• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    বনদস্যু ছোট রাজু বাহিনীর ১৫ সদস্য কারাগারে

    অনলাইন ডেস্ক | ৩১ মার্চ ২০১৭ | ৯:১৭ অপরাহ্ণ

    বনদস্যু ছোট রাজু বাহিনীর ১৫ সদস্য কারাগারে

    বনদস্যু ছোট রাজু বাহিনীর ১৫ সদস্যকে কারাগারে পাঠাবার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। শুক্রবার দুপুরে বাগেরহাট চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আছিফ আকরামের তাদের কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ দেন।


    র‌্যাব-৮ এর ডিএডি সৈয়াদুজ্জামান বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ছোট রাজু বাহিনীর ১৫ সদস্যের নামে মংলা থানায় দস্যুতা ও অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার ওই মামলায় বনদস্যুদের আদালতে পাঠালে বিচারক তাদের বাগেরহাট কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ দেন।


    বৃহস্পতিবার বরিশালের রূপাতলীতে বনদস্যু ছোট রাজু বাহিনীর ১৫ সদস্য দস্যুতা বাদ দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পাঁচটি বিদেশি একনলা বন্দুক, পাঁচটি বিদেশি দোনলা বন্দুক, পাঁচটি এয়ার রাইফেল, দুটি বিদেশি রাইফেল, চারটি ওয়ান শুট্যারসহ মোট ২১টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং এক হাজার ২৩৭ রাউন্ড বিভিন্ন প্রকার গোলাবারুদ আনুষ্ঠানিকভাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আসাদুজ্জামান কামালের হাতে জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেন।

    দস্যুতা মামলায় কারাগের প্রেরন বনদস্যুদের মধ্যে রয়েছে ছোট রাজু বাহিনীর প্রধান মো. রাজু মোল্লা ওরফে ছোট রাজু (৪৮), মো. মনিরুল ইসলাম (৩৫), মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী (২৯), মো. আফজাল হোসেন (২৫), মো. হারুন সরদার (৩৮), মো. বিল্লাল গাজী ওরফে ম্যাজিক বিল্লাল (৩৬), মো. খতিব গাজী ওরফে খতিব (৩৭), মো. মিকাইল গাজী (৩৭), মো. কামরুল সরদার (৩৯), মো. ফরহাদ সরদার (২৬), মো. সালাম গাজী (৩৭), মো. মিলন শেখ (২৫) ও তার বাবা মো. জলিল শেখ, মো. ফরহাদ গাজী (৩২), মো. সাব্বির শেখ (৪২) ও মো. মনিরুল গাজী মনি (৩৯)।

    দীর্ঘদিন ধরে সুন্দরবনের বাগেরহাট, খুলনা ও সাতক্ষীরার বির্তিন্ন এলাকা দাপিয়ে বেড়ানো বনদস্যু ছোট রাজু বাহিনীর আত্মসর্পন করায় এনিয়ে গত ১১ মাসের মধ্যে ১০টি বনদস্যু বাহিনীর ১০৭ জন সদস্য ২১৬ টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং ১১ হাজার ৩৮০টি গুলি র‌্যাবের কাছে জমা দিয়ে আত্মসমর্পন করল।

    গত ৩১ মে সুন্দরবনের কুখ্যাত জলদস্যু “মাষ্টার বাহিনীর” ১০ জন জলদস্যু ৫২টি দেশী-বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র এবং প্রায় ৩ হাজার ৯০৪ রাউন্ড গোলাবারুদ জমা দিয়ে প্রথম বারের মতো আনুষ্ঠানিক ভাবে আত্মসর্মাপন করে। তার ধারাবাহিকতায় গত ১৪ জুলাই সুন্দরবনের কুখ্যাত জলদস্যু “মজনু ও ইলিয়াস বাহিনীর” ১১ জন জলদস্যু ২৫ টি দেশী-বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র এবং ১ হাজার ২০ রাউন্ড গোলাবারুদ জমা দেয়। গত ০৭ সেপ্টেম্বর জলদস্যু “আলম ও শান্ত বাহিনীর” ১৪ জন জলদস্যু ২০ টি দেশী-বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র এবং সর্বমোট ১ হাজার৮ রাউন্ড গোলাবারুদ জমা দেয়। ১৯ অক্টোবর সাগর বাহিনী ১৩ সদস্যকে ২০টি দেশী-বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫৯৬ রাউন্ড বিভিন্ন প্রকার গোলাবারুদ জমা দেয়। গত ২৮ নভেম্বর খোকাবাবু বাহিনীর ১২ সদস্য ২২টি দেশী বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র ও ১ হাজার ৩ রাউন্ড গোলাবারুল’সহ র‌্যাব-৮ এর নিকট আতœসমর্পন করে। ৭ জানুয়ারী নোয়া বাহিনীর ১২ সদস্য ২৫ টি অন্ত্র ও এক হাজার একশ পাচ রাউন্ড গুলিসহ র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পন করে। ২৯ জানুয়ারী বনদস্যু জাহাংগীর বাহিনীর ২০ সদস্য ৩১ টি দেশি বিদেশী আগ্নেয়ান্ত্র ও ১ হাজার ৫০৭ রাউন্ড গুলি জমা দিয়ে আতœসর্মাপন করে। সর্বশেষ ৩০ মার্চ -২০১৭ ছোট রাজু বাহিনীর ১৫ সদস্য ২১টি দেশি বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র ও ১ হাজার ২৩৭ রাউন্ড গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পন করে।

    বিশাল সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল হাজার হাজার উপকূলবর্তী মানুষ প্রতি নিয়তই বনদস্যু বা জলদস্যুদের আক্রমনের শিকার হয়। সুন্দরবন সহ বিতৃন্ন উপকূলীয় এলাকায় বনদস্যু, জলদস্যুদের দমনের লক্ষ্যে র‌্যাব, পুলিশ, কোস্টগার্ড, বিজিবি ও বন বিভাগের সমন্বয়ে একটি টাস্কফোর্স কাজ করছে। র‌্যাব সুন্দরবন এলাকায় জলদস্যু ও বনদস্যুদের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে। সম্প্রতি সময়ে ১০টি বাহিনীর আত্মসমর্পনের পর সুন্দরবনে বনদস্যুদের তৎপরতা বহুলাংশে কমে এসেছে বলে র‌্যাবের পক্ষ থেকে দাবী করা হয়। ।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669