• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    পাগলের পর কাদের মির্জাকে ‘টোকাই মেয়র’ বললেন নিক্সন চৌধুরী

    | ২০ জানুয়ারি ২০২১ | ৯:০৪ পূর্বাহ্ণ

    পাগলের পর কাদের মির্জাকে ‘টোকাই মেয়র’ বললেন নিক্সন চৌধুরী

    বেশ কিছুদিন থেকেই আলোচনার শীর্ষে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ভাই নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। এই আলোচনায় এবার যোগ হয়েছে আরেক আলোচিত ব্যক্তি ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মুজিবর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন চৌধুরী।


    সম্প্রতি সংসদ সদস্যদের নিয়ে কাদের মির্জার নানা বক্তব্যে চোটেছেন নিক্সন চৌধুরী। নবনির্বাচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে প্রথমে ‘পাগল’ বলার পর এবার ‘টোকাই মেয়র’ বলে আখ্যায়িত করলেন সাংসদ মুজিবর রহমান নিক্সন চৌধুরী। সাংসদদের নিয়ে ‘আপত্তিকর’ বক্তব্য দেওয়ায় ‘তাঁর বিচার সব সংসদ সদস্যরা করবেন’ বলে উল্লেখ করেছেন নিক্সন চৌধুরী।

    ajkerograbani.com

    মঙ্গলবার বিকেলে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার গাজীরটেক ইউনিয়নে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। এক কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের একটি সড়কের ইট বিছানোর কাজ এবং ১০০টি কম্বল বিতরণ উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয় গাজীরটেক মোড় এলাকায়।

    সভায় সাংসদ নিক্সন চৌধুরী কাদের মির্জাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনার মতো টোকাই মেয়র মোবাইলে ফেসবুকে কথা বলে ভাইরাল হইয়েন না। নিক্সন চৌধুরী তাঁর মামা শেখ সেলিমের শক্তিতে চলে না। তাঁর নাম নেওয়ার আগে অজু কইরা নিয়েন। পাগল ঠিক করার ওষুধ জনগণের জানা আছে।’

    গত ১৩ জানুয়ারি এক নির্বাচনী সভায় আবদুল কাদের মির্জা সাংসদ নিক্সনকে জড়িয়ে একটি বক্তব্য দেন। ওই বক্তব্যে কাদের মির্জা অভিযোগ করেন, নিক্সন চৌধুরী ভোট চুরি করে সাংসদ হয়েছেন।

    গত রোববার এ বক্তব্যের জবাবে ভাঙ্গায় সাংসদ নিক্সন এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কাদের মির্জাকে পাগল আখ্যায়িত করে তাঁকে ‘পাবনা পাঠানোর জন্য’ সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ‘পাগলকে আটকান না হলে গণধোলাই খাবেন।’ এর জবাবে মির্জা কাদের বলেন, নিক্সন চৌধুরী দলের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন।

    গতকাল মঙ্গলবারের ওই সভায় সাংসদ নিক্সন চৌধুরী বলেন, ‘হঠাৎ গত দু-এক দিনের মধ্যে নোয়াখালীর এক পাগল আমার পিছনে লাগছে। আমি এই পাগলকে চিনিও না। পাগল প্রতিদিন আমার বিরুদ্ধে বক্তৃতা দিচ্ছে। এখন শুনি তিনি নাকি মেয়র হইছেন, আমাদের এক বড় নেতার ভাই। উনি বক্তৃতা দিয়া বলেন, সব এমপি নাকি মদ খান। তিন’শ এমপি মদ খায়।’ সাংসদ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘যত বড় নেতার ভাই আপনি হোন না কেন আপনি সংসদ সদস্যদের নিয়ে আপত্তিকর কথা বলেছেন আপনার বিচার সব সংসদ সদস্য করবেন।’

    যুবলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নিক্সন চৌধুরী বলেন, ‘আমি মামার জোর দেখাই না। জনগণই আমার ক্ষমতা। পাগল ঠিক করার ওষুধ আমার জনগণের জানা আছে। তাঁরা কাজী জাফরউল্ল্যাকে ঠিক করেছে।’

    নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের মামলা করেছে বলে কাদের মির্জার বক্তব্য সম্পর্কে সাংসদ নিক্সন বলেন, ‘আমি মামলা খাইছি বইলা ভয় পাই না। আমার নামে এক’শ মামলা হলেও আমি ভয় পাই না। মামলা না হইলে নেতা হওয়া যায় না। আরে আমি তো চুরি করার জন্য মামলা খাই নাই। জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য মামলা খাইছি।’

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755