শনিবার ৩১শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রথমবার যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে বাংলাদেশ

ক্রীড়া ডেস্ক   |   বৃহস্পতিবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | প্রিন্ট  

প্রথমবার যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে বাংলাদেশ

দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করলেন মাহমুদুল হাসান জয়। তার এই ইনিংসের উপর ভর করেই প্রথমবারের মতো আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে গেল বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে টাইগার যুবারা। এর আগে প্রথম সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ১০ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে ভারত। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি ফাইনাল ম্যাচে প্রতিবেশী দেশ ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।
যুব বিশ্বকাপে এই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ফাইনালে উঠল। এর আগে ২০১৬ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত আসরে বাংলাদেশ সেমিফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরে বিদায় নিয়েছিল।
এদিন পচেফস্ট্রুমে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে নিউজিল্যান্ডের দেয়া ২১২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৪৪.১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। জয় ব্যক্তিগত ১০০ রানে আউট হন। তৌহিদ হৃদয় করেন ৪০ রান। ৪০ করে অপরাজিত থাকেন শাহাদাৎ হোসেন।
বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতে ধাক্কা খায়। দলীয় ২৩ রানে ওপেনার তানজিদ ফিরে যান। এরপর দলীয় ৩২ অপর ওপেনার ইমন উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন।
এরপর জয় ও হৃদয় দলের হাল ধরেন। ৬৮ রানের পার্টনারশিপ গড়েন তারা। দলীয় ১০০ রানে স্ট্যাম্পিং হয়ে ফেরেন হৃদয়। তারপর জয় ও শাহাদাৎ ১০১ রানের জুটি গড়েন। ৪৩তম ওভারের পঞ্চম বলে চার মেরে ব্যক্তিগত সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন জয়। কিন্তু পরের বলেই বোলারের হাতে ক্যাচ হয়ে ফিরে যান তিনি। পরে শাহাদাৎ ও শামীম মিলে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন।
এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২১১ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। কিউই যুবাদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৫ রান করে অপরাজিত থাকেন গ্রিনাল। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন লিডস্টোন। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে পেসার শরিফুল ইসলাম ৪৫ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন। এছাড়া শামীম হোসেন ২টি, রাকিবুল হাসান ১টি ও হাসান মুরাদ ২টি করে উইকেট নেন।
এবারের আসরের শুরুটা দুর্দান্ত ছিল বাংলাদেশের। ‘সি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম দু’ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে বৃষ্টি আইনে ৯ উইকেটে ও স্কটল্যান্ডকে ৮৯ রানে হারায় তারা। পাকিস্তানের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচটি বৃষ্টির কারনে পরিত্যক্ত হয়। তবে ৩ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে থেকে ‘সি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ।
গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সুপার লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১০৪ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠে বাংলাদেশ। শেষ আটে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ২ উইকেটে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছিল নিউজিল্যান্ড।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
ফল: ৬ উইকেটে জয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।
নিউজিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ ইনিংস: ২১১/৮ (৫০ ওভার)
(মারিউ ১, হোয়াইট ১৮, লেলম্যান ২৪, লিডস্টোন ৪৪, তাশকফ ১০, গ্রিনাল ৭৫*, সুন্দে ১, ক্লার্ক ৭, ফিল্ড ১২, অশক ৫*; শরিফুল ৩/৪৫, শামীম ২/৩১, রাকিবুল ১/৩৫, তানজিম ০/৪৪, মুরাদ ২/৩৪, হৃদয় ০/১৮)।
বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯: ২১৫/৪ (৪৪.১ ওভার)
(ইমন ১৪, তানজিদ ৩, জয় ১০০, হৃদয় ৪০, শাহাদাৎ ৪০*, শামীম ৫*; ফিল্ড ০/২৮, ক্লার্ক ১/৩৭, হ্যানকক ১/৩১, অশক ১/৪৪, তাশকফ ১/৫৭, গ্রিনাল ০/১৩)।
ম্যাচ সেরা: মাহমুদুল হাসান জয় (বাংলাদেশ)।

Facebook Comments Box


Posted ১১:০৪ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ