• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    পাখির পায়ে নীল জুতা!

    অনলাইন ডেস্ক | ২২ আগস্ট ২০১৭ | ৭:৫৯ অপরাহ্ণ

    পাখির পায়ে নীল জুতা!

    হাতে বোনা নীল রঙের কাপড়ের জুতা পরে পার্কে হাঁটাহাঁটি করছে স্কুইশ নামের ফ্লেমিঙ্গোর এই ছানাটি। ছবি: রয়টার্সপাখির পায়ে জুতা! আজগুবি হলেও সত্যি যে সিঙ্গাপুরে একটি ধূসর বর্ণের ফ্লেমিঙ্গো পাখির ছানার জন্য নীল রঙের কাপড়ের জুতা তৈরি করা হয়েছে। আর ছানাটিও মনের আনন্দে দিব্যি ওই জুতা পড়ে পার্কে হেঁটে বেড়াচ্ছে।


    বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, সিঙ্গাপুরের জুরং বার্ড পার্ক চিড়িয়াখানায় চলতি বছরেই স্কুইশ নামের ফ্লেমিঙ্গো ছানাটির জন্ম হয়। চিড়িয়াখানার ভেতরের কিছু অংশ পাথরে বাঁধাই করা। স্কুইশের হাঁটাহাঁটিতে তার পায়ে যেন কোনো আঘাত না লাগে এ কারণেই নীল রঙের ওই জুতা তৈরি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার থেকে ওই জুতা পায়ে দিয়ে হেঁটে বেড়াচ্ছে ছানাটি।

    ajkerograbani.com

    প্রতিবেদনে বলা হয়, ফ্লেমিঙ্গো ছানাটির বয়স আড়াই মাস। একটি পরিত্যক্ত ডিম থেকে বিশেষ প্রক্রিয়ায় পার্কের ভেতরে তার জন্ম। ওজন ১ দশমিক ৬ কেজি।

    জুরং বার্ড পার্ক কর্তৃপক্ষ বলছে, স্কুইশের জন্য হাতে বোনা জুতা তৈরি করা হয়েছে। কারণ, পার্কের কিছু অংশ পাথরে বাঁধাই করা। সূর্যের আলোয় তা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। স্কুইশ হাঁটতে হাঁটতে সেখানে চলে যায়। এ কারণেই তার পায়ে জুতা পরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সূর্যের আলোয় প্রতিদিন হাঁটাহাঁটি পাখিটির লম্বা পা দুটিকে শক্তিশালী করতে খুবই দরকারি। পাখিটির মূল আবাস দক্ষিণ আফ্রিকা অঞ্চলে। সেখানে ঠান্ডা ও ভেজা মাটিতে এই পাখি হাঁটাহাঁটি করে।

    জুরং বার্ড পার্কের কর্মকর্তা গেরার্ড ওয়ান বলেন, ‘স্কুইশের পা শক্তিশালী হলে তাকে পাখির ঝাঁকের সঙ্গে ছেড়ে দেওয়া হবে। আমাদের বিশ্বাস, পাখিটি সেখানে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারবে।’

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ফল চাষে স্বাবলম্বী

    ২৯ এপ্রিল ২০১৭

    কানাডায় স্থায়ী বসবাসের সুযোগ

    ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

    বাউ ড্রাগন ফলের চাষ

    ৩০ এপ্রিল ২০১৭

    অস্ট্রেলিয়ায় কাজের সুযোগ

    ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755