• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ফরিদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক পদে শাহ জাফর চূড়ান্ত, সেক্রেটারি পদে আলোচনায় যারা

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৭ আগস্ট ২০১৯ | ৫:০২ অপরাহ্ণ

    ফরিদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক পদে শাহ জাফর চূড়ান্ত, সেক্রেটারি পদে আলোচনায় যারা

    যে কোন সময় ঘোষণা হতে পারে ফরিদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি। সাম্প্রতিক সময়ে ফরিদপুর জেলা বিএনপির নতুন কমিটি নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে চুলচেরা বিশ্লেষন চলছে বলে জানা গেছে।


    সব কিছু ঠিক থাকলে অল্প সময়ের মধ্যেই ঘোষণা হতে পারে বিএনপির আহবায়ক কমিটি।


    বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রভাবশালী একনেতা জানান, আহ্বায়ক কমিটির নাম চুড়ান্ত হয়ে আছে। কেবলমাত্র তারেক জিয়ার ‘গ্রিন সিগন্যাল’ পাওয়া গেলেই ঘোষণা হবে আহ্বায়ক কমিটির তালিকা।

    বিশ্বস্থ একটি সূত্র মতে, ফরিদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক হিসাবে দেখা যেতে পারে ফরিদপুর-১ আসনের সাবেক এমপি, বর্ষিয়ান নেতা শাহ মোহাম্মদ আবু জাফরকে।


    সদস্য সচিব হিসাবে আলোচনায় আছেন জেলা বিএনপির বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ফরিদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন।

    এছাড়া আলোচনায় আছেন জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক একে এম কিবরিয়া স্বপন।

    ফরিদপুর জেলা বিএনপির নতুন কমিটি নিয়ে বেশ আলোচনা চলছে দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের মাঝে। দীর্ঘদিন ধরে নিরব থাকার পর হঠাৎ করেই জেলা বিএনপির নেতা-কর্মীদের মাঝে প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরে এসেছে। মূলত নতুন কমিটি গঠন নিয়েই চলছে সরব আলোচনা।

    দলের সভাপতি নিয়ে যতটা না আলোচনা চলছে তারচেয়ে বেশী আলোচনা হচ্ছে সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে।

    সাধারন সম্পাদক পদে একাধিক প্রার্থীর নাম শোনা গেলেও আলোচনায় রয়েছেন চারজন।

    এরা হলেন, বিএনপির বর্তমান কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রশিদুল ইসলাম লিটন, জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আলী আশরাফ নাননু, জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক একে এম কিবরিয়া স্বপন ও স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন।

    বিএনপির কমিটিতে নাম লেখাতে দলের একাধিক নেতা কেন্দ্রীয় নেতাদের মাধ্যমে লবিং অব্যাহত রেখেছেন।

    ফরিদপুর জেলা বিএনপির সাবেক ও বর্তমান বেশ কয়েকজন নেতার সাথে আলাপ হলে তারা জানান, ত্যাগী ও রাজপথে থাকা নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে। যারা বিগত দিনে এবং বর্তমানে আন্দোলন-সংগ্রাম করতে গিয়ে হামলা-মামলার শিকার হয়েছেন এবং শরীরের রক্ত ঝরিয়েছেন সেইসব নেতাকে গুরুত্বপূর্ণ পদে রাখতে হবে। যারা দলের দুঃসময়ে নিজেকে বিপদ থেকে রক্ষা করতে গা বাঁচিয়ে চলেছেন কিংবা ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সাথে আঁতাত করে চলেছেন তাদের দুরে রাখতে হবে।

    দলের একাধিক ত্যাগী নেতা-কর্মীরা জানান, দলকে যারা ভালোবাসেন এবং যারা তৃণমূলের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করছেন তাদেরই গুরুত্বপূর্ণ পদ দিতে হবে। না হলে বিএনপির অবস্থা শোচনীয় পর্যায়ে চলে যাবে।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4673