• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    পরনিন্দা আল্লাহর কাছে নিন্দনীয়

    মাওলানা মুহম্মাদ আশরাফ আলী | ২১ মার্চ ২০১৭ | ১০:২৫ পূর্বাহ্ণ

    পরনিন্দা আল্লাহর কাছে নিন্দনীয়

    গিবত বা পরনিন্দা আল্লাহর কাছে একটি নিন্দনীয় কাজ। দুনিয়ায় অনেক ভালো কাজ করা সত্ত্বেও গিবতের কারণে কিয়ামতের দিন আল্লাহর কাছে খালি হাতে হাজির হতে হবে। এই একটি মাত্র নিন্দনীয় কাজ থেকে বিরত থাকতে পারলে অন্যান্য আমল কম হলেও বান্দা জান্নাতে প্রবেশ করবে। গিবত বা পরনিন্দা কাকে বলে? এ বিষয়ে হাদিসে এসেছে, একবার রসুল (স.) সাহাবিদের জিজ্ঞাসা করলেন, তোমরা গিবতের পরিচয় জান কি? তারা বললেন, তা আল্লাহ ও তার রসুল সম্যক অবগত। তখন তিনি বললেন, তোমার কোনো ভাই সম্পর্কে এরূপ কথা বলা, যা সে পছন্দ করে না, তাই গিবত। জিজ্ঞাসা করা হলো আমি যা বলি তা আমার ভাইয়ের মধ্যে থাকলেও কি? রসুল (স.) বললেন, তুমি যা বল, তার মধ্যে তা থাকলে তুমি তার গিবত করলে। আর যদি তার মধ্যে তা না থাকে তখন তুমি তার ওপর মিথ্যা অপবাদ করলে। (মুসলিম)।
    হজরত সহল ইবনে সাদ (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেছেন, রসুল (স.) ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি আমার কাছে তার দুই চোয়ালের মধ্যস্থিত বস্তু এবং দুই পায়ের মধ্যস্থিত বস্তুর জিম্মাদার হবে আমি তার জন্য জান্নাতে যাওয়ার জিম্মাদার হব। (বুখারি)। হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) বলেন, রসুল (স.) ইরশাদ করেছেন, কোনো মুসলমানকে গালমন্দ বলা ফাসিকি। আর হত্যা করা কুফরি। (বুখারি, মুসলিম)। এক মুমিন আরেক মুমিনকে কাফির বা ফাসিক বলে ধিক্কার দেওয়া গুরুতর অপরাধ। হজরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেছেন, যে ব্যক্তি তার কোনো মুসলমান ভাইকে কাফির বলবে তা তাদের যে কোনো একজনের ওপর প্রযোজ্য হবে। (বুখারি, মুসলিম)।
    অর্থাৎ যাকে কাফির বলা হয়েছে সে যদি প্রকৃতপক্ষে কাফিরের যোগ্য না হয় তাহলে যে বলেছে সে কাফির হয়ে যাবে। অযথা কাউকে কাফির বা ফাসিক বলার বিরুদ্ধে কঠোরভাবে সতর্ক করা হয়েছে রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের হাদিসে। হজরত আবু জর গিফারি (রা.) বলেন, রসুল (স.) ইরশাদ করেছেন, কোনো ব্যক্তি অন্য ব্যক্তিকে ফাসিক বলবে না এবং কুফরির অপবাদও আরোপ করবে না। কেননা সেই ব্যক্তি তদ্রূপ না হলে ওই অপবাদ আরোপকারীর নিজের ওপর ফিরে আসবে। (বুখারি)। ইসলামী অনুশাসনে কাউকে গালমন্দ করা বা খারাপ কথা বলা কঠিনভাবে নিষিদ্ধ। এ বিষয়ে নবী করিম (সা.) ইরশাদ করেছেন, এমন দুই ব্যক্তি যারা পরস্পর গালমন্দ করে, তখন ওই গালমন্দের পাপ সেই ব্যক্তির ওপরই বর্তাবে, যে প্রথমে গালমন্দ করেছে; যে পর্যন্ত না গালমন্দকৃত ব্যক্তি সীমালঙ্ঘন করে। (মুসলিম)। আল্লাহ আমাদের পরনিন্দার পাপ থেকে হেফাজত করুন।
    লেখক : ইসলামী গবেষক।


    Facebook Comments


    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669