• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    পাটুরিয়ায় ৪ কিলোমিটার যানজট

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ২৩ জুন ২০১৭ | ৪:২৪ অপরাহ্ণ

    পাটুরিয়ায় ৪ কিলোমিটার যানজট

    ঈদের আনন্দ পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নিতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছেন রাজধানীর বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। গ্রামের উদ্দেশে রওনা হওয়া মানুষের ঢল নেমেছে রাজধানীর বাস কাউন্টারগুলোতে। যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়ের কারণে রাস্তায় অতিরিক্ত পরিবহন নামিয়েছেন মালিকরা। বাড়তি পরিবহনের চাপ গিয়ে পড়েছে মহাসড়ক থেকে ফেরিঘাটগুলোতে।


    অতিরিক্ত পরিবহনের চাপে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে সৃষ্টি হয়েছে প্রায় ৪ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাটের পাটুরিয়া অংশে ৩০০ এর বেশি যানবাহন ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় আছে।

    ajkerograbani.com

    শুক্রবার সকাল ১০টার পরে এই ফেরিঘাটে পরিবহনের জট শুরু হয়। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে পরিবহনের চাপ। সেই সঙ্গে দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হতে থাকে যানজট। সকাল ১১টার ফেরিঘাটটিতে আসা পরিবহগুলোকে ফেরি পার হতে ৩ ঘণ্টার ওপরে অপেক্ষা করতে হয়েছে। আর সকাল সাড়ে ১১টার পর যেসব পরিবহন এসেছে তার একটিও এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ফেরি পার হতে পারেনি।

    এসব পরিবহগুলোকে ফেরি পেতে এখনও দুই ঘণ্টার বেশি সময় অপেক্ষা করতে হবে বলে জানিয়েছেন পরিবহন ও ফেরিঘাট সংশ্লিষ্টরা।

    এদিকে ফেরিঘাটের বিড়ম্বনার পাশাপাশি ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়কেও বড় ধরনের ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন ঘর ফেরত যাত্রীরা। রাজধানীর গাবতলী পার হওয়ার পর সাভার থেকেই শুরু হয়েছে যানজট। যা গিয়ে ঠেকেছে নবীনগর পর্যন্ত।

    সাভার থেকে নবীনগর পার হতেই দেড় থেকে দুই ঘণ্টার মতো সময় লাগছে। এই যানজট ঠেলে নবীনগর পার হলেও রেহায় মিলছে না যানবাহনের। ঢাকা জেলার ধামরাই থেকে মানিকগঞ্জ পর্যন্ত কমপক্ষে পাঁচটি পয়েন্টে যানজটে পড়তে হচ্ছে।

    ঢাকা-চৌগাছা রুটে চলাচল করা জে লাইনের পরিবহনের কর্মী শামীম জানান, অন্য স্বাভাবিক সময়ে নবীনগর থেকে পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে আসতে দেড় থেকে ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট সময় লাগে। আজ সময় লেগেছে ৩ ঘণ্টার বেশি। ১০ টার সময় নবীনগর থেকে রওনা দিয়ে ফেরিঘাটে সিরিয়ালে দাঁড়াতেই দেড়টা বেজে গেছে।

    `কখন ফেরিতে গাড়ি উঠতে পারবে জানি না। এখনও আমাদের সামনে ১৫০ টিরও উপর গাড়ি আছে। যে অবস্থা তাতে ৫টার আগে ফেরিতে উঠার সম্ভাবনা নেই,` বলেন তিনি।

    ঢাকা ছেড়ে ঝিনাইদহের উদ্দেশে রওনা হওয়া যাত্রী মো. কামাল হোসেন বলেন, `ভাই আর বইলেন না! সকাল ৯টায় গাবতলী থেকে গাড়ি ছেড়েছে। এখন আড়াইটার বেশি বাজে। কিন্তু ফেরিতেই উঠতে পারলাম না। জানি না কখন বাড়িতে পৌঁছাতে পারবো।`

    তিনি বলেন, রাস্তাতেও যানজট, ফেরিঘাটেও যানজট। ভোগান্তি তো হচ্ছেই। তারপরও ভালোভালো বাড়িতে পৌঁছাতে পারলেই খুশি। পরিবারের সবাই মিলে ঈদ উদযাপন করবো এর থেকে খুশির আর কী হতে পারে!

    মেহেরপুরের গ্রামের বাড়িতে যাবেন মো. শ্রাবণ। তিনিও কম ভোগান্তি পোহাচ্ছেন না। এরপরও বাড়িতে কোনো মতে যেতে পারলেই যেন শান্তি! বললেন, `ভেবেছিলাম এবার ঈদে গ্রামে যাবো না। কিন্তু কয়েক মাস হলো ছেলের বাবা হয়েছি। তাই ছেলের টানেই গ্রামে যেতে হচ্ছে। পথে যত কষ্টই হোক ছেলের মুখ দেখার পর সব কষ্ট দূর হয়ে যাবে।`

    তার ভাষায়, প্রতিবারই ঈদের সময় গ্রামের বাড়িতে যেত বড় ধরনের ভোগান্তি পোহাতে হয়। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফেরিঘাটে আটকে থাকাসহ যানজটের হ্যাপা তো আছেই। এবার ফেরিঘাটের সঙ্গে সড়কেও দীর্ঘ যানজট দেখা দিয়েছে।

    পাটুরিয়া ফেরিঘাটে দায়িত্ব পালন করা বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌ পরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) কর্মী মো. রাব্বী বলেন, সকাল ১০ টার আগে যেসব পরিবহন ঘাটে আসে সেগুলো যানজট ছাড়াই পারাপার হয়েছে। ১০ টার পরে গাড়ির চাপ বাড়ায় ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় থাকা পরিবহনের সংখ্যাও বাড়েছে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757