯০% নারীরা ঘরোয়া অত্যাচারের সম্মুখীন হয়ে থাকেন।

    কেনিয়া
    কেনিয়ার কৃষিখাত থেকে বেশ ভালো পরিমাণে টাকা আয় হলেও এই দেশের নারীরা তার খুব অল্পই ভোগ করতে পারেন। নারীদের শিক্ষার হার ভয়ঙ্কর রকম কম এবং যে কারণে তাদের খুবই নিকৃষ্ট ভাবা হয়। যৌন জীবনে যেহেতু কোন নিয়ম নেই এবং বাঁধা নেই সেহেতু এইডস এর সমস্যা মেয়েদের মধ্যে প্রকট আকারে দেখা যায়।

    ব্রাজিল
    এক গবেষণায় দেখা গেছে, এই দেশে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজন নারী যৌন হয়রানির সম্মুখীন হন এবং প্রতি ২ ঘণ্টায় একজন নারীকে খুন করা হয়! নারীরা তাদের সন্তান নেওয়া অথবা না নেওয়ার ব্যপারে কোন মতামত জানাতে পারবেন না। এবং এই দেশে গর্ভপাতকে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। শুধুমাত্র ধর্ষণ এর কারনে গর্ভবতী হলে অথবা অতিরিক্ত শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে গর্ভপাত করা যাবে। যে সকল নারী এই নিয়মের বাইরে গিয়ে গর্ভপাত করান, তাদের তিন বছরের জন্য কারাদন্ড ভোগ করতে হয়।

    মিশর:
    যৌন হয়রানি এবং লাঞ্চনা এই দেশে এতোটাই বেশী প্রচলত যে, অনেকসময় বাইরের দেশ থেকে আসা পরিদর্শকদেরও এমন অবস্থার মুখোমুখি হতে হয়। নারীদের এই দেশে সবসময়ই অবহেলার চোখে দেখা হয় যখন তাদের বিয়ের অধিকার, বিবাহবিচ্ছেদ, সন্তানের দেখভাল করা এবং বংশগত উত্তরাধিকারের মতো ব্যপারগুলো আসে।

    মেক্সিকো:
    মেক্সিকোতে ২০১১-২০১২ সালের মধ্যে প্রায় ৪০০০ মেয়ে গুম হয়ে যায়। নারীদের এখানে আইনের সাহায্যেই ছোট করে রাখা হয়। কারণ এই দেশে ঘরোয়া অত্যাচার এবং যৌন অত্যাচারের বিপক্ষে কোন আইন কাজ করে না।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিয়ে করাই তার নেশা!

    ২১ জুলাই ২০১৭

    কে এই নারী, তার বাবা কে?

    ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755