বুধবার, এপ্রিল ৮, ২০২০

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তোফায়েল আহমেদের এপিএসকে হত্যা করে বুড়িগঙ্গায় ভাসিয়ে দেন এই মাজেদ

অগ্রবাণী রিপোর্ট   |   বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০ | প্রিন্ট  

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তোফায়েল আহমেদের এপিএসকে হত্যা করে বুড়িগঙ্গায় ভাসিয়ে দেন এই মাজেদ

বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পরদিনের ঘটনা। খুনি মাজেদ নির্যাতন শুরু করেন বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদের এপিএস-এর ওপর। অত্যাচার চলতেই থাকে। একপর্যায়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। এরপর লাশ ভাসিয়ে দেন বুড়িগঙ্গার স্রোতে।
সেই লাশের হদিস মেলেনি আর। পরে দুই খুনি মাজেদ ও শাহরিয়ার মিলে তোফায়েল আহমেদকে আটক করেন। শুরু করেন তাঁর ওপরও অমানুষিক নির্যাতন।
আবেগ আপ্লুত হয়ে সেই দিনের প্রতিক্রিয়া জানান তোফায়েল আহমেদ। বলেন, ‘আমি ওর ফাঁসি চাই। ও কেবল বঙ্গবন্ধুর খুনের সঙ্গে জড়িত নয়, পরে আরো অনেক আওয়ামী লীগ নেতার ওপর অত্যাচার করেছে ও। ও একটা খুনি। ওর দ্রুত ফাঁসি চাই।’
বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় আবদুল মাজেদসহ ১২ আসামিকে ২০০৯ সালে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। সূত্র মতে, এর আগে লিবিয়া ও পাকিস্তানে আত্মগোপনে ছিলেন মাজেদ। ১৯৯৫ সালের দিকে বাংলাদেশ থেকে ভারতে যান তিনি। সেখান থেকে পাকিস্তানে, এরপর লিবিয়ায় যান। ২০১৬ সালে আবার ভারতে ফেরেন তিনি।
গতকাল মঙ্গলবার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয় পলাতক খুনি আবদুল মাজেদকে গ্রেপ্তার করার বিষয়টি। গতকালই তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল দুপুরে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের নির্দেশে মাজেদকে কারাগারে পাঠানো হয়। দুপুর ১২টার দিকে তাঁকে আদালতে হাজির করা হলে মুখ্য মহানগর হাকিম জুলফিকার হায়াৎ নিজেই শুনানি গ্রহণ করেন।


Posted ১০:৫৬ এএম | বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement