বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২, ২০২০

সরকারের প্রতি বাংলাদেশ ন্যাপ

পাটকল শ্রমিকদের দাবিগুলো দ্রুত সমাধানের ব্যবস্থা করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ০২ জানুয়ারি ২০২০ | প্রিন্ট  

পাটকল শ্রমিকদের দাবিগুলো দ্রুত সমাধানের ব্যবস্থা করুন

বকেয়া মজুরি পরিশোধ ও মজুরি কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন, সরকারি- বেসরকারি অংশীদারিত্বের সিদ্ধান্ত বাতিল ও অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ ও গ্রাচ্যুইটির টাকা দেওয়াসহ রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের ১১ দফা ন্যায্য দাবি মেনে নিতে সরকারের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।
আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় পড়ে পাটকল শ্রমিকরা প্রভিডেন্ড ফান্ড-গ্র্যাচুইটি সুবিধা থেকে বঞ্চিত হন। তাই পাটকল শ্রমিকদের দাবিগুলো দ্রুত সমাধানের ব্যবস্থা করে শিল্পের অসন্তোষ নিরসনের জন্য সরকারের নিকট দাবি জানান তারা।
বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারী) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় এ আহ্বান জানান।
নেতৃদ্বয় বলেন, সরকার পাটকল শ্রমিকদের সঙ্গে বারবার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা রক্ষা করছে না, যা জনগন প্রত্যাশা করে না। পাটকল শ্রমিকরা ন্যায়সংগত দাবিতে অনশন করছেন। ইতোমধ্যে অনশনরত দুইজন শ্রমিকও জীবন দিয়েছেন। সরকারের প্রতিশ্রুতিতে আন্দোলনরত শ্রমিকরা অনশন ভাঙলেও গত দুই সপ্তাহে তাদের দাবি পূরণ না হওয়ায় তারা আবার অনশন করছেন।
তারা পাটকল শ্রমিকদের অনশন কর্মসূচির প্রতি সমর্থন জানিয়ে বলেন, শ্রমিকরা কতটা অসহায় হলে এই প্রচন্ড শীতে কাঁথা-বালিশ নিয়ে দিন-রাত অনশন কর্মসূচি পালন করছে। শ্রমিকরা অসুস্থ হয়ে পরছে,অথচ সরকারের দায়ীত্বশীল পর্যায়ে ব্যক্তিরা পাটকল শ্রমিকদের বিষয়ে একেবারেই উদাসীন।
নেতৃদ্বয় বলেন, আমাদের ঐতিহ্যের অহংকার পাট শিল্প আজ ক্রমাগত ধ্বংসের পথে। যেটুকু টিকে আছে, তাও ধুঁকে ধুঁকে চলছে। সবচেয়ে কষ্টে আছেন শ্রমিকরা। রাষ্ট্রয়াত্ত পাটকল শ্রমিকরা তাদের বহুদিনের বকেয়া সপ্তাহ পরিশোধ, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীদের পিএফ-গ্র্যাচুইটি ও মৃত ব্যক্তিদের বীমার বকেয়া পরিশোধ, শ্রমিক কর্মচারীদের স্থায়ীকরণ, ছাটাই শ্রমিকদের কাজে পুণর্বহালের দাবি ও শিল্প রক্ষার জন্য পাটমৌসুমে পাট ক্রয়ে অর্থ বরাদ্দ এবং পুরনো মেশিন আধুনিক ও কর্মক্ষম করতে ‘বিএমআরআই’ করার দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করছেন।
তারা আরো বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল কেন বছরের পর বছর লোকসান দিচ্ছে, সরকার সেদিকে ভ্রুক্ষেপ করছে না। সময় মতো অর্থ ছাড় না করে অসময়ে পাট কেনা, পুরানো যন্ত্রপাতি নবায়ন ও আধুনিকায়ন না করাসহ নানা দুর্নীতি অনিয়মই যে লোকসানের কারণ, তা বিভিন্ন সময়ে আলোচনায় আসলেও এই সমস্যা নিরসনে সরকারের কোনও উদ্যোগ নেই।


Posted ১:০৮ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০২ জানুয়ারি ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি) মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১২১৭০৭৭১

E-mail: [email protected] | [email protected]