• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    প্রেমিকার মগজ ও রক্ত দিয়ে রাতের খাবার সারলো যুবক!

    অনলাইন ডেস্ক | ১০ নভেম্বর ২০১৭ | ১০:২৬ অপরাহ্ণ

    প্রেমিকার মগজ ও রক্ত দিয়ে রাতের খাবার সারলো যুবক!

    রাশিয়ান যুবক দিমিত্রি লুচিন। বয়স ২১ বছর। অথচ তার প্রেমিকা ওলগা বির বয়স ৪৫। ভালোই কাটছিল সময়। হঠাৎ একদিন দিমিত্রির মাথায় ভুল চেপে বসলো। মন চাইলো মানুষের মগজ খেতে কেমন লাগে তা যাচাই করে দেখার। হত্যা করলো পুরনো প্রেমিকাকে। এরপর শুধু তার মগজই ভাজি করে খেল নাই নয়, গ্লাস ভরে পান করলো রক্ত। খবর ডেইলি মিররের।


    পুলিশ দিমিত্রিকে গ্রেপ্তার করেছে।


    জানা গেছে, অভিযুক্ত নিজেকে সে রাক্ষস ভাবতে পছন্দ করে। অনেকবার রাক্ষস সেজে ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোডও করেছে দিমিত্রি। আর নিজের ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দিতেই সে এই কাজ করেছে।

    খবরে বলা হয়েছে, দিমিত্রি উচ্চ আইকিউ সম্পন্ন একজন প্রতিভাবান কবি। জিজ্ঞাসাবাদে সে এ হত্যা নিয়ে কোন অনুশোচনাও প্রকাশ করেনি। উল্টো হত্যার কথা স্বীকার করে পুলিশকে জানিয়েছে, ‘সে তার বান্ধবীর মগজের স্বাদ উপভোগ করেছে। সেটি খুবই সুস্বাদু ছিল।’

    খবরে বলা হয়েছে, লুচিন তার পুরাতন প্রেমিকার মস্তিস্ক ফাটিয়ে মগজ বের করে তা ভাজি করে খায়। এরপর রাক্ষসের মতো পানি হিসেবে পান করে সেই প্রেমিকারই রক্ত। এটা করার আগে সে তার বান্ধবীর বুকে চারবার ছুরিকাঘাত করে তাকে আধমরা করে। এরপর ওয়াইনের বোতল দিয়ে অন্তত ২৫ বার তার মাথায় আঘাত করে মৃত্যু নিশ্চিত করে।

    অভিযোগে বলা হয়, হত্যার পর দিমিত্রি তার প্রেমিকার স্তন ও কান কেটে ফেলে। সেগুলোর একটি অংশ বিড়ালের খাবারের বাটিতে রাখে। অন্যগুলো তার শিকারের (প্রেমিকা) মুখের মধ্যে গুজে দেয়।

    জানা গেছে, দিমিত্রি লুচিন সিরিয়াল কিলার জেফরি ধামারের একজন ফ্যান। সে জেফরিকে অনুকরণ করতো। তার মতো হওয়ার বাসনা পোষণ করতো মনে মনে। লুচিনের বিরুদ্ধে ওয়াইন বোতল দিয়ে মৃতদেহকে যৌন নির্যাতন করারও অভিযোগ উঠেছে।

    দিমিত্রি পুলিশের কাছে দোষ স্বীকার করেছেন এবং কীভাবে শিকারের মাথার খুলি ভাঙার জন্য মাংস কাটারী (মাংস কাটার যন্ত্র) ব্যবহার করেছেন তা বর্ণনা করেছেন। একইসঙ্গে জানান, প্রেমিকার মগজের স্বাদ তার কাছে খুব ভাল লেগেছে এবং পরবর্তীতে এমন কাজ আরও একবার করার ইচ্ছাও তার আছে।

    রাশিয়ার ভ্যালডাই থেকে আসা লুচিনকে গত ৮ মার্চ শিকারের ফ্লাটে এ হত্যাকাণ্ডের জন্য অভিযুক্ত করা হয়।

    হত্যার ছয় ঘণ্টা পর তিনি ভিকটিমের ট্যাবলেট কম্পিউটার, একটি চুলের স্প্রে এবং ১৫০ রুবল (মুদ্রা) নিয়ে ওই ফ্লাট থেকে বেরিয়ে যান।

    সাবেক রাশিয়ান আর্মি সদস্য লুচিনের বিচার শুরু হবে আগামী বছর। দোষী সাব্যস্ত হলে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে।

    Facebook Comments

    বিষয় :

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিয়ে করাই তার নেশা!

    ২১ জুলাই ২০১৭

    কে এই নারী, তার বাবা কে?

    ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4670