• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    প্রেমিকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ মুহূর্তে বিরক্ত করায় সন্তানকে খুন!

    অনলাইন ডেস্ক | ০৪ আগস্ট ২০১৭ | ১০:০৪ অপরাহ্ণ

    প্রেমিকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ মুহূর্তে বিরক্ত করায় সন্তানকে খুন!

    দশ মাস দশ দিন গর্ভে ধারণ৷ নিজের স্তন্যপান করিয়ে স্নেহছায়ায় বড় করে তোলা৷ নিজের সন্তানের কাছে মা সবসময় মমতাময়ী৷ সেই মা এতো নিচে নামতে পারে? নিজের মা এতো নৃশংস হতে পারে? কখনও সম্ভব? ‘কুসন্তান যদি বা হয়, কুমাতা কদাপি নয়’৷ সন্তান খারাপ হয়, মা কখনও খারাপ হয় না৷ সমাজ তাই জেনে এসেছে, জানিয়ে এসেছে৷ ভারতের পুরুলিয়ার এক মায়ের নৃশংসতা, বর্বরতা সেই সব প্রবাদকে এক নিমেষে মুছে দিয়েছিল৷ আর আজ, এক নৃশংস, নোংরা মা তার শরীরের খিদের জন্য দেড় বছরের সন্তানকে গলা টিপে হত্যা করল৷ বিস্ময়ে, লজ্জায়, ঘৃণায় মুখ ঢেকেছে গোটা সমাজ৷


    পুরুলিয়ার পর নদিয়া৷ ফের নিজের সন্তানকে হত্যার দায়ে গ্রেফতার এক মা৷ পুরুলিয়ার কন্যাশিশু নির্যাতন ও হত্যা মামলায় আগেই গ্রেফতার করা হয়েছে মৃত শিশুর মা’কে৷ শুক্রবার, নদিয়ার হাসখালি থানার গাজনায় নিজের সন্তানকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার করা হল সেই শিশুরই মাকে৷ একের পর এক মায়ের নিজের সন্তানের প্রতি নির্মমতা বিস্ময়ে অবাক করে দিয়েছে গোটা রাজ্যকে৷ লজ্জা, ঘৃণা, আতঙ্কে কেঁপে উঠেছে গোটা সমাজ৷ এ কি হচ্ছে আমাদের বাংলায়? জন্মদাত্রীরা নিজের হাতে মেরে ফেলছে নিজের সন্তানকে!

    ajkerograbani.com

    পুরুলিয়ার কন্যা শিশুকে নির্যাতন ও হত্যা মামলায় সহযোগী হওয়ার জন্য গ্রেফতার করা হয় শিশুর মা মঙ্গলা গোস্বামীকে৷ ইতিমধ্যেই পুরুলিয়া জেলা আদালতের রায়ে জেল হেফাজতে মৃত শিশুর মা৷ এবার, ঘটনা আরও নোংরা, আরও ভয়ংকর৷ নদিয়ায় নিজের সন্তানকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠল আর এক মায়ের বিরুদ্ধে৷ ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার হাসখালি থানার গাজনায়৷

    পুলিশ সূত্রে খবর, গাজনার দুর্লভপুরে ঝর্ণা বিশ্বাস তার দেড় বছরের সন্তানকে নিয়ে একাই থাকত৷ স্বামী রবি রাজোয়ারের মৃত্যুর পর সম্প্রতি ভীষ্ম সর্দার নামে এক ব্যক্তির সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল ঝর্ণার৷ অভিযোগ, ভীষ্ম পছন্দ করত না ঝর্ণার বছর দেড়েকের সন্তানকে৷ কারণ, শারীরিক সম্পর্কের সময় বড্ড বিরক্ত করত ঝর্ণার দেড় বছরের ছেলে৷ মাও বড্ড বিরক্ত হত ছেলের আচরণে৷ শরীরের শান্তির সময় বিরক্ত করলে হয়! শরীরের খিদে মেটাবার সময় ছেলের চীৎকার কি ভালো লাগে? শরীর আগে, তাই নিজের পেটের ছেলের গলা চিরকালের জন্য চুপ করিয়ে দিল মা৷ গলা টিপে খুন করল নিজের দেড় বছরের ছোট্ট শিশুকে৷

    শুক্রবার দীর্ঘক্ষণ ঝর্ণার ছেলেকে দেখতে না পেয়ে সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের৷ পরে ঝর্নাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করলে, ধরা পড়ে গিয়ে ছেলেকে খুনের কথা স্বীকার করে সে৷ শুনে অবাক হয়ে যায় এলাকাবাসী৷ নিজের সন্তানকে কেউ গলা টিপে মারতে পারে! মা ঝর্নাকে আটক করেছে পুলিশ৷ বাচ্চার দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে৷ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হাসখালি থানার পুলিশ৷

    পুরুলিয়ার ঘটনার পর অনেকেই বলেছিলেন, এটা বিছিন্ন একটা ঘটনা৷ কিন্তু নদিয়ার ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল, আমাদের সমাজ কোথায় গিয়েছে৷ কতটা নিচে নেমে গিয়েছে সমাজ৷ পুরুলিয়ার ঘটনায় পুলিশি তদন্তের পাশাপাশি সামাজিক তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকারের নারী শিশু ও সমাজ কল্যাণ দফতর৷ পুরুলিয়ার পর নদিয়ার ঘটনা থেকে তারা সমাজের এই ভয়ংকর অবক্ষয় নিয়ে কি তথ্য সংগ্রহ করে সেটাও এখন দেখার৷ নদিয়ার ঘটনা প্রমাণ করে দিল, পুরুলিয়ার ঘটনা কোন বিছিন্ন ঘটনা নয়৷ যুগের পরিবর্তনে সন্তানের প্রতি মায়ের মমতাতেও ঘটতি এসেছে৷ শরীরের খিদে নষ্ট করে দিচ্ছে মায়ের মমতাও৷ সূত্র: কলকাতা টুয়েন্টিফোর সেভেন

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755