• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রীকে ছুরিকাঘাত

    অনলাইন ডেস্ক | ০৯ জুলাই ২০১৭ | ৬:৫১ পূর্বাহ্ণ

    প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রীকে ছুরিকাঘাত

    প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় সোনিয়া আক্তার (২০) নামের এক কলেজছাত্রীকে ছুরিকাঘাতে জখম করেছেন এক বখাটে যুবক।


    আজ শনিবার বিকেল চারটার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের কালীবাড়ির মোড়ের জে এন ডেন্টাল পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে।

    ajkerograbani.com

    সোনিয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শিবপুর গ্রামের মলাই মিয়ার মেয়ে। তিনি সদর উপজেলার চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব অনার্স কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। সোনিয়া ওই ডেন্টাল পয়েন্টে অফিস সহকারী হিসেবে চাকরি করেন। ঘটনার পর থেকে বখাটে ওই যুবক পলাতক রয়েছেন।

    আহত ছাত্রীর পরিবার, ডেন্টাল পয়েন্ট ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জেলা শহরের পীরবাড়ি এলাকার তানভির রহমান কয়েক মাস ধরে কলেজে আসা-যাওয়ার পথে সোনিয়াকে উত্ত্যক্ত করে আসছেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে তিনি মোবাইলে সোনিয়াকে ফোন করে বিয়ের প্রস্তাব দেন। এরপর সোনিয়া তানভিরের মা-বাবার কাছে বিচার দেন।

    প্রতিদিনের মতোই কলেজ শেষে বেলা তিনটার দিকে শহরের কালীবাড়ি মোড়ে জে এন ডেন্টাল পয়েন্টে কাজে যায় সোনিয়া। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের দাঁতের চিকিৎসক নাফিসা আলমের ব্যক্তিগত ক্লিনিক খুলে রোগীদের সিরিয়াল লিখতে বসেন। এ সময় তানভির সেখানে যান। কেন তাঁর মা-বাবার কাছে বিচার দেওয়া হলো তা নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সোনিয়াকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান তানভির। স্থানীয় লোকজন সোনিয়াকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে তাঁকে ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

    হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শাখাওয়াত হোসেন বলেন, মেয়েটির অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁর হাত ও মুখে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

    চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোনিয়া আক্তার বলেন, ‘বিয়ের প্রস্তাবের বিষয় সম্পর্কে তাঁর বাবা-মায়ের কাছে বিচার দেওয়ায় এবং মুঠোফোনে কথাবার্তার রেকর্ডিংটি তানভিরের এক বোনকে দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন তানভির। আজ বিকেলে ওই ডেন্টাল ক্লিনিকে ঢুকে কেন বিচার দিলাম, এ কথা বলেই তানভির আমাকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করেন।’

    জে এন ডেন্টাল পয়েন্টের স্বত্বাধিকারী নাফিসা আলম বলেন, ‘কয়েক দিন আগে থেকেই সোনিয়া আমার এখানে কাজ করতে আসা শুরু করেন। গতকাল বিকেলে আমি বাসায় ছিলাম। এক বখাটে ক্লিনিকের ভেতরে ঢুকে সোনিয়াকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে গেছে বলে পরে জানতে পেরেছি।’

    বখাটে যুবক তানভিরের সঙ্গে একাধিকবার চেষ্টা করেও মুঠোফোন বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বেলাল হোসেন জানান, সন্ধ্যায় মেয়ের বাবা মলাই মিয়া বাদী হয়ে তানভিরকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেন। একই সঙ্গে তানভিরের বাবাকে আটক করেছে পুলিশ। বখাটে যুবককে গ্রেপ্তারে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়েছে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757