• শিরোনাম

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    নৌপথে ভ্রমনের অভিজ্ঞতা

    ডেস্ক | ২৩ আগস্ট ২০১৯ | ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ

    নৌপথে ভ্রমনের অভিজ্ঞতা

    কুরবানি ঈদের ছুটিতে পরিবারের সবাই মিলে দাদি বাড়িতে ঈদ করতে এসেছি।বাড়িতে এলে বাবার সাথে বায়না ধরলাম-সারিয়াকান্দি চরে যাব।
    গত ১০ আগস্ট ২০১৯ সকালবেলা আমরা পরিবারের সবাই মিলে বগুড়া শহর হতে সারিয়াকান্দি কালিতলা ঘাটে গেলাম। সেখানে আগে থেকেই নৌকা প্রস্তুত ছিল। আমরা সকাল নয়টায় নৌকায় উঠলাম এবং নদী পথে রওনা দিলাম চরদিঘাপাড়ায়।

    নদী পথে যেতে খুবই মজাও যেরকম পেয়েছি, তেমন ভয়ও পেয়েছি,আর ভয় পাওয়াটা স্বাভাবিক। আমার জীবনে এই প্রথম নৌকায় উঠা। যা হোক নদীর দুপাশে কাশবন ফুলে ফুলে সাদা,নদীর মাঝে মাঝে চর উঠেছে। সেখানে কেউ ধান লাগাতেছে,কেউ কাশবন কাটছে এবং কেউ মাছ ধরছে। এই মনোরম দৃশ্য দেখে কার না মন ভরে। আমি নৌকাতে বসে খরস্রোতে পানিতে হাত দিয়ে পানি ছিটাতেছি, বাবা বকাঝকা করছে তারপরও আমি দুষ্টামি করছি। আমরা যথা সময়ে চরদিঘাপাড়া পৌছালাম।সেখানকার লোকজন আমাদের ছুটাছুটি করে দেখতে এলো।তাদের ভালবাসা দেখে আমি মুগ্ধ হলাম। তাদের ভালবাসা চিরদিন আমার অন্তরে গেথে থাকবে। ওখানকার ছেলেমেয়েরা বললো আপু নদীতে গোসল করবো,তুমি কি আমাদের সাথে যাবে। আমি ভীতিহীন অবস্হায় নদীতে নামলাম এবং চরে দুপুরের খাবারে যমুনা নদীর হরেক রকম টাটকা মাছ, দেশী মুরগি এবং গরুর দুধ মজা করে খেলাম।


    তারপর আবার নদী পথে পাকুল্লা হতে প্রেম যমুনার ঘাটে পৌছালাম।আমি নৌকায় যে মজা পেয়েছি, তা আমি ক্ষুদ্রজ্ঞানে বুঝাতে পারবো না। সত্যিই এটি একটি আনন্দময় ভ্রমন ছিল। নিরিবিলি পানি পথে,নেই কোন কোলাহল শুধুই পানির ঢেউয়ের ডাক,আকাশটা মনে হয় কোথাও গিয়ে ঠেকেছে। তবে নৌকায় উঠার আগে সাঁতার শিখে নিতে হবে এবং সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

    মালিহা মাহবুব
    ৪র্থ শ্রেণি
    কূর্মিটোলা হাই স্কুল, ঢাকা।

    Comments

    comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী