• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ‘নায়ক সবসময় নায়কই থাকে, তাকে ভিলেন বানানো যায় না’

    | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৮:৫৩ পূর্বাহ্ণ

    ‘নায়ক সবসময় নায়কই থাকে, তাকে ভিলেন বানানো যায় না’

    শচীন টেন্ডুলকরকে ভারতীয়রা ক্রিকেটের ঈশ্বর বলে মানে। ঘরে ছবি রেখে রীতিমতো তাকে পুজো করে। শচীন অবসরে গেছেন। তার জায়গা অনেকটাই নিয়ে নিয়েছেন বিরাট কোহলি। বর্তমানে তিনি ভারতের সেরা ক্রিকেটার। কোহলি কিন্তু শচীনের জায়গা ষড়যন্ত্র বা শয়তানি করে দখল করে নেননি। শচীনের প্রস্থানের পর তার যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে জায়গাটায় কোহলি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন ভালো ক্রিকেট খেলে। অসৎ উপায় অবলম্বন করে নয়। ভারতীয় জণগন এখন কোহলির মধ্যেই শচীনের ছায়া দেখে।


    এভাবে প্রতিটি ক্ষেত্রেই বিশেষ কারো জায়গা নিতে চাইলে আগে তার সমান বা কাছাকাছি যোগ্যতা অর্জন করতে হয়। ষড়যন্ত্র আর শয়তানি করে যোগ্য ব্যক্তিদের তারাই সরাতে চায়, যাদের কোনো যোগ্যতা নেই। তারা ভালো করেই জানে, ওই ব্যক্তির সমকক্ষ আমরা কখনোই হতে পারব না, তাই বাঁকা পথ ধরে। কিন্তু ভিলেন কখনো নায়ককে ভিলেন বানাতে পারেনি, পারবেও না। কিছু সমস্যায় পড়লেও নায়ক নায়কই থাকে। ভিলেনদের কুটচাল শেষ পর্যন্ত ধরাই পড়ে যায়। তাদের ভাগ্যে জোটে দর্শকের থু থু।


    তেমনি আরিফুর রহমান দোলন সাহেবকে নিয়ে যে বা যারা কুটচালে মগ্ন, সেসব ভিলেনদের মুখোশও খুব তাড়াতাড়ি উন্মোচিত হবে। তাদের জন্যও আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী, মধুখালীর অসংখ্যা মানুষ মুখ প্রস্তুত করে রাখছে থু থু দেয়ার জন্য। উনাদের উদ্দেশ্যে বলি, আপনারা যদি আরিফুর রহমান দোলন সাহেবের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নামতে চান, সেটা ভালো কথা। মোস্ট ওয়েলকাম। কিন্তু গর্তে বসে ষড়যন্ত্র করে কেন? তার মতো কাজ করে দেখান। কাজের প্রতিযোগিতা করেন। তাতে বরং এলাকার মানুষ উপকৃত হবে।

    আরিফুর রহমান দোলনের বদৌলতে এবং ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় কামারগ্রামে টিটিসির মতো এত বড় একটা সরকারি প্রতিষ্ঠান তৈরি হচ্ছে। যেটা কখনোই কামারগ্রামে হওয়ার কথা ছিল না। তো আপনারা এর চেয়ে ছোট কোনো একটা প্রতিষ্ঠান করে দেখান। তাহলেই না হয় সেটাকে প্রতিযোগিতা বলা যাবে। দোলন সাহেব তার শ্রদ্ধাভাজন মায়ের নামে একটি স্কুল প্রতিষ্ঠা করেছেন, সেখানে আশপাশের বহু বাচ্চা বিনামূল্যে পড়াশোনার সুযোগ পাচ্ছে। আপনারাও এরকম একটা স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন।

    দোলন সাহেবের চেষ্টায় কামারগ্রাম, গোপালপুর, বাজড়া, কুচিয়াগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকায় অনেকগুলো রাস্তা পাকা হয়েছে। মুরোদ থাকলে আপনারা দুইটা রাস্তায় অন্তত ইট বসানোর ব্যবস্থা করে দেখান। যদিও গোপালপুর ইউনিয়নে আলহামদুলিল্লাহ সেরকম কোনো রাস্তা পাবেন না, যেখানে ইটও বসানো লাগবে। এই মহামারি করোনাকালে দোলন সাহেব আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী, মধুখালীর শত শত পরিবারকে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন আল্লাহর রহমতে। আপনারা কয়টা পরিবারে একটা চাল-ডালের বস্তা পাঠিয়েছেন?

    যদি এসব না-ই করে থাকেন, তাহলে আপনাদের আমি প্রতিযোগী বলব না, আপনাদের বলব পাগলা কুকুর। পাগলা কুকুর যেমন রাস্তায় মানুষ পেলে অযথা ধাওয়া করে, আঁচড় কাটে, কামড়ায়, আপনারাও তেমনি পাগলা কুকুরের মতো দোলন সাহেবের পিছু নিয়েছেন। কাপুরুষের মতো আড়ালে বসে থেকে পেছন থেকে ছুরি মারার চেষ্টায় আছেন। কারণ, প্রকাশ্যে এসে দোলন সাহেবের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করার যোগ্যতা বা সাহস কোনোটাই আপনাদের নাই, হবেও না।

    আল্লাহ যখন মানুষ সৃষ্টি করে দুনিয়ায় পাঠানোর কথা ফেরেশতাদের জানিয়েছিলেন, তখন ফেরেশতারা আপত্তি জানিয়েছিলেন। বলেছিলেন, হে আল্লাহ, আপনি আবার এমন কোন জাতি পৃথিবীতে পাঠাবেন, যারা সেখানে গিয়ে হানাহানি করবে, সমাজের মধ্যে ফ্যাসাদ সৃষ্টি করবে। আপনারাই সেই ফ্যাসাদ সৃষ্টিকারী, লেবাসধারী শয়তান। দোলন সাহেব যে এলাকার মানুষের জন্য কাজ করতেছেন, এলাকার জণগন তার মাধ্যমে কিছু পাচ্ছে, তাতেই আপনাদের গাত্রদাহ। আপনাদের মনবাসনা, আমরা যেটা পারি না, সেটা অন্যকেও করতে দেব না।

    আড়ালে থাকা সেই আপনাদের প্রতি অনুরোধ, প্লিজ নিজেদেরকে প্রকাশ করুন। আরিফুর রহমান দোলন সাহেব গত কয়েক বছরে বিভিন্ন এলাকায় যে পরিমাণ উন্নয়ণমূলক কাজ করেছেন, তার ১০ ভাগ অন্তত করে দেখান। এভাবেই তার সঙ্গে প্রতিযোগিতা করুন। এলাকার মানুষকে বঞ্চিত করবেন না। আমরা চাই, আপনারাও কাজ করুন। এভাবে যদি আড়ালে থেকে শয়তানি-ষড়যন্ত্র করেন, আর জণগন যদি আপনাদের না-ই চেনে যে, আপনারা কারা, তাহলে জনপ্রতিনিধি হবেন কীভাবে? আমরা তো আপনাদের চিনে ফেলেছি, এবার এলাকার সবাই চিনুক।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673