• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    পদ্মাসেতুর ৬২ শতাংশ সার্বিক অগ্রগতি

    আজকের অগ্রবাণী ডেস্ক | ৩০ জুন ২০১৮ | ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ

    পদ্মাসেতুর ৬২ শতাংশ সার্বিক অগ্রগতি

    দ্রুতগতিয়ে এগিয়ে চলছে পদ্মাসেতু প্রকল্পের কাজ। জাজিরা প্রান্তে পঞ্চম স্প্যান ‘৭ এফ’ বসানোর পর পৌনে ১ কিলোমিটার কাঠামো দৃশ্যমান হয়েছে। সেতুর সার্বিক অগ্রগতি এখন ৬২ শতাংশ।


    ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে সেতুর কাজ শুরু হয়। বর্তমানে সেতুর ১৭০টি পাইল ড্রাইভ সম্পন্ন হয়েছে। সেতুর ১ থেকে ৪২ নম্বর পিলার (খুঁটি) পর্যন্ত মোট পাইল হবে ২৯৪টি। নদীতে ২৬২টি পাইল বসবে। স্প্যান বসানো বাকি ৩৬টি।


    পদ্মাসেতু প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, পানি বাড়তি থাকায় ৬, ৭, ৮ নম্বর পিলারে বর্তমানে কাজ চলছে না। বর্ষা শুরুর আগে ৬ ও ৭ নম্বর পিলারের বটম সেকশন ড্রাইভের কাজ শেষ হয়েছিল। ৯ ও ১২ নম্বর পিলারের পাইল ড্রাইভ কাজ শেষ। ২৬, ২৭, ১০ ও ১১ নম্বর পিলারের কাজ চলছে না। ৩১, ৩২, ৩৩ নম্বর পিলারের পাইল কাজ শেষ পর্যায়ে, পাইল ক্যাপের কাজ শুরু হবে। ৮টি প্লাটফর্ম রয়েছে পাইল ড্রাইভের কাজের জন্য এবং ৮টি প্লাটফর্ম আছে পাইল ক্যাপের। এর মাধ্যমে ১৬টি পিলারের কাজ হচ্ছে। কতগুলোর পাইল ড্রাইভের কাজ চল এবং একই সাথে পাইল ক্যাপের কাজও চলছে।

    পিলার ৯, ১২, ১৩, ১৪, ১৬, ১৭, ২১, ২২, ২৩, ২৪, ২৯, ৩৩, ৩৪, ৩৫, ৩৬ নম্বরের কাজ চলছে বর্তমানে। পদ্মা সেতুর পাইলের কাজে প্রথম দিকে হ্যামারের কারণে কিছুটা কম গতিতে কাজ চলছিল। তবে বর্তমানে ৩টি হ্যামার কাজ করছে প্রতিনিয়ত। সিরিয়ালে থাকা ৬ষ্ঠ স্প্যানটি ৩৬ ও ৩৭ নম্বর পিলারের উপর বসানো হবে। তবে এর আগে যদি কোনো পিলারের কাজ শেষ হয়ে যায় তবে সেখানেই বসবে স্প্যান। ৩ মাস পর খুব দ্রুত স্প্যান ওঠানো হবে কেননা ইতিমধ্যে ১০টি পিলারের কাজ শেষের দিকে।

    আগামী ৪ মাসের মধ্যে আরো ১০টি পিলার প্রস্তুত হবে। ২০১৯ সালের জুনের মধ্যে পদ্মাসেতুর কাজ খুবই দ্রুতভাবে এগিয়ে যাবে বলে আশাবাদী প্রকৌশলীরা।

    পদ্মাসেতুর সহকারী প্রকৌশলী (মূল সেতু) হুমায়ুন কবির জানান, মূল সেতুর সার্বিক অগ্রগতি এখন ৬২ শতাংশ। প্রাকৃতিক কোনো দুর্যোগ দেখা না দিলে খুব দ্রুতই সেতুর কাজ চলবে। মাওয়া কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে ৮টি স্প্যান প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। এসব রং করতে সময় লাগে ১৫ দিন। চীন থেকে স্প্যান আনা হয়েছে ১৫টি যার মধ্যে ৫টি পিলারের উপর বসে গেছে।

    পদ্মাসেতুতে ৫টি হ্যামার আনা হয়েছিল। এর মধ্যে ২টি স্থায়ীভাবে নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ৩৫০০ কিলোজুল, ২৪০০ কিলোজুল ও ১৯০০ কিলোজুল ক্ষমতার তিনটি হ্যামার দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। পৃথিবীতে এত উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন কার্যকর হ্যামার আর নেই বলেও জানান তিনি।

    পদ্মাসেতুর প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীদের চেষ্টায় শুক্রবার পঞ্চম স্প্যান বসানোর মাধ্যমে ৭৫০ মিটার কাঠামো দৃশ্যমান হয়েছে। সামনের দিনগুলোতে সবকিছু অনুকূলে থাকলে আরো কম সময়ে স্প্যান বসানো যাবে।

    ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২টি পিলারের উপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673