• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    প্রেম প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান গোপালগঞ্জে ধর্ষণের অভিযোগ

    গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি | ২৬ জানুয়ারি ২০১৯ | ২:৫৫ অপরাহ্ণ

    প্রেম প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান গোপালগঞ্জে ধর্ষণের অভিযোগ

    গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় প্রেম প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কীর্ত্তন শিল্পীকে (১৫) ধর্ষণ করেছে এক বখাটে। বৃহস্পতিবার রাতে কোটালীপাড়া উপজেলার পীরারবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
    ঘটনার পর ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে প্রথমে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পীরারবাড়ি গ্রামের মৃত পরীক্ষিত মল্লিকের ছেলে পরিমল মল্লিক (২২) ও গুরুদাস মল্লিকের ছেলে কালু মল্লিক (১৯) এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ওই কিশোরী ও তার পরিবার। কিশোরীর বাবা দুর্ঘটনায় পঙ্গু সবজি ব্যবসায়ী জানান, তার মেয়ে খুলনার লক্ষ্মী নারায়ণ সম্প্রদায় নামের একটি কীর্ত্তন দলের শিল্পী।


    গত দুই দিন আগে ৩ দিনের ছুটিতে বাড়ি আসে। বাড়িতে এলে সন্ধ্যার পরে গিয়ে পীরারবাড়ি বাজারের দোকানে বসে আমার ব্যবসায় সাহায্য করে। ঘটনার দিন রাত ৯টার দিকে দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে পরিমল ও কালু আমার মেয়ের মুখ বেঁধে টেনে হেঁচড়ে পুকুর পাড়ে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। সেখান থেকে কৌশলে আমার বড় মেয়েকে ফোন দিয়ে ঘটনার কথা জানাতেই ওরা ফোন কেড়ে নেয় ও মারপিট করে।


    আমার মেয়ে অজ্ঞান হয়ে গেলে তাকে ফেলে রেখে বখাটেরা পালিয়ে যায়। পরে আমরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি।
    কীর্ত্তন শিল্পীর মা অভিযোগ করে বলেন, আমার মেয়েকে পরিমল ও কালু ধর্ষণ করেছে। আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। যাতে ভবিষ্যতে আর কোনো মেয়ে ধর্ষণের স্বীকার না হয়।

    কীর্ত্তন শিল্পী জানায়, বেশ কিছুদিন আগে থেকে পরিমল মল্লিক তার পরিচয় গোপন করে ফোনে আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আমি সাড়া দিই নি। পরে পরিমলের পরিচয় পাওয়ার পর আমি তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করি। তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় প্রতিশোধ নিতে পরিমল ও তার সহযোগী কালু আমাকে ধর্ষণ করেছে। ঘটনার সত্যতা অস্বীকার করে পরিমল ও কালুর পরিবার বলেছে এটা একটি সাজানো নাটক।

    গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে সহকারী পরিচালক ডা. অসিত কুমার মল্লিক জানান, বৃহস্পতিবার রাতে ওই কিশোরীকে হাসপাতালে ভর্তি করে। আলামত সংগ্রহ করে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। শারীরিক পরীক্ষা শেষেই বলা যাবে সে ধর্ষিত হয়েছে কি না।
    কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুল ফারুক বলেন, বিষয়টি এখনও আমি জানিনা। কেউ অভিযোগ নিয়ে এলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673