• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    প্রেমিকের বাড়িতে ইউপি সদস্যের অনশন

    অনলাইন ডেস্ক | ১২ মে ২০১৭ | ৩:৪৯ অপরাহ্ণ

    প্রেমিকের বাড়িতে ইউপি সদস্যের অনশন

    ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য নাজমিন সুলতানা প্রিয়সী। বয়স ত্রিশ। দুই সন্তানের মা। প্রেমিকের জন্য স্বামীকে তালাক দিয়েছেন। এখন প্রেমিকের বাড়িতে আমরণ অনশন করছেন তিনি। দাবি, প্রেমিকের স্ত্রীর স্বীকৃতি পাওয়া। ঢাকার ধামরাইয়ের সুয়াপুর ইউনিয়নের ঘটনা।


    প্রিয়সী সুয়াপুর ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্য। প্রেমিক ব্যবসায়ী আব্দুল আলিম পলাশ। বয়স তেইশ। তিনি একই ইউনিয়নের শিয়ালকুল গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে। স্বামী সন্তান রেখে প্রেমের টানে প্রেমিকের বাড়িতে গত দুইদিন ধরে অনশন করছেন এই নারী। বিয়ের স্বীকৃতি না পাওয়া পর্যন্ত তিনি ওই বাড়িতেই অবস্থান করবেন বলে জানিয়েছেন।

    ajkerograbani.com

    জানা গেছে, আব্দুল আলিম পলাশের সঙ্গে এক বছর আগে থেকে প্রেম করে আসছিলেন নাজমিন সুলতানা প্রিয়সী। ওইসময় প্রেমিকের প্রলোভনে স্বামী সন্তান রেখে তার সঙ্গে প্রিয়সীর অভিসার শুরু। পরে পলাশ তাকে তার স্বামী পিন্টু মিয়ার কাছ থেকে সরিয়ে ধামরাই সদরে বাসা ভাড়া করে দেন। সেই বাসায় নিয়মিত আসা যাওয়া করতেন পলাশ। তাদের মধ্যে দৈহিক সর্ম্পক তৈরি হয় বলে জানান অনশনকারী নারী সদস্য।

    কান্নাজড়িত কন্ঠে তিনি বলেন, পলাশ আমাকে গত ২০ এপ্রিল ধামরাই পৌর এলাকার কাজী অফিসে গিয়ে ১০ লাখ টাকা কাবিন করে বিয়ে করেছে। আমি তার কথায় গত তিন মাস আগে আগের স্বামী পিন্টুকে তালাক দিয়েছি। এখন কেন পলাশ ও তার পরিবার আমাকে মেনে নিচ্ছে না।

    তিনি অরোও বলেন, ‘আমাকে তারা মেনে না নেয়া পর্যন্ত আমি এই বাড়িতেই অবস্থান করব। আর তা না হলে আত্বহত্যার পথ বেঁছে নেয়া ছাড়া আমার কোন উপায় থাকবে না।’

    আব্দুল আলিম পলাশের চাচা চান মিয়া বলেন, ‘আমার ভাতিজা বিয়ে করে থাকলে প্রিয়সীকে পলাশের স্ত্রী হিসেবে মেনে নেয়া হবে। এতে আমাদের কোন আপত্তি নেই।’ আব্দুল আলিম পলাশ বিয়ের কথা অস্বীকার করেছেন। তবে, প্রিয়সীর সঙ্গে তার সর্ম্পক ও ধামরাই বাসায় যাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757