• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    পলাতক ১৯ আসামির কে কোথায়

    অনলাইন ডেস্ক | ২১ আগস্ট ২০১৭ | ১২:২৬ অপরাহ্ণ

    পলাতক ১৯ আসামির কে কোথায়

    বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ২০০৪ সালে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে শেখ হাসিনার সমাবেশে বর্বোরোচিত ও ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার ১৩ বছর পূর্ণ হলো সোমবার। আলোচিত ওই ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দায়ের দুটি মামলার বিচারকাজ এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে।


    আলোচিত মামলা দুটির চার্জশিটে মোট ৫২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। এদের মধ্যে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ১৯ আসামিই বিভিন্ন দেশে পলাতক। তাদের গ্রেপ্তারে ইন্টারপোলের সহায়তা চেয়েছে সরকার।

    ajkerograbani.com

    এছাড়া সাবেক মন্ত্রী ও জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের মানবতাবিরোধী অপরাধে এবং অপর এক মামলায় হরকাতুল জিহাদ প্রধান মুফতি আব্দুল হান্নানের ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। এই মামলায় জামিনে রয়েছেন ৮ আসামি।

    স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতে দলের সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ প্রথম সারির নেতাদের হত্যার উদ্দেশ্যেই এ জঘন্য হামলা চালানো হয়েছিল।

    তিনি বলেন, ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় ১৯ আসামি এখনও পলাতক। তাদের দেশে ফেরাতে সরকার আইনি এবং কূটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

    এই মামলার সঙ্গে সম্পৃক্ত সরকারি কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, ‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচারকাজ এখন শেষ পর্যায়ে। দীর্ঘ প্রত্যাশিত এই মামলার রায় চলতি বছরের মধ্যেই হবে বলে আমরা আশাবাদী।’

    তিনি বলেন, ‘বর্তমানে এ মামলায় আসামি পক্ষের ১৩ জনের সাফাই সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। আসামিপক্ষের আরও ৮/১০ জনের সাফাই সাক্ষ্য নেওয়া হবে। পরে এ মামলায় উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে রায় ঘোষণা করা হবে।’

    মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, ‘এর আগে দু’জন তদন্ত কর্মকর্তাসহ (আইও) ২২৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন ও তাদের আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জেরা সম্পন্ন করেন। এ মামলায় ৪৯১ জনের মধ্যে ২২৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।’

    পলাতক ১৯ আসামির কে কোথায়?

    ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার পলাতক আসামিদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বড় ছেলে ও দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান বর্তমানে লন্ডনে অবস্থান করছেন। তাকে এই মামলার পলাতক আসামি দেখিয়ে লাল তালিকায়ও রেখেছিল আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোল। কিন্তু পরবর্তী তার নাম সরিয়ে নেওয়া হয়।

    পলাতক আসামিদের আরেকজন শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন কায়কোবাদ বর্তমানে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন। তিনি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলায় ইন্টারপোলের লাল তালিকায় আছেন।

    এছাড়া হানিফ এন্টারপ্রাইজের মালিক হানিফ কলকাতায়, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এ টি এম আমিন আমেরিকায়, লে. কর্নেল (অব.) সাইফুল ইসলাম জোয়ারদার কানাডায়, বাবু ওরফে রাতুল বাবু ভারতে, আনিসুল মোরসালীন এবং তার ভাই মুহিবুল মুক্তাকীন ভারতের কারাগারে এবং মাওলানা তাজুল ইসলাম দক্ষিণ আফ্রিকায় রয়েছেন।

    জঙ্গি নেতা শফিকুর রহমান, মুফতি আবদুল হাই, মাওলানা আবু বকর, ইকবাল, খলিলুর রহমান, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে বদর, মাওলানা লিটন ওরফে জোবায়ের ওরফে দেলোয়ার, ঢাকা মহানগর পুলিশের তৎকালীন উপ-কমিশনার (পূর্ব) ওবায়দুর রহমান এবং উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) খান সাঈদ হাসান পাকিস্তানে অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।

    তবে অপর অভিযুক্ত পলাতক হারিস চৌধুরীর অবস্থান জানা যায়নি। তিনিও এই মামলায় ইন্টারপোলের রেড নোটিশে রয়েছেন।

    কারাগারে বাবর-পিন্টু

    এই মামলার ৫২ আসামির মধ্যে বিএনপির সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টু কারাগারে রয়েছেন। অন্যদিকে পুলিশের সাবেক আইজি আশরাফুল হুদা, শহিদুল হক, খোদাবক্স চৌধুরী এবং সাবেক তিন তদন্ত কর্মকর্তা- সিআইডি’র সাবেক এসপি রুহুল আমিন, সিআইডি’র সাবেক এএসপি আতিকুর রহমান ও আবদুর রশিদ জামিনে রয়েছেন।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755